একটি আম গাছ এবং ২০০ বছরের ইতিহাস

আম গাছ বড় হতে পারে, তবে কতটা বড় হতে পারে ? প্রথম দেখাতে আপনি বিস্মিত হবেন। অপলক দৃষ্টিতে চেয়ে থাকবেন কিছু সময়, হটাৎ আপনার কাছে মনে হবে এটা কি আসলেই আম গাছ, নাকি বট গাছ। গাছটির এক একটি ডাল যেন এক একটি গাছ। একদম হুবহু বট গাছের মতো। যে গাছটির সামনে গিয়ে দাঁড়ালে আপনার মনে হবে এটা আম গাছ না, হতে পারে অন্য কোনো গাছ। গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী থানায় ২০০ বছর ধরে ইতিহাস এবং ঐতিহ্যের ডাল-পালা ছড়িয়ে দাঁড়িয়ে আছে ঐতিহ্যবাহী একটি আম গাছ। গাছটির আনুমানিক বয়স ২২০ বছর। প্রায় ৫ বিঘা জায়গা জুড়ে গাছটি বিস্তৃত। কাশিয়ানী উপজেলার ঢাকা-খুলনা মহাসড়কে ২২০ বছর ধরে ইতিহাস এবং ঐতিহ্যের স্বাক্ষী হয়ে দাঁড়িয়ে আছে আম গাছটি। কাশিয়ানী সদর থেকে ৫ কি.মি এই ২২০ বছর পুরানো ঐতিহ্যবাহী আম গাছটি দেখার জন্য প্রতিদিন দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে শতশত দর্শনার্থী আসেন। এখানে প্রায় সারা বছরই দর্শনার্থীদের ভীড় লেগে থাকে। তবে গাছটি কে কবে লাগিয়েছিলেন তার সঠিক তথ্য স্থানীয় কেউ বলতে পারে না।
যেভাবে যাবেন : মহেশপুর ইউনিয়নের হিরোনকান্দি গ্রামে গাছটির অবস্থান। গোপালগঞ্জ শহর থেকে প্রায় ৩০ কিমি উত্তরে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কে কাশিয়ানী উপজেলায় পৌছে নিজস্ব পরিবহন অথবা যেকোনো লোকাল পরিবহনে করে যেতে পারবেন।