প্রয়াসের কৃষি ও প্রাণিসম্পদ ইউনিটের আওতায় উপজেলা পর্যায়ে সমন্বয় ও পরিকল্পনা সভা অনুষ্ঠিত

04চাঁপাইনবাবগঞ্জের উন্নয়ন সংস্থা প্রয়াস মানবিক উন্নয়ন সোসাইটির কৃষি ও প্রাণিসম্পদ ইউনিটের আওতায় উপজেলা পর্যায়ে সমন্বয় ও পরিকল্পনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার সকালে গোমস্তাপুর উপজেলার চৌডালায় অবস্থিত প্রয়াসের ইউনিট অফিসে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়। পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউ-েশনের আর্থিক সহায়তায় অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ছিলেন, চৌডালা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাওলানা মো. শাহ আলম,  উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা কৃষিবিদ মো. কাওসার আলী, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. মাসুদ হোসেন, উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. আনোয়ার আলী, প্রয়াসের কৃষি ও প্রাণিসম্পদ ইউনিটের ফোকাল পার্সন ফারুক আহমেদ, আঞ্চলিক ব্যবস্থাপক মো. কামরুল হাসান শামীম, ইউনিট ব্যবস্থাপক মো. তরিকুল ইসলাম, কৃষিবিদ আতাউর রহমান, মৎস্য কর্মকর্তা কৃষিবিদ মো. লাহু মিয়া, প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. মো. শাহরিয়ার কামাল, প্রোগ্রাম অফিসার টেকনিক্যাল মো. হাবিবুর রহমানসহ আন্যান্যরা। সভায় এলাকার কৃষক, মৎস্যচাষী এবং প্রাণিসম্পদ পালনের সফল খামারীগণ অংশগ্রহণ করেন। সভায় ২০১৫-১৬ অর্থবছরে যে সমস্ত কার্যক্রম বাস্তবায়ন করা হয়েছে এবং ২০১৬-১৭ অর্থ বছরে প্রয়াসের কৃষি ও প্রাণিসম্পদ ইউনিটের আওতায় যে সকল কার্যক্রম বাস্তবায়ন করা হবে সেই বিষয়গুলো সভায় আলোচনা করা হয়। সভায় উপস্থিত অতিথিগণ এ বিষয়ে বিভিন্ন দিক নির্দেশনা ও পরামর্শ প্রদান করেন। এসময় কৃষিবিদ কাওসার আলী বলেন, মাচা পদ্ধতিতে ছাগল পালন করার জন্য উপস্থিত সকলকে উৎসাহিত করেন। এছাড়া তিনি বলেন, গরু মোটাতাজাকরণ এর পরিবর্তে গরু হৃষ্টপুষ্টকরণ শব্দটি ব্যবহারের জন্য পরামর্শ দেন। গবাদি প্রাণিকে টিকা ও কৃমিনাশক প্রদানের প্রতি গুরুত্ব আরোপ করেন। কমিউনিটির খামারীদের প্রাণিসম্পদ অফিসে যোগাযোগ করলে প্রয়োজনীয় সহযোগিতার আশ্বাস দেন এবং প্রয়াসের কার্যক্রমের ভূয়সী প্রশংসা করেন।
কৃষিবিদ মাসুদ হোসেন বলেন, বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে আম চাষ করার জন্য চাষীদের উৎসাহিত করেন এবং কৃষিজ ফসলে রাসায়নিক ও কীটনাশক ব্যবহারের পরিবর্তে জৈব সার ব্যবহারের বিষয়ে অধিক গুরুত্ব আরোপ করেন। এছাড়া কৃষি অফিসের সাথে সমন্বয়ের ভিত্তিতে কার্যক্রম বাস্তবায়ন করার বিষয়ে পরামর্শ প্রদান করেন।
কৃষিবিদ আনোয়ার আলী বলেন, মৎস্য চাষের ক্ষেত্রে নতুন নতুন প্রযুক্তি অনুসরণ করে অর্থনৈতিকভাবে লাভবান হওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় কারিগরি সহযোগিতা প্রদান করা হবে। তিনি বিশেষভাবে পাবদা, গুলশা, টেংরা ইত্যাদি মাছের মিশ্র চাষ এবং চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুরে কুচিয়া চাষ এবং খাঁচায় মাছ চাষের জন্য আরও অধিক গুরুত্ব আরোপ করেন। সভাপতির বক্তব্যে মাওলানা মো. শাহ আলম বলেন, সরকার অনেক কৃষি প্রযুক্তি কৃষকদের মাঝে ছড়িয়ে দিতে চায়। সেই প্রযুক্তি গুলো ছড়িয়ে দেবার জন্য আপনারা কাজ করেন। তিনি ছাগল পালনের পাশাপাশি ভেড়া পালনের প্রতি  বিশেষ গুরুত্ব আরোপ করেন। তিনি প্রয়াসের পাশে থেকে সামনে পথ চলার সহযাত্রী হিসেবে থাকার আগ্রহ প্রকাশ করেন। আজকের আলোচনায় যে বিষয়গুলো উঠে আসল সেগুলো প্রয়াসের আগামী পরিকল্পনায় রাখার জন্য অনুরোধ করেন।