রোহিঙ্গাদের ফেরাতে চাপ তৈরিতে আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থার প্রতি আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

54

দমন-পীড়নের মুখে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফিরিয়ে নেওয়ার জন্য চাপ তৈরি করতে আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থাকে (আইওএম) আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গত বুধবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যায় নিউ ইয়র্কের গ্র্যান্ড হায়াত হোটেলে সংস্থাটির মহাপরিচালক উইলিয়াম ল্যাসি সুইং প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে এলে তিনি এ আহ্বান জানান বলে পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হক জানিয়েছেন। পররাষ্ট্র সচিব বলেন, প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, তাদেরকে তাদের দেশে ফিরে যেতে হবে। ফিরিয়ে নেওয়ার ব্যবস্থা করতে আপনারা আন্তর্জাতিক প্রেসার তৈরি করেন। বৌদ্ধ সংখ্যাগরিষ্ঠ মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে গত ২৪ অগাস্ট রাতে কয়েকটি পুলিশ পোস্ট ও একটি সেনা ক্যাম্পে হামলার পর দেশটির সেনাবাহিনী রোহিঙ্গা মুসলমানদের বিরুদ্ধে নতুন করে দমন অভিযানে নামে। সেনাবাহিনীর চলমান অভিযানে গত প্রায় এক মাসে চার লাখের বেশি রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। তারা বলছেন, মিয়ানমারের সেনাবাহিনী রোহিঙ্গা অধ্যুষিত গ্রামগুলোতে নির্বিচারে গুলি চালিয়ে মানুষ মারছে। রোহিঙ্গা নারীদের ধর্ষণ এবং গ্রামের পর গ্রাম জ¦ালিয়ে দেওয়া হচ্ছে। রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেওয়ায় বাংলাদেশকে ধন্যবাদ জানান আইওএম মহাপরিচালক। আগামি মাসের শুরুতেই তিনি বাংলাদেশ সফর করবেন বলেও জানিয়েছেন। পররাষ্ট্র সচিব বলেন, উনি (উইলিয়াম) এটাও বলেছেন, সবাই এখন চেষ্টা করছে অং সান সু চির ওখানে গিয়ে তাকে বলতে যে, এটা (দমন-পীড়ন) বন্ধ করে তাদেরকে ফেরত নিয়ে যেতে। এদিকে মঙ্গলবার দুপুরে ওইআইসির কোর কমিটির বৈঠকের পর তুরস্কের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর সংক্ষিপ্ত বৈঠকে রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে আলোচনা হয়েছে বলে জানান শহীদুল হক। গত বুধবার সকালে এস্তোনিয়ার প্রেসিডেন্ট কার্টসি কালজুলেডের সঙ্গে দ্বি-পাক্ষিক বৈঠক হয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার। এ ছাড়া নেদারল্যান্ডসের রানী ম্যাক্সিমার সঙ্গেও দ্বি-পাক্ষিক বৈঠক হয়েছে বাংলাদেশের সরকার প্রধানের।