উবার চালক বছরশেষে টিকছেন ৪ শতাংশ

134

অ্যাপভিত্তিক ট্যাক্সি সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান উবার-এর ঝুলিতে নতুন সমস্যা যোগ করা যেতে পারে, আর তা হচ্ছে- চালকদের প্রতিষ্ঠান ট্যাগ। প্রযুক্তি ব্যবসায়বিষয়ক সাইট দ্য ইনফরমেশন-এর তথ্যমতে, এক বছর আগে এই প্রতিষ্ঠানটিতে চালক হিসেবে সাইন আপ করেছেন এমন লোকদের মধ্যে এখনও কাজ করছেন চার শতাংশ। লিফট-এর মতো প্রতিদ্বন্দ্বী প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা বাড়তে থাকায় উবার থেকে চালকদের চলে যাওয়ার হার বাড়ছে, এমনটাই বলা হয়েছে মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনবিসি’র প্রতিবেদনে। কিন্তু উবার চালকদের মূল অভিযোগ হচ্ছে তাদের পারিশ্রমিক। অনেক উবার চালকের অভিযোগ হচ্ছ তারা দীর্ঘ পথের যাত্রাগুলোতে যে অর্থ পাচ্ছেন তা অন্যায্য আর এক্ষেত্রে তাদের বখশিশ নেওয়ারও কোনো সুযোগ নেই। উবার-এর মুখপাত্র দ্য ইনফরমেশন-কে বলেন, “আমরা বুঝতে পেরেছি চালকদের সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক আর উবার ব্যবহারে তাদের অভিজ্ঞতা উন্নত করা দরকার। আমরা আমাদের পণ্য, নীতিমালা, গ্রাহকদের  সমর্থন দেওয়া আর যোগাযোগের উপায়ের মতো জায়গাগুলোতে উন্নতির জন্য কাজ করছি।
সেই সঙ্গে প্রতিষ্ঠানটি নির্দিষ্ট চালকদের জন্য আর্থিক সুবিধা দেওয়া ও বখশিশ নেওয়ার সুযোগ দেওয়ার বিষয়টি বিবেচনা করছে। এর মাধ্যমে চালকরা আরও বেশি অর্থ আয়ের সুযোগ পাবেন। উবার প্রতিদ্বন্দ্বী লিফট ইতোমধ্যে চালকদের জন্য বখশিশ নেওয়ার একটি সুযোগ করে দিয়েছে। চলতি মাসেই এক প্রতিবেদনে বলা হয়, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্ক সিটিতে নতুন ট্যাক্সি আইন পরিকল্পনা বাস্তবায়ন হলে চালকদের বখশিশ দেওয়ার ব্যবস্থা করতে হবে উবার-এর। সোমবার নিউ ইয়র্ক সিটি ট্যাক্সি অ্যান্ড লিমুজিন কমিশন-এর পক্ষ থেকে জানানো হয়, জুলাইয়ের মধ্যেই একটি নীতিমালা প্রস্তাবের পরিকল্পনা রয়েছে তাদের। এতে সকল ভাড়া করা যানের চালকদের বখশিশ দেওয়ার সুবিধা থাকতে হবে, ঠিক যেভাবে যাত্রীরা প্রচলিত ট্যাক্সির ভাড়া পরিশোধ করে থাকেন সেভাবে। উবার-এর ক্ষেত্রে স্মার্টফোন অ্যাপের মধ্যেই বখশিশ দেওয়ার অপশন রাখার কথা বলা হয়েছে।
কমিশনের পক্ষ থেকে বলা হয়, চালকদের মজুরি কমতে থাকায় তাদের কথা বিবেচনা করেই এ পরিকল্পনা করা হয়েছে। সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রে ভাড়া কমিয়েছে উবার। নতুন নীতিমালা বাস্তবায়ন হলে তা চালকদের জন্য সহায়ক হবে বলে জানানো হয়।
এর আগে চালকদের বখশিশ দিতে অসম্মতি জানিয়েছিল উবার। তাদের দাবি এটি যাত্রীর জন্য অস্বস্তির বিষয়। আর এতে চালক ও যাত্রীর মধ্যে ভাড়া আদান প্রদানের গতি কমে যায়।