চাঁপাইনবাবগঞ্জে খাদ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ ও সংরক্ষণ বিষয়ক তিন মাসের প্রশিক্ষণ সম্পন্ন

189

চাঁপাইনবাবগঞ্জে খাদ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ ও সংরক্ষণ বিষয়ক তিনমাসের প্রশিক্ষণ সম্পন্ন হয়েছে। ইউরোপীয় ইউনিয়নের আর্থিক সহায়তায় এবং পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউ-েশন (পিকেএসএফ) সহযোগিতায় প্রয়াস মানবিক উন্নয়ন সোসাইটির ইউপিপি উজ্জীববিত প্রকল্পের আওতায় নারীদের কারীগরি দক্ষতা বৃদ্ধিতে এই প্রশিক্ষণের আয়োজন করা হয়। চাঁপাইনবাবগঞ্জ কারীগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে (টিটিসি) গত ফেব্রুয়ারি মাসের ১ তারিখ থেকে জেলার ৫ উপজেলা ১৫জন নারীকে হাতেকলমে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। এ উপলক্ষে রবিবার দুপুর ১২টায় টিটিসি মিলনায়তনে সমাপনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। টিটিসির অধ্যক্ষ প্রকৌশলী আব্দুর রহিমের সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন, জেলা প্রশাসক মো. মাহমুদুল হাসান। স্বাগত বক্তব্য দেন প্রয়াস মানবিক উন্নয়ন সোসাইটির নির্বাহী পরিচালক হাসিব হোসেন। অন্যাদের মধ্যে বক্তব্য দেন, টিটিসির প্রশিক্ষক শরিফুল ইসলাম, প্রয়াসের কনিষ্ঠ সহকারী পরিচালক মু. তাকিউর রহমান, স্কিল ফর এমপ্লয়মেন্ট ইনভেস্টমেন্ট প্রোগ্রামের  জব প্লেসমেন্ট অফিসার রফিকুল ইসলাম, প্রশিক্ষণ গ্রহণকারী জান্নাতুন খাতুন, আয়েশা শরিফা বিথি প্রমুখ।
জেলা প্রশাসক মো. মাহমুদুল হাসান বলেন-প্রতিটি নারীর মধ্যে অপার সম্ভবনা রয়েছে। কিন্তু অনেক ক্ষেত্রে বাল্যবিয়ের কারণে মেয়েরা শিক্ষা থেকে ঝরে পড়ে, এক সময় মা হয়, স্বাস্থ্যহানী ঘটে, কখনো কখনো স্বামী পরিত্যাক্তাও হতে হয়। ফলে তাদের জীবনে নেমে আসে অন্ধকার, দেশের উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত হয়, দেশকে পেছনে নিয়ে যায়। তিনি বলেন-এ ধরণের কারীগরি প্রশিক্ষণ যারা গ্রহণ করেছ, আমি আশা করবো তোমরা যেন তা কাজে লাগিয়ে আয় রোজগার করে  নিজের উন্নতির পাশাপাশি দেশের উন্নয়নে ভূমিকা রাখো। এ জন্য তোমাদেরকে বাড়িতে কাজের পাশপাশি পড়া শোনাও করতে হবে। আধুনিক জগতের সাথে পরিচিতি থাকতে হবে। আমি আশা করি, আগামী দিনে তোমরা সাফল্যের কাহিনী রচনা করবে। প্রয়াস তোমাদের সহযোগিতা দেবে। তিনি প্রয়াসসহ অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের প্রশংসা করেন।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে হাসিব হোসেন বলেন-প্রযাস যখন যাত্রা শুরু করেছিল তখন অনেকেই বাধা দিয়েছিল, নিরুৎসাহিত করেছিল। কিন্তু সকল বাধা উপেক্ষা করে তখন যারা মাত্র দেড়শ থেকে দ’শ টাকা সম্মানীতে কাজ শুরু করেছিল আজ  তারা ৩০ হাজার টাকা বেতন পায়। প্রয়াস আজ অনেক বড় প্রতিষ্ঠান। তোমাদেরকেও হয়ত তুচ্ছতাচ্ছিল্য করবে। কিন্তু সব বাধা অতিক্রম করে তোমাদের সামনের দিকে এগিয়ে যেতে হবে। প্রয়াস তোমাদের পাশে থাকবে। ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত সুখী বাংলাদেশ গড়তে সবাইকে এক যোগে কাজ করার আহবান জানান তিনি।
প্রসঙ্গত, নারীর ক্ষমতায়নে প্রয়াস মানবিক উন্নয়ন সোসাইটি কাজ করছে। বিশেষ করে অতিদরিদ্র নারীদের কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে অগ্রণী ভূমিকা পালন করছে সংস্থাটি। সমাজে পিছিয়ে পড়া নারীদের স্বাবলম্বী করতে বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিনামূল্যে দেওয়া হচ্ছে বিশেষ প্রশিক্ষণ, সরবরাহ করা হচ্ছে বিভিন্ন উপকরণ। প্রশিক্ষণে অর্জিত জ্ঞান কাজে লাগিয়ে তারা নিজেদের কর্মসংস্থান সুষ্টির মাধ্যমে আয় রোজগার করে পূরুষের পাশাপাশি সংসারের উন্নতিতে বিশেষ ভূমিকা রাখছে। সংসারে ফিরে আসছে স্বচ্ছলতা।
ইউপিপি উজ্জীবিত প্রকল্পের আওতায় মাচা পদ্ধতিতে ছাগল পালন, গাভি পালন, গরু মোটাতাজাকরণ, কেঁচো সার উৎপাদন ও তার ব্যবহার, সেলাই প্রশিক্ষণ, ব্লকবাটিক প্রশিক্ষণ এবং ফুড প্রসেসিং এ্যান্ড প্রিজারভেশন প্রশিক্ষণ অন্যতম। এই প্রকল্পে আর্থিক সহায়তা করছে ইউরোপিয় ইউনিয়ন এবং প্রকল্পটি বাস্তবায়নে সহযোগিতা করছে পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউ-েশন (পিকেএসএফ)। এরই ধারাবাহিকতায় গত ফেব্রুয়ারি মাসের ১ তারিখ থেকে ৩ মাস ব্যাপী ফুড প্রসেসিং এ্যান্ড প্রিজারভেশন বা খাধ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ ও সংরক্ষণ প্রশিক্ষণের আয়োজন করা হয়। এতে জেলা সদর, শিবগঞ্জ, গোমস্তাপুর, নাচোল ও ভোলাহাট উপজেলার ১৫ জন অতিদরিদ্র নারী সদস্য অংশগ্রহণ করে সফলতার সাথে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন।
প্রশিক্ষণে যা শেখানো হয়েছে
মিষ্টি বিস্কুট, নোনতা বিস্কুট, পাউরুটি, কেক প্রস্তুত প্রণালী (স্পঞ্জ কেক), আলুর চিপস প্রস্তুত করণ, ডিমের পুডিং প্রস্তুতকরণ, মিষ্টি দই প্রস্তুতকরণ, মাছ ও মাংশের পিকেল প্রস্তুতকরণ, চাল কুমড়ার মোরব্বা প্রস্তুতকরণ, কাঁচা আমের মোরব্বা প্রস্তুতকরণ, নডুলস প্রস্তুতকরণ, সবুজ মটরদানা বোতলের সংরক্ষণ, আলুর ফালি শুকিয়ে সংরক্ষণ, কাঁচা মরিচের আচার প্রস্তুতকরণ, জলপাইয়ের মিষ্টি আচার প্রস্তুতকরণ, জলপাই এর ঝাল আচার প্রস্তুতকরণ, তেঁতুল চাটনি প্রস্তুতকরণ, কুলের মিষ্টি আচার প্রস্তুতকরণ, টমেটো সস প্রস্তুতকরণ, কৃত্রিম জেলী প্রস্তুত করণ, সংরক্ষিত আম দ্বারা চাটনি প্রস্তুত, পাকা টমেটো জুস প্রস্তুত করণ ও বোতলে সংরক্ষণ, কাঁচা আমের ঝাল আচার প্রস্তুত, কাঁচা আমের দ¦ারা কাশ্মীরি আচার প্রস্তুত, কাঁচা আমের সরবত প্রস্তুত, আমের স্কোয়াস প্রস্তুত, কৃত্রিম ভিনেগার বা সিরকা প্রস্তুত, পাকা বা কাঁচা আমের পাল্প জ্যাম তৈরী, পেয়ারা বা আপেলের জেলি ও জ্যাম প্রস্তুত, আদার নেকটার প্রস্তুত ইত্যাদি।