বৃষ্টির অভাবে সাপাহারে আমন চাষাবাদ ব্যাহত

Sapahar, Pic 20,8,16 (Amon dhan)

বৃষ্টির অভাবে নওগাঁর সাপাহারে আমন চাষাবাদ মারাতœকভাবে ব্যাহত হওয়ার আশঙ্কা করছেন চাষীরা। তারারিতীমত শঙ্কিত হয়ে পড়েছে।

বর্ষার পর হঠাৎ করে দীর্ঘ দিন ধরে বৃষ্টিপাত না থাকায় ঠাঁঠাঁ বরেন্দ্র অঞ্চলের সাপাহারে আমন ধানের ক্ষেতগুলি শুকিয়ে মাটিতে ফাটলের সৃষ্টি হয়েছে, কোথাও কোথাও ধান গাছ পানির অভাবে লালচে বর্ণ ধারণ করেছে। আর দু,এক সপ্তাহ এলাকায় বৃষ্টি না হলে অধিকাংশ মাঠের ধান মাঠেই শুকিয়ে মরে যাবে বলে এলাকার কৃষকগণ জানিয়েছেন। ইতোমধ্যে আমন চাষাবাদের এই সংকট মহুর্তে উপজেলার কৃষি বিভাগ ও বরেন্দ্র উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের লোকবল সম্পুরক সেচের মাধ্যমে মাঠের মধ্যে অবস্থিত গভির নলকূপগুলি চালু করে কৃষকদের সেচ সহযোগিতা করে চলেছেন। অন্য দিকে বৃষ্টির পানি নির্ভর মাঠের আমন ক্ষেতগুলি একে বারেই শুকিয়ে অসংখ্য ফাটলের সৃষ্টি হয়েছে। অনেকেই যার যার সুবিধানুযায়ী অতিরিক্ত অর্থ খরচ করে আশে পাশের পুকুর ডোবা হতে নিজ নিজ জমিতে সেচ দিয়ে ধান গাছগুলিকে কোন রকমে বাঁচিয়ে রেখেছে। অনেকেই ধান রোপনের পরে বৃষ্টির অভাবে ক্ষেতে এখনও সার প্রয়োগ করতে পারেনি।
এ বিষেয়ে উপজেলা কৃষি বিভাগে যোগা যোগ করা হলে উদ্ভিদ ও প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা মো. আতাউর রহমান সেলিম জানান, তারা সাধ্যানুযায়ী কৃষকদের পাশে থেকে সম্পুরক সেচে তাদের সহযোগিতা করে চলেছেন। তবে বৃষ্টির পানি নির্ভর এলাকাগুলোতে মাঠের অবস্থা খুবই খারাপ আগামী দু,চার দিনের মধ্যে বৃষ্টি না হলে হয়তো ওই সমস্ত মাঠের ধান উৎপাদন মারাতœক ভাবে ব্যহত হবে। উপজেলার কৃষককুল এখন বৃষ্টির জন্য আকাশপানে সৃষ্টিকর্তার অশেষ রহমতের পানে চেয়ে রয়েছেন। আমন চাষাবাদের শুরুতে বর্ষার আকাশে প্রতিনিয়ত মৌসুমী বাতাস প্রবাহিত হলেও এখন সব সময় শুষ্কবাতাস প্রবাহিত হচ্ছে। ধান গাছ বেড়ে ওঠার ঠিক সময় মহুর্তে প্রাকৃতিকভাবে বড় ধরনের এই ধাক্কায় কিছুটা হলেও আমন চাষাবাদে উৎপাদন লক্ষমাত্রা হ্রাস পাবে বলে এলাকার কৃষককুল ও কৃষিবিভাগ জানিয়েছেন।