রাস্তায় ঝাড়ু হাতে মায়ানমারের গণতন্ত্রপন্থী নেত্রী

145

4

জঞ্জাল পরিষ্কার করতে ঝাড়ু হাতে রাস্তায় নামলেন মায়ানমারের গণতন্ত্রপন্থী নেত্রী অং সান সু কি। রোববার তাকে ঝাড়ু হাতে রাস্তায় জঞ্জাল পরিস্কার করতে দেখা যায়। গত ৮ নভেম্বরের নির্বাচনে বিপুল ভোটে জয়লাভের পর এবারই প্রথম জনসমক্ষে হাজির হলেন তিনি।সু কি তার দল ন্যাশনাল লীগ ফর ডেমক্রেসির (এনএলডি) নবনির্বাচিত এমপিদের বলেছেন, তারা তাদের নিজ নিজ সংসদীয় এলাকা পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য আক্ষরিক অর্থে সম্পূর্ণ দায়বদ্ধ। তার দল ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্রেসি সংক্ষেপে এনএলডি গত ৮ নভেম্বরের নির্বাচনে প্রায় ৮০ শতাংশ আসনে জয়ী হয়েছে।মায়ানমারে জঞ্জাল একটা বিরাট সমস্যা। দেশটিতে নিয়মিত আবর্জনা সংগ্রহ ও সেগুলো ফেলার যথাযথ স্থানের ঘাটতি রয়েছে। সত্তর বছর বয়সী সু চি তার দলের সদস্য ও স্বেচ্ছাসেবীদের সঙ্গে নিয়ে ইয়াঙ্গুনের উপকণ্ঠে তার সংসদীয় এলাকা কাউমুতে পরিচ্ছন্নতা অভিযানের নেতৃত্ব দেন।

সত্তর বছর বয়সী সু কি তার দলের সদস্য ও স্বেচ্ছাসেবীদের সঙ্গে নিয়ে ইয়াঙ্গুনের উপকণ্ঠে তার সংসদীয় এলাকা কাউমুতে পরিচ্ছন্নতা অভিযানের নেতৃত্ব দেন।তিনি পুরানো প্লাস্টিক ব্যাগ ও অন্যান্য জঞ্জাল তুলে আনতে ময়লার মধ্যে হাত ঢুকিয়ে দেন। এ সময় তার হাতে গ্লোভস পরা ছিল। তিনি এক হাতে একটি সাদা ব্যাগ ধরেছিলেন এবং জঞ্জাল খুঁজছিলেন।তিনি সাংবাদিকদের সঙ্গে কোন কথা বলেননি। শুধু তাদেরকে ছবি না তোলার অনুরোধ জানান। য়াঙ্গুন থেকে নবনির্বাচিত এমপি থেট কিন বলেন, ‘আমরা যে জনগণের সেবা করবো আবর্জনা পরিষ্কারের ঘটনা তার প্রথম উদাহরণ। এটা সব এমপিদের জন্য একটা মৌলিক ও গুরুত্বপূর্ণ শিক্ষা।’ উত্তরাঞ্চলের মেন্দালয় নগরীতেও এনএলডি পার্টি জঞ্জাল সংগ্রহ অভিযান চালায়। এতে সন্ন্যাসী থেকে শুরু করে নগর কর্মকর্তারাও অংশ নেন।মান্দালয় থেকে নির্বাচিত আইনপ্রণেতা জারনি অং বলেন, ‘আমরা মান্দালয় পরিষ্কার করবো। জনগণ আমাদের সাহায্য করছে।’

তবে এই পরিচ্ছন্নতা অভিযানকে দেশ পরিচালনার এক প্রতীকী প্রস্তুতি হিসেবেই দেখছেন পর্যবেক্ষকরা। আগামীতে সরকার গঠনের পর এনএলডি’কে যে দেশে দীর্ঘদিন ধরে বিরাজমান অর্থনৈতিক ও সামাজিক সঙ্কট মোকাবেলা করতে হবে, পরিচ্ছন্ন অভিযানের মাধ্যমে তারই শুভসূচনা করলেন সু চি।