পালং শাকে অনেক গুণ

টিভিতে এক সময়ের জনপ্রিয় কার্টুন চরিত্র পাপাইকে দেখা যেত পালং শাক খেয়েই শক্তিশালী হয়ে উঠতে। ভিটামিন সি সমৃদ্ধ পালং শাক সত্যিকার অর্থেই উপকারী। ভিটামিন সি ছাড়াও এতে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট রয়েছে। রয়েছে অন্যান্য ভিটামিন ও মিনারেল। এক কাপ তাজা পালং শাকে ৩০ মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম, ২৪ গ্রাম ম্যাগনেশিয়াম ও ১৬৭ মিলিগ্রাম পটাসিয়াম ছাড়াও প্রোটিন এবং আয়রন আছে প্রচুর পরিমাণে। জেনে নিন প্রতিদিনের খাবার তালিকায় পালং শাক রাখা কেন জরুরি।
রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়
পালং শাকে প্রচুর ভিটামিন সি থাকে যা শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। দেহের ইনফেকশন দূর করা, দেহ থেকে ক্ষতিকর উপাদান দূর করতেও সাহায্য করে পালং শাক।
শক্তি বাড়ায়
পালং শাকে থাকা ভিটামিন বি কমপ্লেক্স কর্মশক্তি বাড়ায়। এতে থাকা বি ওয়ান থায়ামিন, বি নাইন ফোলেট, বি টু রিবোফ্লোবিন ও বি থ্রি নিয়াসিন ব্রেস্ট ক্যানসার, ওভারিয়ান ও প্রোস্টেট ক্যানসারের মতো রোগ প্রতিরোধ করে। এ ছাড়া চোখের জন্যেও পালং শাক বেশ উপকারী।

গ্লুকোজ নিয়ন্ত্রণে রাখে
ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য গ্লুকোজ লেভেল নিয়ন্ত্রণে রাখা জরুররি। পালং শাকে থাকা আলফা লিপোইক অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ইনসুলিন অ্যাকটিভিটি বাড়িয়ে দেয়, যাতে গ্লুকোজ লেভেল কমে। ওজন কমানোর জন্যও নিয়মিত পালং শাক খেতে পারেন।
অ্যাজমা ও রক্তচাপ কমায়
পালং শাকে বেটা ক্যারোটিনের পরিমাণ থাকে অনেক। এই উপাদান অ্যাজমা প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে। ব্রকোলি, মিষ্টি কুমড়াসহ আরও কিছু সবজিতে এই উপাদান থাকে। পালং শাকে থাকা পটাসিয়াম উচ্চ রক্তচাপ কমায়।
সুস্থ দেহ ও মন
পালং শাকে থাকা ভিটামিন কে হাড় মজবুত করে। এতে থাকা আঁশ হজম শক্তি বাড়ায়, তাই কোষ্ঠকাঠিন্য দূর হয়। পালং শাকে ভিটামিন এ থাকে অনেক, যা চুল ও ত্বক সুন্দর রাখে।

SHARE