ক্যারিয়ারের সর্বোচ্চ রেটিং পয়েন্ট অর্জন করেছেন আল আমিন

09-এশিয়া কাপের এবারের টুর্নামেন্টে সবচেয়ে বেশি উইকেট নিয়ে ‘কুলেস্ট প্লেয়ার অব দ্য সিরিজ’ হওয়া টাইগারদের পেসার আল আমিন হোসেন আইসিসির টি-টোয়েন্টি বোলার ক্যাটাগরিতে ক্যারিয়ারের সর্বোচ্চ রেটিং পয়েন্ট অর্জন করেছেন।
১৭ ধাপ এগিয়ে আল আমিন বোলারদের ক্যাটাগরিতে উঠে এসেছেন ১৫ নম্বরে। ক্যারিয়ার সেরা ৬১২ রেটিং পয়েন্ট পাওয়া টাইগার এই পেসার এশিয়া কাপের আসরেও প্রতিপক্ষের জন্য ছিলেন রীতিমতো ভয়ঙ্কর। টুর্নামেন্টে সবচেয়ে বেশি ১১ উইকেট তুলে নেন আল আমিন।
শীর্ষ ১৫’তে উঠে আসতে আল আমিন পেছনে ফেলেছেন অস্ট্রেলিয়ার মিচেল স্টার্ক, শ্রীলঙ্কান লাসিথ মালিঙ্গা, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজদের মতো তারকাদের। গত বছর বিশ্বকাপে নিজের ভুলের কারণে আল আমিনের নামে শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগ উঠে। ফলে, বিশ্বকাপ না খেলেই তাকে দেশে ফিরে আসতে হয়। দীর্ঘ সময় দলের বাইরে থেকে গত নভেম্বরে আবারো জাতীয় দলে ফেরেন তিনি। টাইগারদের হয়ে জিম্বাবুয়ে সিরিজে মাঠে নেমেই প্রমাণ করেন নিজেকে।
তবে, তার আগেই ছন্দে ফিরে বিপিএলের আসরে নিজেকে আরেববার তুলে ধরেন আল আমিন। বিপিএলের সেই আসরে বরিশাল বুলসের হয়ে দুরন্ত বোলিং করা আল আমিন দুর্দান্ত একটি হ্যাটট্রিকও করেন।
জিম্বাবুয়ে সিরিজের দুটি ম্যাচে খুলনায় মাঠে নামেন তিনি। ২৪ রানে দুটি আর ২১ রানে একটি উইকেট নিয়ে এশিয়া কাপের আসরে জাতীয় দলের অন্যতম ভরসার নাম হয়ে উঠেন আল আমিন।
ভারতের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচেই তুলে নেন টাইগারদের হয়ে সর্বোচ্চ তিনটি উইকেট। পরের ম্যাচে আরব আমিরাতের বিপক্ষে ৮ রান খরচায় তুলে নেন একটি উইকেট। আর তৃতীয় ম্যাচে লঙ্কানদের হারাতে আবারো তুলে নেন দলের সর্বোচ্চ ৩ উইকেট। পাকিস্তানের বিপক্ষে মহাগুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে আবারো স্বরূপে আল আমিন। পেয়ে যান আবারও সর্বোচ্চ ৩ উইকেট। ফাইনালের মঞ্চে ভারতের বিপক্ষে নিয়েছেন আরও একটি উইকেট।
এশিয়া কাপের দুর্দান্ত পারফর্মে আইসিসির টি-টোয়েন্টি বোলারদের তালিকায় ১৫তম স্থানে থাকা আল আমিন এখন পর্যন্ত ১৮টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলে তুলে নিয়েছেন ৩১টি উইকেট। ওয়ানডেতে ১৪ ম্যাচ খেলে তিনি পেয়েছেন ২১টি উইকেট।

SHARE