মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষার্থীদের বিদায়

281

dsc00723-customচাঁপাইনবাবগঞ্জ শহরের মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের বিদায় ও দোয়া অনুষ্ঠান গতকাল বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিকেলে বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার আব্দুল কাদের। বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি অ্যাডভোকেট আনোয়ার হোসেন ডলারের সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার শামীম আহমেদ খান। অভিভাবকদের মধ্যে বক্তব্য দেন, মনিম উদ দৌলা চৌধুরী এবং শিক্ষার্থীদের মধ্যে আবরার জাহান মাহিন ও মেসতাহুল জান্নাত মৌনি। স্বাগত বক্তব্য দেন, প্রধান শিক্ষক মারুফুল হক। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার তাশেম উদ্দিন, অভিভাবক বাবর আলী, মজিবুর রহমান, এস আই রাশিদুল।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার আব্দুল কাদের বলেন-কারিকুলাম অনুসরণ করা গেলে প্রাইভেট, কোচিং কিংবা বাড়িতেও শিক্ষার্থীদের লেখাপড়া করার দরকার হয় না। কিন্তু শিক্ষার্থীর তুলনায় শিক্ষক স্বল্পতার কারণে সেটা পুরোপরি অনুসরণ করা সম্ভব হচ্ছে না। তবে শিক্ষক স্বল্পতা পুরণ করার চেষ্টা করছে সরকার। তিনি কারিকুলাম অনুসরণ করে রুটিন মাফিক ক্লাস নেওয়ার জন্য শিক্ষকদের প্রতি আহবান জানান।
মনিম উদ দৌলা চৌধুরী বলেন-মায়ের থেকে আর কেউ ভালো শিক্ষক নেই। মায়েরা যাদি বাড়িতে ভারতীয় টিভি চ্যানেল দেখা বন্ধ করে ছেলেমেয়েদের পড়ার কাজে মন দেন তাহলে তারা পরীক্ষায় ভালো ফলাফল করবে। তিনি বলেন-বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদেরকে শিক্ষকরা যেমন সোহাগ করবেন তেমনি শাসনও করবেন। তাহলে শিক্ষার্থীরা ভালো করতে বাধ্য।
অনুষ্ঠানে জানানো হয়, এবার মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ১৫৩ জন শিক্ষার্থী প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবে। এর মধ্যে মেয়ে শিক্ষার্থী রয়েছে ২১ জন। গতবার ৫ জন মেয়ে পরীক্ষার্থীসহ মোট পরীক্ষার্থী ছিল ১৩৪ জন।
আলোচনা শেষে পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীদেরকে ১টি করে জ্যামিতি বক্স, ২টি করে কলমসহ বিভন্ন উপকরণ দেওয়া হয়। পরে তাদের মঙ্গল কামনায় দোয়া করা হয়।
অন্যদিকে বাবুডাইং আদিবাসী বিদ্যালয়ের প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনি পরীক্ষার্থীদের বিদায় সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
জাতীয় সংগীতের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের শুরু করা হয়। কার্তিক কোল টুডুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কানাই চন্দ্র দাস। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন গ্রামের বয়ঃজ্যেষ্ঠ ব্যক্তি দূর্গা কোল মার্ডি, মোড়ল সুরেন কোল টুডু, বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক সুদর্শন পাল, সোনিয়া খাতুন, চাঁপাইনবাবগঞ্জে প্রথম আলো বন্ধুসভার সদস্য নয়ন আহমেদ প্রমূখ।
শিক্ষার্থীদের মধ্যে অনুভূতি ব্যক্ত করে, সপ্তম শ্রেণির প্রশান্ত টুডু, ষষ্ঠ শ্রেণির জোনাকি কোল সাইচুরি, সিমতি কোল টুডু, পঞ্চম শ্রেণির কোল ফুরকনি মার্ডি, আলমগীর ইসলাম, নাহিদা খাতুন, চতুর্থ শ্রেণির সায়েমা খাতুন, তৃতীয় শ্রেণির শুভ কোল মুরমু, লিপি খাতুন, দ্বিতীয় শ্রেণির তাজরীন খাতুন প্রমূখ। অভিনন্দন পাঠ করে চতুর্থ শ্রেণির শিক্ষার্থী সাদিয়া খাতুন। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন জ্যেষ্ঠ সহকারি শিক্ষক আলী উজ্জামান নূর ও সহকারি শিক্ষক নির্মল কোল সরেন।
অনুষ্ঠানে বিদায়ী শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা উপকরণ সামগ্রী বিতরণ করা হয়। পরে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। আদিবাসীদের ঐতিহ্যবাহী নাচ-গান পরিবেশন করে শিপন্ত কোল হাঁসদা, সিমন কোল হাঁসদা, শুভ কোল মুরমু, জোহান্ত কোর সাইচুরি, রিমন কোল সাইচুরি ও সিমন কোল সাইচুরি। অন্যদিকে মেয়েদের দলে নাচ ও গান  পরিবেশন করে জোনাকি কোল সাইচুরি, অনন্তি কোল টুডু, রূপামনি কোল মার্ডি, তারামুনি কোল মুরমু, সিমতি কোল টুডু ও ললিতা কোল টুডু।