চাঁপাইনবাবগঞ্জে জেএমবির ৫ সদস্য আটক

7

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার একটি আম বাগানে টিনের ঘরে অভিযান চালিয়ে ৫ জেএমবি সদস্যকে আটক করেছেন র‌্যাব-৫-র সদস্যরা। শনিবার দিবাগত রাত ২টার দিকে গোপন বৈঠক করার সময় তাদের আটক করা হয় বলে র‌্যাব জানায়।
আটকরা হলেন, ধোবড়া গ্রামের মো. খিদির আলির ছেলে মো. জিয়াউল হক ওরফে জিয়া ওরফে আবির ওরফে রঞ্জিত (৩৮), গোয়াবাড়ী চাঁদপুর গ্রামের মো. সেকেন্দার আলির ছেলে মো. তৌফিকুল ইসলাম ওরফে তৌফিক ডাক্তার (৩২), ধোবড়া গ্রামের মৃত লুৎফর রহমানের ছেলে মো. বেলাদুল ইসলাম ওরফে বেলাল (৫০), চাকলা গ্রামের মৃত আলিফ উদ্দিন খলিফার ছেলে মো. কামাল হোসেন (৩৫), ধোবড়া গ্রামের মো. আনারুল হকের ছেলে মো. শরিফুল ইসলাম (৩৪)কে ২ টি ৭.৬৫ মি. মি. বিদেশী পিস্তল, ২ টি পিস্তলের ম্যাগাজিন, ৭ রাউন্ড গুলি, ৮০০ গ্রাম গান পাউডার, ৭৫ গ্রাম সোডা, ৮০ গ্রাম চুন, ৪ টি জিহাদী বই, বোমা তৈরির সরঞ্জামাদি ইত্যাদিসহ গ্রেপ্তার করা হয়।
রবিবার দুপুর পৌনে ১২টার দিকে অভিযানের বিষয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য সাংবাদিকদের সামনে তুলে ধরেন র‌্যাব- ৫, রাজশাহীর অধিনায়ক লে.কর্নেল মাহবুব আলম।
তিনি আরো জানান, র‌্যাবের কাছে তথ্য ছিল, জেএমবিকে সংগঠিত করার কাজটি করছিল জিয়াউল হক। গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে কয়েকমাস যাবৎ তাকে গ্রেপ্তারের জন্য চেষ্টা চালিয়ে আসছিলাম। এরই ধারাবাহিকতায় জানতে পারি, শিবগঞ্জের কোনো একটি আম বাগানে শনিবার দিবাগত রাতে বৈঠক ও অস্ত্র প্রশিক্ষণ দিবে। এরই প্রেক্ষিতে রাত ২টার দিকে বাজিতপুর গ্রামের গোরস্থানের পূর্বপাশে আম বাগানের ভিতর টিনের ঘরে অভিযান চালিয়ে ৫ জেএমবি সদস্যকে আটক করা হয়। তিনি আরো জানান, চাঁপাইনবাবগঞ্জে অনেক ঘনবসতি না থাকা ও বড় বড় আম বাগান থাকায় এ এলাকাসহ রাজশাহীর কিছু অঞ্চলকে অস্ত্র প্রশিক্ষণের জন্য বেছে নেয় জেএমবি। এছাড়াও অল্প ধর্মীয় জ্ঞান আছে এমন মানুষদের টার্গেট করে ও কোরআনের ভুল বাখ্যা দিয়ে দাওয়াতি কার্যক্রম চালায় ওই এলাকাতে।
এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও জানান র‌্যাব-৫, রাজশাহীর অধিনায়ক মাহবুব আলম।