নার্ভাস ফরটি নাইন’ সাকিবেরও প্রিয়!

83

05-Shakib

ব্যাটসম্যানদের সবচেয়ে আনন্দের মুহূর্ত কোনটি? অবশ্যই তিন অঙ্ক ছোঁয়ার মুহূর্তটি। সবচেয়ে হতাশার মুহূর্তটি বলে ফেলা যায়Ñপেতেও পেতেও অল্প কটি রানের জন্য সেঞ্চুরি হাতছাড়া হওয়া। ‘নার্ভাস নাইন্টিজ’ কিংবা ‘নার্ভাস নাইনটি নাইন’ কোনো ব্যাটসম্যানই শুনতে চান না। কিন্তু নার্ভাস ফরটি নাইন?
নার্ভাস নাইনটি নাইন বহুবার উচ্চারিত হলেও নার্ভাস ফরটি নাইন শোনা যায় না। তবে, ৯৯ হোক, কিংবা ৪৯Ñমাইলফলকের আসে পাশে এলেই ব্যাটসম্যানরা ‘নার্ভাস’ হয়ে পড়েন। ক্রিকেটে তাই বহুবার ব্যাটসম্যানদের নব্বইয়ের ঘরে, ৯৯ রানে আউট হতে দেখা গেছে। নব্বইয়ে নড়বড়ে নিয়ে অনেক কথা হলেও পরিসংখ্যান কিন্তু বলছে, ‘৪৯’ সংখ্যাটিও ব্যাটসম্যানদের স্নায়ুচাপে ফেলতে যথেষ্ট ওস্তাদ।
পরিসংখ্যান বরং চমকে দেওয়া এই তথ্য জানাচ্ছে, সেঞ্চুরি নয়, ফিফটির আশপাশে থাকলেই বরং চাপটা বেশি অনুভব করেন ব্যাটসম্যানরা। এখন পর্যন্ত আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে মোট ১১৩ বার ৯৯ রানে আউট হয়েছেন ব্যাটসম্যানরা। আর ৪৯ রানে আউট হয়েছেন ৫০৮ বার! এর মাঝে ওয়ানডেতে ২০১ বার, টি-টোয়েন্টিতে ১৬ বার ও টেস্টে ২৯১ বার!
গত ডারবান টেস্টেই যেমন দুজন ব্যাটসম্যান আউট হলেন ৪৯ রানে। নিক কম্পটন ও এবি ডি ভিলিয়ার্স দুজনই আউট হয়েছিলেন ফিফটি থেকে ঠিক রান দূরে থাকতে। অবাক হওয়ার মতোই ব্যাপার। কারণ একই টেস্টে দুজন ব্যাটসম্যানের ‘নার্ভাস ফরটি নাইনে’ আউট কিন্তু ইতিহাসে খুব বেশি হয়নি। প্রায় ২২ শ টেস্ট ম্যাচ হয়েছে, সেই বিবেচনায় ডারবানের ঘটনাটি এর আগে ঘটেছে মাত্র ১৮ বার।
ইতিহাসের দ্বিতীয় টেস্টেই অবশ্য দুই ব্যাটসম্যান আউট হয়েছিলেন ৪৯ রানে। দুজনই ছিলেন একই দলে। ১৮৭৭ সালে মেলবোর্নের দ্বিতীয় টেস্টে ইংল্যান্ডের অ্যান্ড্রু গ্রিনউড ও অ্যালান হিল আউট হওয়ার জন্য ‘বেছে নিয়েছিলেন’ ৪৯ রানকেই।
পাকিস্তানের উমর আকমল ২০০৯-১০ মৌসুমে সিডনি টেস্টের দুই ইনিংসে ৪৯ রান করে আউট হয়েছিলেন উমর। এই ম্যাচে একই ব্যাটসম্যানের দুবার এই নার্ভাস ফরটি নাইনে আউট হওয়ার ‘কীর্তি’ আর নেই।
উমর তবু সান্ত¡না পেতেই পারেন ৪৯ রানে সবচেয়ে বেশি আউট হওয়াদের তালিকায় নজর দিলে। সেখানে যে সব কিংবদন্তিদের ভিড়! টেস্টে সবচেয়ে বেশি ৪ বার ৪৯ রানে আউট হয়েছেন সুনীল গাভাস্কার, জ্যাক হবস ও মাহেলা জয়াবর্ধনে। ওয়ানডের শীর্ষস্থান অবশ্য একাই দখল করেছেন জ্যাক ক্যালিসÑ৫ বার। বাংলাদেশের সাকিব আল হাসানও কিন্তু নার্ভাস ফোরটি নাইনের খুব প্রিয় এক শিকার। টেস্ট, ওয়ানডে মিলিয়ে তিনবার ৪৯ রানে আউট হয়েছেন সাকিব!