কেনীয় বাহিনীর হাতে আল শাবাবের ৩৪ জঙ্গি নিহত

52

07সোমালিয়ায় দুটি পৃথক ঘটনায় আল শাবাবের ৩৪ জঙ্গিকে হত্যা করেছে দেশটিতে মোতায়েন কেনীয় বাহিনী। গত শনিবার ও রোববারের এ দুটি ঘটনায় দুই কেনীয় সেনাও নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন দেশটির এক সামরিক মুখপাত্র।
শনিবার সোমালিয়ার দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর আফমাদৌ-এ কেনিয়ার ডিফেন্স ফোর্স (কেডিএফ) আল শাবাবের ২১ বিদ্রোহী-জঙ্গিকে হত্যা করে। এ সময় আল শাবাবের চোরাগোপ্তা হামলায় কেনীয় বাহিনীর দুই সেনাও নিহত হন। এক বিবৃতিতে কেডিএফ-র মুখপাত্র ডেভিড ওবোনিও বলেন, “দুঃখজনকভাবে কেডিএফের দুই সেনা নিহত ও পাঁচজন আহত হয়েছেন। আহতদের সরিয়ে নিয়ে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। হাতে তৈরি একটি বোমার বিস্ফোরণে কেনীয় সেনাবাহিনীর এক গাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে জানান তিনি। তিনি আরও জানান, রোববার কেনীয় সেনারা আফমাদৌ এর উত্তরের রাস কামবোনিতে আল শাবাবের আরো ১৩ যোদ্ধাকে হত্যা করেছে। ওবোনিও বলেন, আল শাবাবের জঙ্গিরা একটি হামলার পরিকল্পনা করছে খবর পেয়ে তাদের পিছু নেয় কেডিএফের সেনারা। ঘটনার এক পর্যায়ে আল শাবাবের মাঝারি পর্যায়ের একজন কমান্ডারকে আটক ও ১৩ জঙ্গিকে হত্যা করে সেনারা। তিনি জানান, দুটি ঘটনায় কেডিএফ সেনারা ২৭টি একে-৪৭ রাইফেল, পাঁচটি রকেট চালিত গ্রেনেড, একটি পিস্তল, দুটি পিকেএম মেশিন গান ও গুলি উদ্ধার করেছে। অবশ্য আল শাবাবের সামরিক অভিযানের মুখপাত্র আব্দিয়াসিস আবু মুসাব বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে জানিয়েছেন, শনিবার আফমাদৌ হামলায় তাদের যোদ্ধারা ১২ সেনাকে হত্যা করেছে। দুই দশকের বেশি সময় ধরে কট্টর ইসলামপন্থি গোষ্ঠী আল শাবাবের বিদ্রোহের মোকাবিলা করছে সোমালিয়া সরকার। ২০১১ সাল পর্যন্ত রাজধানী মোগাদিশুসহ সোমলিয়ার বেশিরভাগ অংশ আল শাবাবের দখলে ছিল। কিন্তু ওই বছরই আফ্রিকান ইউনিয়ন (এইউ) ও সোমালিয়ার মিলিত বাহিনী মোগাদিশু থেকে আল শাবাব জঙ্গিদের হটিয়ে দেয়। এইউ বাহিনীর অংশ হয়ে কেনীয় সেনারা প্রতিবেশী দেশটিতে জঙ্গি দমন অভিযানে অংশ নিচ্ছে।