বাজার কানসাটে আম বিক্রি শুরু : দাম নিয়ে হতাশ চাষি

11

আমের রাজধানী চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার সববৃহৎ আম বানসাটে আম বাজারজাতকরণ শুরু হয়েছে। তবে দাম নিয়ে আমচাষিরা হতাশা প্রকাশ করেছেন।
চাঁপাইনবাবগঞ্জে আম বাজারজাতকরণের সময় অনুযায়ী ২০ মে গুটি ও ২৫ মে শুক্রবার গোপালভোগ জাতের আম নামানোর সময় নির্ধারণ থাকলেও ঠা-া আবহাওয়া ও শিলাবৃষ্টির কারণে গাছে আম না পাকায় অনেকেই আম নামাতে পারে নি। গত শুক্রবার পর্যন্ত জেলার সব চেয়ে বড় আম বাজার চাঁপাইনবাবগঞ্জের কানসাটেও আম দেখা যায়নি। শুক্রবার চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার ২-১ টি স্থানে আম বিক্রি শুরু হলেও শনিবার বেলা ১২ টার দিকে মাত্র এক ভ্যান আড়াইমণ রানী গোপাল আম নামান শিবগঞ্জ উপজেলার কাশিয়াবাড়ীর আম ব্যবসায়ী কাশিম উদ্দীন। বাজারে কোথাও কোন আম না নামলেও প্রথমে তিনি দাম বেশি পাবার আশা করে নিরাশ হন। তাকে পড়তে হয়েছে বিড়ম্বনায়। কারণ হিসেবে তিনি জানান, সু-স্বাদু রানী গোপাল আম গাছে পেকে যাওয়ায় বাধ্য হয়েই বাজারে নামিয়েছেন। কিন্তু ৪০ থেকে ৫০ টাকা কেজি দরে দাম চেয়েও বিক্রি করতে পারছেন না ক্রেতার অভাবে।
দেশের রাজশাহী ও সাতক্ষিরায় আগে আম পেকে যাওয়ায় ওই এলাকায় বাইরের ক্রেতারা অবস্থান করছেন। ফলে চাঁপাইনবাবগঞ্জে জেলার বাইরের ক্রেতা না থাকায় এবং রমজান মাসে আমের চাহিদা কম থাকায় স্থানীয় ক্রেতাদেরও আমের প্রতি আগ্রহ কম। বিভিন্নস্থান হতে আম ক্রেতারা সঠিক সময়ে না আসায় এমন বিড়ম্বনায় পড়তে হয়েছে আম বিক্রেতা কাসিম উদ্দীন কে।
একই অবস্থা জেলার অন্যান্য আম ব্যবসায়ীদেরও। তবে আম ব্যবসায়ী নেতারা জানিয়েছেন আগামী ২০ রমজান থেকে কর্মচাঞ্চাল্য হয়ে উঠবে দেশের বৃহত্তম কানসাটের এই আম বাজার। এদিকে শিবগঞ্জ আম বাজার ও সদর উপজেলার সদরঘাট আমবাজারে গিয়ে কোন আম চোখে না পড়লেও কাঁচা বাজারগুলোতে কিছু আম বিক্রি হতে দেখা গেছে।
সারাদেশের মধ্যে চাঁপাইনবাবগঞ্জে আমের মৌসুমে স্থানীয়দের পাশাপাশি হাজার হাজার ব্যবসায়ী এখানে আসেন। আম নিয়ে চলে ব্যাপক কর্মকা-। বহু পরিবার এ মৌসুমে আমের উপর নির্ভর করে জীবিকা নির্বাহ করে থাকে।