দেশে ফিরেই গান নিয়ে ব্যস্ত দিঠি

03-

ব্যাংককে লম্বা সফর শেষে চলতি মাসের প্রথম দিকেই দেশে ফিরেছেন সুকণ্ঠী সংগীতশিল্পী দিঠি চৌধুরী। দেশে ফিরেই বেশ ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন গান নিয়ে। স্টেজ শো করার পাশাপাশি টিভি লাইভেও অংশ নিচ্ছেন। দীর্ঘ বিরতি নিয়ে মাছরাঙা টেলিভিশনে আবারও শুরু করেছেন লাইভ সংগীতানুষ্ঠান উপস্থাপনা। সব মিলিয়ে এখন গান ও উপস্থাপনা নিয়ে সরব দিঠি। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ব্যাংকক গিয়েছিলাম বেড়াতে। পরিবারসহ ঘুরে বেড়িয়েছি। উপভোগ করেছি সফরটা। আর অবসর কাটানোর ফলে ক্লান্তিভাবটাও দূর হয়েছে। এখন নতুন করে কাজে মনোযোগ দিতে পারছি। স্টেজ শোগুলো করছি এখন। তবে বেছে বেছে করছি কাজগুলো। আর মাছরাঙায় দুপুরের সরাসরি গানের অনুষ্ঠানটিও উপস্থাপনা করছি। ব্যস্ত থাকলেও খুব ভালোই কেটে যাচ্ছে সময়। এদিকে চলতি বছরই দিঠি প্রকাশ করেছেন নিজের একক অ্যালবাম ‘পোড়া চোখ’। জি-সিরিজের ব্যানারে প্রকাশিত এ অ্যালবামটির গানের কথা লিখেছেন দিঠির বাবা দেশবরেণ্য গীতিকবি গাজী মাজহারুল আনোয়ারের পাশাপাশি কবির বকুল, সোমেশ্বর অলি প্রমুখ। গানগুলোর সুর করেছেন আলাউদ্দিন আলী, শেখ সাদী খান, আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল, শওকত আলী ইমন, এস আই টুটুল ও শফিক তুহিন। এরই মধ্যে এ অ্যালবামটি শ্রোতামহলে প্রশংসিত হয়েছে। নতুন অ্যালবামের পরিকল্পনা আছে কিনা জানতে চাইলে দিঠি বলেন, পরিকল্পনা তো আছে, তবে এখনই নয়। কারণ, আমি ‘পোড়া চোখ’ অ্যালবামটিকে আরো সময় দিতে চাই। অ্যালবাম থেকে একটি মিউজিক ভিডিও প্রকাশ করেছি। আরো কয়েকটি মিউজিক ভিডিও করার ইচ্ছা রয়েছে। সামনে শ্রোতা-দর্শক এ অ্যালবামের গানের ভিডিও পাবেন। আসলে এটি আমার স্বপ্নের অ্যালবাম। কারণ, অনেক বছর পর অ্যালবামটি করেছি। এখানে দেশবরেণ্য ও গুণী গীতিকার-সুরকাররা কাজ করেছেন। অডিও গানগুলোর সাড়া বেশ ভালো পাচ্ছি। অডিও অঙ্গনের অবস্থা এখন কেমন মনে হচ্ছে আপনার কাছে? দিঠি বলেন, আগের মতো গতি তো নেই। তবে মানুষ এখন ডিজিটালি গান শুনছেন। সিডি কিনে গান খুব কম মানুষ শুনছেন। আসলে সিডির দোকানই তো একের পর এক বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। আমি যখন গান শুরু করেছিলাম তখন রমরমা অবস্থা ছিল ইন্ডাস্ট্রির। কিন্তু ধীরে ধীরে অবস্থা খারাপ হতে থাকে। তবে এখন আবার অবস্থার উন্নতি হচ্ছে। বিভিন্ন অডিও কোম্পানি নতুন নতুন অ্যালবামে বিনিয়োগ করছে। এটা একটা আশার বিষয়। আমিও আশাবাদীদের দলে। সামনে হয়তো আরো ভালো হবে ইন্ডাস্ট্রির অবস্থা। এখন যারা গান করছেন তারা কেমন করছেন বলে মনে করেন? দিঠি বলেন, অনেক ভালো করছেন। মেধাবী শিল্পী, সুরকার এসেছেন অনেক। সবাই চেষ্টা করছেন ভালো কাজ করার। এই চেষ্টাটা প্রশংসাযোগ্য। আমার কাছে এ সময়ের অনেকের গানই ভালো লাগে। গানের পাশাপাশি উপস্থাপনাও করছেন। কেমন লাগছে? দিঠি বলেন, উপস্থাপনা একেবারেই শখের বশে করা। আমি উপভোগ করি। কারণ, আমি কেবল মিউজিক্যাল অনুষ্ঠানই উপস্থাপনা করি। যেহেতু আমি গানের মানুষ তাই এ ধরনের অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করাটা আমার জন্য সহজ। এর মাধ্যমে সিনিয়র ও চলতি প্রজন্মের শিল্পীদের সঙ্গে যোগাযোগটাও রক্ষা হয়। তবে গানকে যেন উপস্থাপনা ছাড়িয়ে না যায় সেদিকে সব সময় খেয়াল রাখি। এবার অন্য প্রসঙ্গে আসি। গানের জগতের অনেকেই অভিনয় করছেন। অভিনয়ের প্রস্তাব কি পেয়েছেন? দিঠি হেসে বলেন, অভিনয়ের প্রস্তাব বহুবার পেয়েছি। এখনও পাই। ঢালিউডের শীর্ষ নায়কের সঙ্গে অভিনয় করার প্রস্তাব ছিল। কিন্তু আমি আসলে গান নিয়েই থাকতে চাই। তাই সেসব প্রস্তাব সম্মানের সঙ্গে ফিরিয়ে দিয়েছি।