জামায়াতকে ছেড়ে বিএনপিকে আলোচনায় আসার আহ্বান নাসিমের

100

nasim-minister-finalজামায়াতকে ছেড়ে বিএনপিকে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে আলোচনায় বসার আহ্বান জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম।  বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনের অ্যালমনাই ফ্লোরে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ আহ্বান জানান। মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে ‘আলেচনা সভা, মুক্তিযোদ্ধা ও গুনীজন সম্মাননা-২০১৬’ এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে বগুড়া স্টুডেন্ট অ্যাসোসিয়েশান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। মন্ত্রী বলেন, আপনারা ( বিএনপি) জামায়াতকে ছেড়ে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে আলোচনায় আসুন। আপনাদের প্রস্তাব গ্রহণযোগ্য হলে রাষ্ট্রপতি সেটা অবশ্যই বিবেচনা করবেন। কিন্তু নির্বাচন হবে ২০১৯ সালে সংবিধান অনুযায়ী শেখ হাসিনার অধীনে। নির্বাচন পরিচালনা করবে নির্বাচন কমিশন। বিএনপি আন্দোলন করার মতো অবস্থায় নেই উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, সাহস থাকলে আন্দোলন করেন আওয়ামী লীগের মতো বাধা ভেঙে। আমরা মার খেয়ে মিটিং করেছি, জেলে গিয়েছি। নির্বাচনে অংশ না নিয়ে নিজেরাই নিজেদের অধিকার হারিয়েছেন। আপনাদের জ¦ালাও পোড়াও আন্দোলনে কোনো মানুষ আসবে না। ধর্মের নামে বিভ্রান্তি ছাড়ানো হচ্ছে উল্লেখ করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, শান্তির ধর্ম ইসলামকে ব্যবহার করে বাংলাদেশে জঙ্গিবাদের উত্থানের চেষ্টা হচ্ছে। তরুণ প্রজন্মকে বিপথগামিতা করে ইসলামকে বিতর্কিত করার চেষ্টা চলছে। বঙ্গবন্ধুকে স্মরণ করে নাসিম বলেন, বাঙালি কোনোকালে ঐক্যবদ্ধ ছিল না। এজন্য বিদেশিরা শাসন করেছে এদেশকে। একমাত্র বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে মুক্তিযুদ্ধের সময় ঐক্যবদ্ধ হয়। কিন্তু পরবর্তীতে দলীয় সংকীর্ণতা থেকে খলনায়ককে নায়ক করার চেষ্টা হয়েছে মহানায়কে বাদ দিয়ে। কথাবার্তায় যারা বঙ্গবন্ধুকে ছোট করতে চেয়েছে তারাই আজ নিজেরাই ছোট হয়েছে। বাংলাদেশই বিচিত্র দেশ যেখানে স্বাধীনতার স্থপতিকে নিয়ে বির্তক সৃষ্টি করা হয়েছে। অনুষ্ঠানে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের হাতে সম্মননা তুলে দেন তিনি। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন- আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও সংসদ সদস্য আবু সাঈদ আল মাহমুদ। প্রধান আলোচক ছিলেন ইতিহাসবিদ অধ্যাপক সৈয়দ আনোয়ার হোসেন।