এমন কাজ আমি কখনোই করতে চাই না শাকিব অপছন্দ করে

বার বার শিরোনামে আসছেন ঢালিউডের জনপ্রিয় মুখ অপু বিশ্বাস। কলকাতা থেকে গত শনিবার রাতে ফিরেছেন এই অভিনেত্রী। বৃহস্পতিবার রাতে বাসার বাথরুমে পা পিছলে পড়ে পেটে আঘাত পাই। শারীরিক অবস্থা এতটা খারাপ ছিল যে, আমি কলকাতায় যেতে বাধ্য হয়েছিলাম। আর আমি জানতাম শাকিব দেশে নেই। তাই দরজা লক করে দ্রুত বিমানবন্দরের দিকে রওনা করি। এতকিছু ঘটে যাবে বুঝিনি। আমি আমার সন্তানের পাশে সবসময় আছি এবং থাকবো। আর আমি আপাতত কিছুদিন বিশ্রাম নিতে চাই। তাহলে কয়েকদিন আগে চুক্তিবদ্ধ হওয়া পরিচালক বদিউল আলম খোকনের কাঙ্গাল ও রবিন খানের কানাগলি নামে দুটি ছবির কাজ কি করবেন না? এই প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, আমি পরিচালকদের সঙ্গে কথা বলে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিব। তবে আপাতত কিছুদিন অভিনয় থেকে দূরে থাকবো। আর নিজের শারীরিক সুস্থতার জন্যও সময় প্রয়োজন। যেহেতু আমি বর্তমানে অসুস্থ তাই আমার সুস্থ হতে আরো কিছুদিন সময় লাগবে। সংসার নিয়ে যে জটিলতা শাকিব খানের সঙ্গে তৈরি হয়েছে সে বিষয়ে কিছু বলুন? অপু এ প্রসঙ্গে বলেন, আমি আমার সন্তান ও সংসারকে আঁকড়ে ধরে বেঁচে থাকতে চাই। কলকাতায় গিয়ে আমার বোনের সঙ্গেও এ বিষয়ে কথা বলেছি। শাকিবের সঙ্গে আমার হয়তো মান-অভিমান বেড়েছে তাই বলে সংসার ভেঙে যাক, এটা আমি কখনোই চাই না। আমি এখনও আগের মতো শাকিবকে শ্রদ্ধা করি ও ভালোবাসি। আর আমার বিশ্বাস, শাকিবের সঙ্গে যে মান-অভিমান আমার তৈরি হয়েছে সেটাও দ্রুত ঠিক হয়ে যাবে। আর শাকিব অপছন্দ করে এমন কাজ আমি কখনোই করতে চাই না। আপনাকে নিয়ে প্রকাশিত একটা খবরে জানা গেছে যে, আপনি অভিনয় ছেড়ে নামাজ ও রোজা করবেন। আবার হজে যাওয়ার প্রসঙ্গও এসেছে। এ বিষয়ে অপুর ভাষ্য, আমি মুসলমান হওয়ার পর নামাজ ও রোজা নিয়মিত পালন করি। আর ভবিষ্যতে হজ করারও পরিকল্পনা রয়েছে। এটা নতুন কিছু না। আমি সুন্দরভাবে শাকিবের সঙ্গে সংসার করতে চাই। এর বাইরে কোনো কিছু আপাতত ভাবছি না। উল্লেখ্য, চলতি বছরের এপ্রিলে একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলের লাইভ অনুষ্ঠানে এসে অপু শাকিবের সঙ্গে তার বিয়ের খবর জানান। তিনি জানান, ২০০৮ সালে ১৮ই এপ্রিল শাকিব খান ও অপুর বিয়ে হয়। আর গত বছরের ২৭শে সেপ্টেম্বর কলকাতার এক ক্লিনিকে জন্ম হয় শাকিব ও অপুর সন্তানের। এ সন্তানের নাম রাখা হয় আব্রাম খান জয়। শাকিব খানও বিষয়টি গণমাধ্যমের কাছে স্বীকার করেন। তবে জনসমক্ষে বিষয়টি চলে আসার পর শাকিবের সঙ্গে দূরত্ব বাড়তে থাকে অপুর। অবশ্য শাকিব খান অপুর সঙ্গে কথা না বললেও তার সন্তান জয়ের সঙ্গে নিয়মিত দেখা করেন। তবে সবকিছু ভুলে অপু দ্রুত শাকিবের সঙ্গে তার দূরত্ব দূর করতে চান। মিলেমিশে এক হয়ে পরিবার নিয়ে থাকতে চান।