চাঁপাইনবাবগঞ্জ-সোনামসজিদ স্থলবন্দর রেললাইন সম্প্রসারণ : স্থলবন্দর পরিদর্শন করলেন রেলওয়ে মহাপরিচালক

151

dsc00882প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রতিশ্রুত চাঁপাইনবাবগঞ্জ-সোনামসজিদ পর্য়ন্ত রেললাইন সম্প্রসারণ এলাকা পরিদর্শন করেছেন বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালক ইঞ্জিনিয়ার আমদাজ হোসেন। এ ছাড়া তিনি চাঁপাইনবাবগঞ্জ রেলস্টেশন ও নির্মাণাধিন আমনুরা বাইপাশ রেললাইনও পরিদর্শন করেন। গতকাল শুক্রবার সকালে তিনি সরকারি কর্মসূচির অংশ হিসেবে পরিদর্শনে আসেন। এ উপলক্ষে সকাল সাড়ে ১১ টায় সোনামসজিদ স্থলবন্দর সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ি নেতৃবৃন্দ, পরিবহন নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন পেশার প্রতিনিধিদের নিয়ে মতবিনিময় করেন। সোনামসজিদ স্থলবন্দর সিএন্ডএফএজেন্ট এসোসিয়েশনের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল ওদুদ দাবি তুলে ধরে বলেন-ঢাকার সাথে একটি সাটল ট্রেনের মাধ্যমে অনেক কষ্টে রাজশাহীতি গিয়ে আমাদের আন্ত:নগর ট্রেন ধরতে হচ্ছে। একদিকে সময় অন্য দিকে ব্যয় টাকা ২টোয় বেশি লাগছে। তাই আমনুরা বাইপাশ রেললাইন নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হলেই সরাসরি আন্ত:নগর ট্রেন চালু করতে হবে। তিনি বলেন-প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রতিশ্রুত চাঁপাইনবাবগঞ্জ-সোনামসজিদ রেললাইন সম্প্রসারণ কাজ দ্রুত শুরু করতে হবে। চাঁপাইনবাবগঞ্জ রেলস্টেশনে আরও প্লাটফরম, রেললাইন এবং গাড়ি পরিস্কার পরিচ্ছন্ন করার জন্য ওযাশপিট নির্মাণ করতে হবে।
চাঁপাইনবাবগঞ্জের অর্থকরি ফল আম, সেই আম সড়কপথে পরিবহণে নানাধরণের ঝামেলায় পড়তে হয়, অনেক সময় রাস্তায় আমম পচে নষ্ট হয়ে যায়, তাই রেলের মাধ্যমে আম পরিবহনের ঘোষণা দেওয়ার কথা বলেন ঢাকাস্থ চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা সমিতির সাবেক সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার মাহতাব উদ্দিন।
এ ছাড়াও চাঁপাইনবাবগঞ্জ চেম্বারের সভাপতি আব্দুল ওয়াহেদ, আমদানীকারক গ্রুপে সভাপতিত কবিরুর রহমান, জেলা ট্রাক মালিক গ্রুপের সভাপতি আমিনুল ইসলাম সেন্টু, সিএন্ডএফ এজেন্ট এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেনও বিবিন্ন দাবি দাওয়া তুলে ধরেন।
শুক্রবার বিকেলে চাঁপাইনবাবগঞ্জ রেলস্টেশনে রেলওয়ে আয়োজিত মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়। ওই সভা থেকেও বক্তারা অনুরূপ দাবি তুলে ধরেন।
শেষে রেলওয়ের মহাপরিচালক ইঞ্জিনিয়ার আমজাদ হোসেন চাঁপইনবাবগঞ্জ-সোনামসজিদ স্থলবন্দর রেললাইন সম্প্রসারণ এলাকার তথ্য উপাত্য সংগ্রহ করে আগামী একমাসের মধ্যে প্রকল্প প্রস্তাবনা তার নিকট জমা দেওয়ার জন্য রেল বিভাগের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেন। এ সময় তিনি বলেন-এটি প্রধানমন্ত্রী প্রতিশ্রুত কাজ, এ কাজ বাস্তবায়ন করা আমাদের দায়িত্ব। আমজাদ হোসেন আরও বলেন
আপনাদের সহযোগিতায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে সরাসরি ঢাকার সাথে আন্ত:নগর ট্রেন অচিরেই চালু করা হবে। আগামী জুন মাসে আমনুরা বাইপাশ রেললাইন নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হবে। সে ব্যবস্থা ইতোমথ্যে গ্রহণ করা হয়েছে। তিনি বলেন- চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে ফিরে গিয়ে ভারতীয় হাই কমিশনারের সাথে সাক্ষাত করে মালদা থেকে সোনামসজিদের বিপরীতে অবস্থিত মাহদীপুর পর্যন্ত রেল লাইন স্থাপনের জন্য ভারতীয় কর্তপক্ষকে অনরোধ জানানো হবে। সরাসরি মালদার সাথে টেন যোগাযোগ স্থানপন করা হবে এবং নেপাল, ভুটান ও আসামের সাথে সংযোগ স্থাপন করা সম্ভব হবে। এটি হলে আন্ত:দেশীয় বাণিজ্যে আমুল পরিবর্তন ঘটবে। তিনি বলেন-রেল মন্ত্রীও ভারত সফরে যাচ্ছেন, তিনিও ভারতীয় রেলমন্ত্রীর সাথে বিষয়টি নিয়ে কথা বলবেন।
রেল বিভাগের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অপারেশন মো. হাবিবুর রহমান, অতিরিক্ত মহাপরিচালক অবকাঠামো রফিকুল ইসলাম, অতিরিক্ত মহাপরিচালক রোলিং স্টোক শামসুজ্জামান, রাজশাহী রেলের পশ্চিম জোনের জেনারেল ম্যানেজার খাইরুল আলম প্রমুখ।
পরে তিনি মহাপরিচালকসহ প্রতিনিধি দল আমনুরা বাইপাশ প্রকল্পের কার্যক্রম পরিদর্শন করেন।
উলে¬খ্য, ২০১৫ সালে ১৬ মে. চাঁপাইনবাবগঞ্জ সফরকালে নবাবগঞ্জ সরকারি কলেজ মাঠে অনুষ্ঠিত জনসভায় প্রধানমন্ত্রী এই রেললাইন সম্প্রসারণ এবং আমনুরা বাইপাশ রেললাইন নির্মাণের ঘোষণা দেন। প্রায় সোয়া ২১ কোটি টাকা ব্যয়ে আমনুরা বাইপাশ রেললাইন নির্মাণ কাজ শুরু করা হয়, যা আগামী জুন মাসে শেষ হওয়ার কথা রয়েছে।