রাজশাহীতে ২ বাসের সংঘর্ষে নারীর মৃত্যু

51

রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলার বেলপুকুর ভাংগ্রা এলাকার ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়কে যাত্রীবাহী দু’টি বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে অজ্ঞাতপরিচয় এক নারী (৩৫) নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আরও কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়েছেন। গতকাল রোববার বেলা আড়াইটার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। আহতদের মধ্যে ৮ জনকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ইমার্জেন্সি মেডিকেল কর্মকর্তা (ইএমও) সোহেল আক্তার বলেন, বেলা সোয়া ৩টা পর্যন্ত তারা ৮ জন আহত ব্যক্তিকে পেয়েছেন। তারা সবাই পুঠিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়ে এখানে এসেছেন। রোগীদের বেশিরভাগই মাথায় আঘাত পেয়েছেন। আহতদের জরুরি বিভাগ থেকে হাসপাতালের ৫, ৮, ৯ ও ৫০ নম্বর ওয়ার্ডে পাঠানো হয়েছে। ওয়ার্ডে যাওয়ার পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় অজ্ঞাতপরিচয় একজন নারীর মৃত্যু হয়েছে বলে তিনি খবর পেয়েছেন। বর্তমানে আরও ২/৩ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলেও জানান ইএমও। ঘটনাস্থল থেকে রাজশাহীর পবা হাইওয়ে পুলিশের শিবপুর ফাঁড়ির এসআই হাবিব আহমেদ বলেন, গতকাল রোববার দুপুরে রাজশাহী থেকে ছেড়ে যায় যাত্রীবাহী বাস সাব্বির ট্রাভেলস। আর রংপুর থেকে রাজশাহী অভিমুখী ছিলো যাত্রীবাহী বাস জেকে স্পেশাল। বাস দু’টি পুঠিয়ার বেলপুকুর ইউনিয়নের ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়কের ভাংগ্রা এলাকায় পৌঁছলে মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। স্থানীয়রা দ্রুত গিয়ে গুরুতর আহতদের উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। পরে তাদের সঙ্গে যোগ দেয় রাজশাহী সদর ফায়ার সর্ভিসের কর্মীরা। বর্তমানে স্থানীয়দের সহায়তায় সেখানে উদ্ধার কাজ চলছে। নিরাপত্তার জন্য পুলিশ ঘটনাস্থলে রয়েছে। রাজশাহীর পুঠিয়া থানার ওসি সায়েদুর রহমান জানান, সড়ক দুর্ঘটনাকে কেন্দ্র করে যেন কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে সেজন্য ঘটনাস্থলে হাইওয়ে পুলিশ রয়েছে। একজন অজ্ঞাতপরিচয় নারীকে হাসপাতালে নেওয়ার পর মারা গেছেন। তার পরিচয় সনাক্তের চেষ্টা চলছে। দুর্ঘটনাকবলিত বাস দু’টি উদ্ধার শেষে মামলা হবে বলেও জানান এ পুলিশ কর্মকর্তা।