হিলারিকেই পছন্দ ছিল পুতিনের : ট্রাম্প

64

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিনের সঙ্গে তার সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক গড়ে উঠেছে বলে দাবি করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। জার্মানির হামবুর্গে শিল্পোন্নত দেশেরগুলোর জি-২০ সম্মলেনে পুতিনের সঙ্গে বহুল আকাঙ্খিত বৈঠকের কয়েকদিন পর ক্রিশ্চিয়ান ব্রডকাস্টিং নেটওয়ার্ককে (সিবিএন) দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ট্রাম্প এমনটাই জানিয়েছেন, খবর বিবিসির। একই সাক্ষাৎকারে ট্রাম্প আরও বলেছেন, তিনি নিশ্চিত পুতিন হোয়াইট হাউজের চেয়ারে হিলারিকেই দেখতে চেয়েছিলেন, তাকে নয়। গত বছরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রাশিয়ার সহযোগিতায় ট্রাম্প বিজয়ী হয়েছিলেন, এমন অভিযোগের তদন্ত করছে যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেস ও বিচার বিভাগ। ট্রাম্প এ বিষয়ে কিছু জানার কথা অস্বীকার করেছেন; রাশিয়াও দাবি করেছে, তারা যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনে কোনো ধরনের হস্তক্ষেপ করেনি। সাক্ষাৎকারে পুতিনের সঙ্গে বৈঠক নিয়ে ট্রাম্প বলেন, “মানুষ বলে, তারা (পুতিন ও ট্রাম্প) একে অপরকে পছন্দ করবে না; কারা বলে? আমার মনে হয় আমরা একে অপরকে খুব পছন্দ করেছি। আমরা পারমাণবিক শক্তিধর জাতি, তারাও। আমাদের মধ্যে চমৎকার সম্পর্ক না থাকার কারণ থাকতে পারে না। ট্রাম্প দাবি করেন, সিরিয়ার দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলে চলমান অস্ত্রবিরতিই পুতিনের সঙ্গে সহযোগিতামূলক কাজের নমুনা। যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়ার উদ্যোগে গত সপ্তাহ থেকে ওই অস্ত্রবিরতি কার্যকর হয়েছে। রাশিয়ার ষড়যন্ত্রে তিনি নির্বাচিত হয়েছেন, এমন ধারণা ঘুরিতে দিতেও সিবিএনের সাক্ষাৎকারকে ব্যবহার করেছেন ট্রাম্প। পাল্টা বলেছেন, তাকে নয়, প্রতিদ্বন্দ্বী ডেমোক্র্যাটিক পার্টির হিলারিকেই বেশি পছন্দ ছিল রাশিয়ার। কারণ যদি হিলারি জিততেন, তাহলে আমাদের সামরিক বাহিনী আরো সংকুচিত হতো; আমাদের জ¦ালানি আরও বেশি ব্যয়বহুল হতো। এইজন্যই পুতিন আমাকে পছন্দ করতেন না। একই কারণে আমিও বলি, কেন তিনি আমাকে পছন্দ করবেন? বলেন ট্রাম্প।