অসি এ দল দ.আফ্রিকা সফর বয়কট করবে

82

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে বেতন-ভাতা সংক্রান্ত সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরিত না হওয়ায় চলতি মাসে পূর্ব নির্ধারিত দক্ষিণ আফ্রিকা সফর বয়কট করবে অস্ট্রেলিয়া এ’ দল। অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেটার্স অ্যাসোসিয়েশন (এসিএ) রবিবার এ কথা জানিয়েছে। সিডনিতে অনুষ্ঠিত প্লেয়ার্স ইউনিয়নের জরুরী সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। গত শুক্রবার সিএ’র সঙ্গে সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরিত না হওয়ায় ১২ জুলাই শুরু হতে যাওয়া সফরটি নিয়ে এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে এসিএ।
এসিএ’র প্রধান নির্বাহী অ্যলিস্টার নিকোলসন বলেন, দক্ষিণ আফ্রিকা সফরসূচি বাস্তবায়ন করতে হলে সমস্যা সমাধানে ‘উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি’ দরকার। মাস ব্যাপী চলা আলোচনার পরও গত শুক্রবার নির্ধারিত সময়ে খেলোয়াড়দের বেতন-ভাতা সংক্রান্ত বিষয়ে দুই পক্ষের মধ্যে সমঝোতা চুক্তি সম্পন্ন না হওয়ায় নতুন এই জটিলতার সৃষ্টি হয়েছে।
চুক্তি না হওয়ার ফলে অস্ট্রেলিয়ার ২৩০ জন পুরুষ ও মহিলা ক্রিকেটার বেকার হয়ে গেছে। এর ফলে হুমকিতে পড়েছে অস্ট্রেলিয়া দলের আসন্ন বাংলাদেশ ও ভারত সফর সহ নিজ দেশে চলতি বছরের এ্যাশেজ সিরিজ। অস্ট্রেলিয়া এ’ দলের দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের বিষয়ে নিকোলসন বলেন, ‘তারা সফরে যাচ্ছে না। বাস্তবতা হচ্ছে শুক্রবার পর্যন্ত তারা কেউ দেশের বাইরে যাবেনা। তবে পূর্ব নির্ধারিত সূচি মোতাবেক তারা খেলোয়াড়রা (অনুশীলন) ক্যাম্পে অংশ নিবে। আশা করছি সমঝোতা চুক্তির বিষয়ে কিছুটা অগ্রগতি হবে। বেতন-ভাতা এবং রাজস্ব ভাগাভাগির বিষয়ে একটি উল্লেখযোগ্য অগ্রগতির প্রয়োজন।’
জবাবে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া বলেছে, অস্ট্রেলিয়া দলে খেলার জন্য তারা কোন খেলোয়াড়কে চাপ দেবেনা। এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে সিএ জানায়, ‘অস্ট্রেলিয়া ‘এ’ দলের এই সফরটি হচ্ছে খেলোয়াড়দের উন্নতির জন্য। এর মাধ্যমে তারা শীর্ষ পর্যায়ে খেলার সুযোগ লাভ করে। কিন্তু এমন সফরে খেলোয়াড়দের অংশগ্রহণ না করার সিদ্ধান্তটি বিস্ময়কর। তবে স্বেচ্ছায় খেলার ইচ্ছে প্রকাশ না করলে সিএ কখনো তাদের ওপর চাপ প্রয়োগ করবে না।
নতুন সমঝোতা চুক্তির বিষয়ে আপসরফা করার জন্য সিএ এখনো প্রস্তুত। বাস্তবতার নিরিখে খেলোয়াড় ও খেলার বৃহত্তর স্বার্থে এ বিষয়ে একটি সমঝোতা করার বিষয়ে আলোচনার জন্য আমরা আবারো এসিএ’র প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।’

খেলোয়াড়রা ঐক্যবদ্ধ:
খেলোয়াড় সমিতির এই সিদ্ধান্তের আওতায় বিভিন্ন প্রাদেশিক দলের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ খেলোয়াড়দেরও অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। তারাও এমওইউ সম্পন্ন না হওয়া পর্যন্ত কোন খেলায় অংশ নেবেনা। অস্ট্রেলিয়া ‘এ’ দলের অধিনায়ক উসমান খাজা সাংবাদিকদের বলেন, ‘কাজটি করা বেশ কঠিন। তবে আমরা সবাই ঐক্যবদ্ধ আছি। এই সপ্তাহেও আমরা অনুশীলন অব্যাহত রাখব। আশা করছি এর মধ্যেই এ বিষয়ে সমাধানের পথ বের হয়ে আসবে। তবে যদি সমাধান না হয়, তাহলে কঠোর সিদ্ধান্ত নিতে হবে। কারণ আমরা খাদের কিনারায় পৌঁছে গেছি।’
এদিকে সমঝোতা না হলে অস্ট্রেলিয়া দলের আসন্ন বাংলাদেশ ও ভারত সফর ব্যাহত হবে বলে সতর্ক করে দিয়ে এসিএ বলেছে, ‘বাংলাদেশ ও ভারত সফরের বিষয়ে খেলোয়াড়দের মধ্যে প্রবল আগ্রহ রয়েছে। তাই ন্যায়সঙ্গত শর্তে সমঝোতা চুক্তি চুড়ান্ত করার মাধ্যমে ওই সফরসুচি বাস্তবায়নে সহায়তা করার জন্য সিএ’কে আহ্বান জানাচ্ছি।’ নির্ধারিত সময়ে সমঝোতা চুক্তি সম্পন্ন না হওয়ায় এই মুহূর্তে পূর্বনির্ধারিত সফরসূচি বাস্তবায়নের জন্য বোর্ডের হাতে কোন পেশাদার খেলোয়াড় নেই। আগামি আগস্টে অস্ট্রেলিয়া টেস্টে দলের বাংলাদেশ সফরের কথা রয়েছে। আর সেপ্টেম্বরে ভারত সফরের কথা রয়েছে অস্ট্রেলিয়ার ওয়ানডে দলের।