শ্রীলংকায় ভূমিধসে নিখোঁজদের খোঁজে সেনা মোতায়েন

109

gourbangla logoশ্রীলংকার সৈন্যরা গতকাল বৃহস্পতিবার ধ্বংসস্তূপ খুঁড়ে ভূমিধসে নিখোঁজদের সন্ধানে তল্লাশী চালাচ্ছে। ভূমিধসে দুটি গ্রামের মানুষ চাপা পড়েছে। এই ঘটনায় অন্তত ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। পুলিশ জানায়, এই ঘটনায় যারা চাপা পড়েছেন তাদের বেঁচে থাকার সম্ভাবনা ক্ষীণ। দেশটির পার্বত্য এলাকায় মঙ্গলবার রাতে ভয়াবহ এই ভূমিধসের ঘটনা ঘটে। কয়েকদিনের ভারী বৃষ্টিপাতের পর এই ভূমিধস হয়। বৃষ্টিপাতের কারণে দ্বীপটির বেশ কয়েকটি স্থানে বন্যা দেখা দেয়। নাম প্রকাশ না করার অনুরোধ জানিয়ে একটি গ্রাম থেকে এক জ্যেষ্ঠ পুলিশ কর্মকর্তা বার্তা সংস্থা এএফপি’কে বলেন, ‘গতকাল এখান থেকে আমরা ১৪টি মৃতদেহ উদ্ধার করেছি। এরপর আমরা আর কোন মৃতদেহ উদ্ধার করিনি।’
চা উৎপাদনকারী এলাকা কেগাল্লের দ্বিতীয় একটি গ্রামে আরো ৩ জনের মৃতদেহ পাওয়া গেছে।
কেগাল্লা রাজধানী থেকে প্রায় ১০০ কিলোমিটার উত্তরপূর্বে অবস্থিত।  খবর বার্তা সংস্থা এএফপি’র। ওই এলাকাটি ভূমিকম্প প্রবণ। প্রাকৃতিক দুর্যোগটির পর সেখানকার অনেক বাসিন্দা ইতোমধ্যেই তাদের বাড়িঘর ছেড়ে চলে গেছে। তবে পুলিশ জানিয়েছে, গ্রামবাসী ১৩৪ জনের নিখোঁজ হওয়ার খবর দিয়েছে।  প্রেসিডেন্ট মাইথ্রিপালা সিরিসেনা বুধবার ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শণের পর টুইটারে বলেন, ‘এই দুর্যোগে ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।’ দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ সতর্ক করে দিয়ে বলেছে, আবারো ভূমিধস হতে পারে। ওই এলাকাগুলোর বাসিন্দাদের অন্যত্র সরিয়ে নেয়া হয়েছে। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের মুখপাত্র প্রদীপ কোদিপ্পিলি বলেন, ‘আমরা আরো ভূমিধসের সতর্কতা জারি করেছি এবং ঝুঁকিপূর্ণ এলাকাগুলোর বাসিন্দাদের সজাগ থাকতে বলেছি।’ সপ্তাহান্তে এই দ্বীপরাষ্ট্রে আবহাওয়া সংশ্লিষ্ট দুর্যোগে অন্তত ৩৮ জন প্রাণ হারিয়েছে।