মাদক নির্মূলে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে ——– প্রেস ব্রিফিংয়ে জেলা প্রশাসক

জেলা প্রশাসক মো. মাহমুদুল হাসান বলেছেন, বিগত ৪শ থেকে ৫শ বছর পূর্বে চীনে মাদকের ভয়াবহতায় যুবসমাজ ধ্বংস হয়ে গিয়েছিল, গোটা জাতি অন্ধকারে নিমজ্জিত হয়ে পড়েছিল। কিন্তু পরবর্র্তীতে তারাই আবার মাদককে নির্মূল করে বিশ্ব মানচিত্রে শক্তিশালী দেশ হিসেবে আবির্ভূত হয়। বর্তমানে আমাদের দেশেও মাদকের ভয়াবহতা বাড়ছে, আমাদের সমাজে অনেক তরুন তরুনী মাদকের ছোবলে পড়ে তাদের ভবিষ্যৎ নষ্ট করছে। মাদকের এই ভয়াবহতা প্রতিরোধ বা নির্মূল করা কোন আইন প্রয়োগকারী সংস্থার একার পক্ষে সম্ভব নয়। সবাইকে নিজ নিজ যায়গা থেকে মাদক নির্মূলে কাজ করতে হবে। পেশাগত কাজের পাশাপাশি ব্যক্তি উদ্যোগেও সমাজ সচেতনতায় সবাইকে কাজ করতে হবে। গড়ে তুলতে হবে সামাজিক আন্দোলন। মাদকের ভয়াবহতা রোধে জনপ্রতিনিধি, আইনজীবী, সাংবাদিকসহ সকল পেশার মানুষকে এগিয়ে আসতে হবে। গত কাল বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণে জনসচেতনতা গড়ে তোলার লক্ষে আয়োজিত প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি এসব কথা বলেন। জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় জেলা তথ্য অফিস ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর এ প্রেস ব্রিফিংয়ের আয়োজন করে। জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত প্রেস ব্রিফিংয়ে আরো বক্তব্য দেন জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মো. আলমগীর হোসেন, জেলা তথ্য অফিসার ওয়াহিদুজ্জামান জুয়েল। এ সশয় অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. দেলোয়ার হোসেন উপস্থিত ছিলেন।
মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মো. আলমগীর হোসেন তাঁর দপ্তরের একটি পরিসংখ্যান তুলে ধরেন। তিনি জানান, ২০১৭ সালে ৬৬৫ টি মাদক বিরোধী অভিযান পরিচালনা করে ২১৩ জনকে অভিুক্ত করে ১৮২ টি মামলা দায়ের করা হয়েছে, মাদক বিরোধী জনসচেতনতা সুষ্টির লক্ষ্যে ৪৬২ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের নিয়ে ১১৬ টি শর্টফিল্ম প্রদর্শন করা হয়েছে। এছাড়াও ৭১ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মাদক বিরোধী ব্যানার ও বাঁধানো পোস্টার সরবরাহ করা হয়েছে।
“জীবনকে ভালবাসুন, মাদক থেকে দূরে থাকুন” এ শ্লোগানকে সামনে রেখে আয়োজিত প্রেস ব্রিফিংয়ে উন্মুক্ত আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন, সিনিয়র সাংবাদিক সামসুল ইসলাম টুকু, সিটি প্রেস ক্লাব, চাঁপাইনবাবগঞ্জের সভাপতি মো. সাজেদুল হক সাজু, অ্যাডভোকেট সৈয়দ শাহজামাল, সংবাদ কর্মী জাকির হোসেন প্রমূখ।