সোনামসজিদ স্থলবন্দরে সকল প্রকার পণ্য আমদানি-রপ্তানি বন্ধ

90

sibgonj gourbangla.com গৌড় বাংলা

সোনামসজিদ স্থলবন্দর দিয়ে গতকাল রবিবার সকাল থেকে পণ্য আমদানি বন্ধ রয়েছে। ভারতীয় মহদীপুর স্থলবন্দর রপ্তানি-কারকেরা রপ্তানি বন্ধ রাখায় কোন প্রকার পণ্য আমদানি-রপ্তানি হয়নি।
বন্দর সুত্র জানিয়েছে, শনিবার সোনমসজিদ স্থলবন্দর আমদানি-রপ্তানিকারক গ্রুপের পাথর বিষয়ক উপ-কমিটি এক জরুরী সভায় সিদ্ধান্ত নিয়ে পাথর আমদানি বন্ধ ঘোষণা করায় ভারতীয় রপ্তানি কারকরা সকল প্রকার পণ্য রপ্তানি বন্ধ করে দিয়েছে। বাংলাদেশী আমদানি-কারকদের পাথর সক্রান্ত নির্দেশনা জানার পর ভারতীয় মহদিপুর স্থলবন্দর এক্সপোর্ট এ্যাসোসিয়েশন জরুরী সভা করে রবিবার থেকে সকল প্রকার পণ্য রপ্তানি বন্ধ করার ঘোষণা করে। ফলে সোনামসজিদ স্থলবন্দর দিয়ে সকল প্রকার পণ্য আমদানি-রপ্তানি বন্ধ রয়েছে।
এ ব্যাপারে সোনামসজিদ স্থলবন্দর আমদানি রপ্তানিকারক গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক আবু তালেবের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, ভারতীয় রপ্তানি-কারকেরা গত ২১ ফেব্রুয়ারির যৌথ সভার সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন না করে নি¤œমানের কুচি পাথর সরবরাহ করায় রবিবার থেকে সব ধরণের পাথর আমদানি বন্ধ করেছে আমদানি-কারকেরা।
অন্যদিকে বন্দর সুত্র জানায়, চিপস পাথর আমদানির ক্ষেত্রে জটিলতা নিরসন না হাওয়া পর্যন্ত ভারতীয় মহদিপুর স্থলবন্দর দিয়ে সকল প্রকার পণ্য আমদানি- রপ্তানি বন্ধ থাকবে বলে ভারতীয় মহদিপুর এক্সপোর্ট এ্যাসোসিয়েশন ঘোষণা দিয়েছে।
এ ব্যাপারে সোনামসজিদ স্থলবন্দর কাস্টমস এর সহকারী কমিশনার সাইদ আমেদ রুবেল গৌড় বাংলাকে জানান, ভারতীয় রপ্তানীকারদের কাছে বাংলাদেশী আমদানি-রপ্তানিকারদে দাবি ছিল উন্নত মানের পাথর সরবরাহ দিতে হবে। তা নাহলে দাম কম নিতে হবে কিন্তু তারা তা না মানায় বাংলাদেশী আমদানিকারকরা পাথর আমদানি বন্ধ রেখেছেন। এ কারণে জেদের বশবর্তী হয়ে ভারতীয় রপ্তানিকারকেরা সকল পণ্য রপ্তানি বন্ধ রেখেছে। তবে সন্ধ্যার দিকে কিছু ভুট্রার গাড়ি সোনামসজিদ স্থলবন্দরে ঢুকেছে।