বাংলাদেশকে ‘তথাকথিত বন্ধু’ আখ্যা দিলেন ভারতীয় মন্ত্রী

বাংলাদেশকে ‘তথাকথিত বন্ধু’ আখ্যা দিয়েছেন ভারতের স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী হাঁসরাজ গঙ্গারাম আহির। তিনি মন্তব্য করেছেন, ভারতের জাতীয় নিরাপত্তায় পাকিস্তান ও চীনের চেয়েও বাংলাদেশকে বড় চ্যালেঞ্জ। বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্কোন্নয়ন প্রচেষ্টার বিরোধিতার করে গত বৃহস্পতিবার হাঁসরাজ এই মন্তব্য করেন।
অ্যাসোচাম আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে হাঁসরাজ দাবি করেন, ‘শুধু চীন বা পাকিস্তান নয়, বাংলাদেশও আমাদের জাতীয় নিরাপত্তার জন্য হুমকি। খুব কাছ থেকে দেখেছি বলেই জানি আমি।’
গত সপ্তাহে হাঁসরাজ আসাম সফর করেছিলেন। সফরে তিনি বাংলাদেশের সঙ্গে সীমান্তে বেষ্টনি নির্মাণের বিষয়টি পরিদর্শন করেন। বাংলাদেশ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ হলো একমাত্র তথাকথিত বন্ধু। কারণ অবৈধ প্রবেশের মাধ্যমে ভারতকে অনেক ক্ষতিগ্রস্ত করেছে এবং তা অব্যাহত থাকায় শুধু আধুনিক প্রযুক্তিই এই প্রবণতা রোধ করতে পারে।’
মহারাষ্ট্রে চারবার নির্বাচিত এই আইনপ্রণেতা ভাষণে প্রতিবেশী চীন ও পাকিস্তান নিয়ে নিজের দৃষ্টিভঙ্গি তুলে ধরেন। তিনি বলেন, ‘চীন খুব ঘনিষ্ঠ বন্ধু নয়। আর ভারত যদি পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত কাশ্মিমের দখল নিতে চায় তাহলে কেউ আটকাতে পারবে না। কারণ এটি আমাদের এবং তা ফিরে পেতে আমরা চেষ্টা চালাব।’
হাসরাজ দাবি করেন, বাংলাদেশ, চীন, মিয়ানমারের সন্ত্রাসীরা পাকিস্তান হয়ে ভারতে প্রবেশ করছে। অনুপ্রবেশ ঠেকাতে বিভিন্ন আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার ও কাজে লাগাতে হবে ভারতকে।
ভারতীয় সম্প্রচারমাধ্যম এনডিটিভি বলছে, স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর এই বক্তব্যের সঙ্গে বাংলাদেশ ও ভারতের সরকারের অবস্থান ও বক্তব্যের কোনও সামঞ্জস্য নেই। গত সপ্তাহেই বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি উভয় দেশের ঐতিহাসিক বন্ধনকে নতুন মাত্রায় নিয়ে যাওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।