ইঁদুর ধসিয়ে দিল তিনতলা ভবন

ঠিকঠাক সোজা দাঁড়িয়ে ছিল ভবনটি আশপাশের আর দশটা ইমারতের মতো। বলা নেই কওয়া নেই হুড়মুড় করে ভেঙে পড়লো হঠাৎ চীনসহ পশ্চিমা বিশ্বের কোথাও কোথাও এমন ঘটনা ঘটানো হয়ে থাকে। পুরনো আর মেয়াদোত্তীর্ণ ঝুঁকিপূর্ণ ভবন বিস্ফোরকের মাধ্যমে মুহূর্তেই ধসিয়ে দেওয়া হয়। এতে বেঁচে যায় সময় আর অর্থ। কিন্তু এখানে যে ঘটনাটি ঘটেছে তার পেছনে রয়েছে অন্য কারণ। কারণটি হচ্ছে ইঁদুর ইঁদুরের সামনে নাকি বিশাল পর্বতও অসহায়। ঝড়-বৃষ্টি-ভূমিকম্প যাকে টলাতে পারেনা তেমন পাহাড়ও ধসিয়ে দিতে পারে ছোট্ট ইুঁদুরের ক্ষুরের মতো ধারালো দাঁত। এজন্য মিত্ররূপী গাদ্দার স্বভাবের মিরজাফর বা রাজাকার টাইপের লোকদের আমরা ইঁদুরের সঙ্গে তুলনা করে থাকি। বিশ্বাসঘাতক লোকগুলো যেমন আপনার মাঝে লুকিয়ে থেকেই আপনাকে শেষ করে দেয় তলে তলে, তেমনি ইঁদুরও পাহাড়ের ভেতরে করলেও সেই পাহাড়কেই ফোকলা বানিয়ে দেয়। ওই ভবনটির ক্ষেত্রেও তেমন ঘটনাই ঘটেছে। ভবনবাসী এক ঝাঁক ইঁদুর ওই ভবনটির ভিত্তি কেটে কেটে তাকে ভঙ্গুর করে ফেলেছিল। শেষতক ভবনটি ভেঙে পড়েছে সেদিন। এ ঘটনা ঘটেছে তাজমহলের শহর আগ্রায়। ভবনটি ভেঙে পরার ভিডিও এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে পড়েছে। রবিবার তিনতলা ওই ভবনটি হুড়মুড় করে ভেঙে পড়ে। তবে অমন ভয়াবহ ঘটনায় কোনো প্রাণহানি হয়নি বা আহতও হয়নি কেউ। এর কারণ, বাড়িরর মালিক সুধির কুমার ভার্মা আগেই টের পেয়েছিলেন বাড়িটির অবস্থা সঙ্গীন। গত শনিবার প্রচ- বৃষ্টিপাত হয়। এতে করে বাড়িটির নিচে ইঁদুরের করা গর্তগুলো পানিতে টইটম্বুর হয়ে যায়। সুধির বুঝতে পারেন বড় বিপদ ঘনিয়ে এসেছে। তিনি পরিবার-পরিজন নিয়ে বাড়িটি খালি করে চলে যান অন্যত্র। এর কয়েকঘণ্টা পরই ধসে পরে বাড়িটি। উত্তরপ্রদেশ রাজ্যের আগ্রা শহরের সদাব্যস্ত এলাকা কামেশ্বর মন্দিরের কাছে এ ধরনের ভবনের কমতি নেই যেগুলো ইঁদুরের দাপটে দিন দিন কমজোর হয়ে পড়ছে। এলাকার অনেক ব্যবসায়ীর পুরনো ভবন সেখানে আছে। আর কোনো কারণে সেখানে ইঁদুরের বাড়বাড়ন্তিও অত্যধিক। গত কয়েকবছরে এই বৃদ্ধির হার আরো বেড়ে গেছে। ইঁদুরের দঙ্গল সুয়ারেজ লাইন, পানির পাইপ লাইনসহ মাটির নিচের আর ওপরের গৃহস্থালী অনেক জিনিসপত্রের যম হয়ে দেখা দিয়েছে। সুধির বলেন, আমরা ইঁদুরের হাত থেকে নিস্তার পেতে আর নিজেদের বাড়িঘরের ভিত্তি বাঁচাতে অনেক ধরনের চেষ্টা চালিয়েছি। কিন্তু কাজ হয়নি। সাম্প্রতিক বৃষ্টিপাত আর প্রবল বাতাসের চাপে বাড়ির দেয়ালে ফাটল দেখা দিয়েছিল। বুঝতে পেরেছিলাম পরিস্থিতি বিপজ্জনক কিন্তু এটা ধারণা করিনি যে বাড়িটি এভাবে ধসে পড়বে।

SHARE