চাঁপাইনবাবগঞ্জে জাতীয় যুব দিবস পালিত ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়

চাঁপাইনবাবগঞ্জে জাতীয় যুব দিবস পালিত ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়“জেগেছে যুব জেগেছে দেশ – লক্ষ্য ২০৪১ এ উন্নত বাংলাদেশ” এ শ্লোাগানে রবিবার চাঁপাইনবাবগঞ্জে জাতীয় যুব দিবস পালিত হয়েছে। সকালে চাঁপাইনবাবগঞ্জ শহরের শিবতলা এলাকায় যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের হলরুমে জেলা প্রশাসন ও যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর যুব সমাবেশের আয়োজন করে।
যুব সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর কবীর। প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, বিদেশে প্রশিক্ষিত জনশক্তির চাহিদা প্রচুর, প্রশিক্ষিত জনশক্তি বিদেশে পাঠানো গেলে আমাদের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ আরো বেশি হবে। তিনি বলেন অনেক সময় পিয়নের চাকুরীতেও এমএ পাস করা অনেকে দরখাস্ত করে, তিনি বলেন নিজে আত্ম প্রত্যয়ী হয়ে কাজ করলে স্বাবলম্বী হওয়ার পাশাপাশি অন্যের কর্মসংস্থানও সৃষ্টি করা সম্ভব। তিনি বলেন ১০ টা গাভি পালন করেও একটি সরকারি চাকুরীজীবীর বেতনের চেয়ে মাসে বেশি আয় করা সম্ভব। তিনি বলেন, আজ যারা যুব তাদের হাত ধরেই ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ একটি উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত হবে, আমরা সেদিন থাকব না কিন্তু তোমরা ঠিকই সেই উন্নত বাংলাদেশে উন্নত জীবন যাপন করবে।
চাঁপাইনবাবগঞ্জ যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক নহির উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত যুব সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, পুলিশ সুপার বশির আহম্মদ পিপিএম, নবাবগঞ্জ সরকারি কলেজের বাংলা বিভাগের প্রধান প্রফেসর ড. মাযহারুল ইসলাম তরু। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে পুলিশ সুপার বলেন, আমাদের দেশে প্রতিবছর কুরবানীর সময় ৭০ লক্ষ পশুর প্রয়োজন হয়, আমাদের দেশে প্রায় ৩০-৪০ লাখ পশু লালন পালন করা হয়, আর বাকি চাহিদা পুরন হয় বাইরের পশু থেকে। তিনি বলেন বাইরে থেকে কেন গরু নিয়ে আসতে হবে, আমাদের দেশের আবহাওয়া কি গরু পালনের উপযোগী নয়, যারা বেকার যুবক আছে, তারা যদি গরুর খামার গড়ে তোলে তাহলে আমাদের আর বাইরে থেকে গরু আনতে হবে না, সেই সাথে আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী হবে আমাদের যুবরা। অন্যদিকে বৈদেশিক মুদ্রারও সাশ্রয় হবে। তিনি সবাইকে আত্মকর্মসংস্থান সৃষ্টিতে পরিশ্রমী হওয়ার আহ্বান জানান।
যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের মাধ্যমে ঋণ নিয়ে স্বাবলম্বী হওয়া মনিরুল ইসলাম তার নিজের সফলতার গল্পও শোনান যুব সমাবেশে। তিনি বলেন, মাত্র ৫০ হাজার টাকা নিয়ে আমি প্রোল্ট্রি মুরগীর ফার্ম গড়ে তুলেছিলাম, সেখান থেকে আমি আমার ছোট ৫ ভাইকে পড়ালেখা শিখিয়েছি। তারা এখন সবাই উচ্চ শিক্ষিত। আর আমার এখন ২ টি খামার আছে, সবমিলিয়ে এখন আমার পরিবারের মুলধনের পরিমান দেড় কোটি টাকা।
সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক জাবেদ ইকবাল, যুব সংগঠক, আকসানা খাতুন ও মুখলেসুর রহমান।
পরে যুব ঋণ গ্রহণকারী ৬ জনের মাঝে তিন লক্ষ ২০ হাজার টাকা , ৩টি যুব সংগঠনকে ৬৫ হাজার টাকার অনুদানের চেক প্রদান করেন অতিথিরা। এছাড়াও বিভিন্ন ট্রেডে প্রশিক্ষণ গ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের সনদপত্র, জাতীয় যুব দিবসের চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের পুরস্কার প্রদান করা হয়।

শিবগঞ্জ প্রতিনিধি: চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে জাতীয় যুব দিবস পালিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে রবিবার সকালে উপজেলা প্রশাসন ও যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের আয়োজনে র‌্যালি ও আলোচনা সভা । র‌্যালি শেষে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে আয়োজিত আলোচনা সভায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার সৈয়দ ইরতিজা আহসানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য গোলাম রাব্বানী। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা আশিকুর রহমান, উপজেলা আওয়ামালীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. আতাউর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক, শামসুর রহমান বাবু, পৌর সভাপতি আতিকুল ইসলাম টুটুল, সাধারণ সম্পাদক কারিবুল হক রাজিনসহ অন্যান্যরা। আলোচনা শেষে ২০ জন প্রশিক্ষণার্থীকে ৭ লাখ ৬০ হাজার টাকার ঋনের চেক প্রদান ও ১শ’ ২০ জনকে সনদ প্রদান করা হয়।
গোমস্তাপুর প্রতিনিধি : চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুর জাতীয় যুব দিবস পালিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে রবিবার সকালে উপজেলা প্রশাসন ও যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের আয়োজনে র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। র‌্যালি শেষে উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মামুনুর রশিদ। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য গোলাম মোস্তফা বিশ্বাস। বক্তব্য রাখেন, উপজেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান নুরুন্নেসা বাবলী,রহনপুর পৌর মেয়র গোলাম রাব্বানী বিশ্বাস, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সাজাহান আনসারী মামলত,উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা কামরুজ্জামান সরদার, উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক রাশেদুল ইসলাম, প্রশিক্ষিত যুবক জয়নুল আবেদিন ।
ভোলাহাট প্রতিনিধি: চাঁপাইনবাবগঞ্জের ভোলাহাটে উপজেলা প্রশাসন ও যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর আয়োজিত জাতীয় জাতীয় যুব দিবস উদযাপন উপলক্ষ্যে বর্নাঢ্য র‌্যালী ও আলোচনা সভা রোববার অনুষ্ঠিত হয়। দিবসটি উপলক্ষ্যে র‌্যালী উপজেলা পরিষদ চত্বর থেকে বের হয়ে প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবুল হায়াত মোঃ রফিকের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় বিশেষ অতিথি ছিলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান আনোয়ারুল ইসলাম। স্বাগত বক্তব্য রাখেন, উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা কামরুজ্জামান সরদার। অন্যানের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, পুলিশ পরিদর্শক ( তদন্ত) মোজাহারুল ইসলাম, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আলহাজ্ব নুরুল হক, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা আলীগ সহসভাপতি আব্দুল খালেক, উপজেলা আলীগ সহ সভাপতি ইয়াসিন আলী শাহ, সাবেক উপজেলা আলীগ সভাপতি ওয়াজেদ আলী, ভোলাহাট প্রেস ক্লাব সভাপতি গোলাম কবির ও প্রশিক্ষিত যুবক জহরুল হকসহ অন্যরা।
নিয়ামতপুর প্রতিনিধিঃ সারা দেশের ন্যায় নওগাঁর নিয়ামতপুরেও জাতীয় যুব দিবস যথাযোগ্য মর্যাদায় পালিত হয়েছে। রবিবার বেলা ১১টায় বর্ণাঢ্য র‌্যালির মধ্য দিয়ে দিবসটির সূচনা করা হয়। র‌্যালি শেষে এক সংক্ষিপ্ত আলোচনার আয়োজন করা হয়। নিয়ামতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) রেজা হাসানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন নিয়ামতপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এনামুল হক। নিয়ামতপুর যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের ক্রেডিট সুপারভাইজার আশরাফুল ইসলামের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আলহাজ্ব লিয়াকত আলী, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মনোয়ারা বেগম, উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা অফিসার সেলিম উদ্দিন।
আলোচনা অনুষ্ঠান শেষে ঋন গ্রহীতাদের মাঝে ঋনের চেক তুলে দেন প্রধান অতিথি উপজেলা চেয়ারম্যান এনামুল হক। এ পর্যন্ত নিয়ামতপুর উপজেলা যুব উন্নয়ন কার্যালয় প্রধান কার্যালয় থেকে প্রাপ্ত তহবিলের পরিমান ১৮ লক্ষ ১৮ হাজার ৮শত টাকা, ক্রমপুঞ্জিত ঋন বিতরনের পরিমান ২ কোটি ২৪ লক্ষ ৩৪ হাজার টাকা, ক্রমপুঞ্জিত আদায়যোগ্য ঋন ১ কোটি ৯৫ লক্ষ ২৫ হাজার ৪শত ৪৫ টাকা, আদায়কৃত ঋন ১ কোটি ৮৬ লক্ষ ০৭ হাজার ৩শত ৩৬ টাকা, খেলাপী ঋন ৮ লক্ষ ৬০ হাজার ৪শত ৮৪ টাকা, কিস্তি খেলাপী ঋন ৫৭ হাজার ৬শত ২৫ টাকা, মাঠে প্রাপ্য ২৯ লক্ষ ৮ হাজার ৫শত ৫৫ টাকা, ক্রমপুঞ্জিত উপকারভোগীর সংখ্যা ৯শত ৪জন, ক্রমপুঞ্জিত আদায়ের হার ৯৬%। চলতি ঋন সংখ্যা ১শত ৮জন, চলমান ঋন সংখ্যা ৫৪ জন, (চলতি আদায় হার ৯৮%।
এ পর্যন্ত ক্রমপুঞ্জিত (রাজস্ব) প্রশিক্ষণার্থীর সংখ্যা ৮ হাজার ৩শত ২৭জন, আত্মকর্মীর সংখ্যা ৩ হাজার ৬শত ৫৫ জন, (কর্মসংস্থান) প্রশিক্ষানার্থীর সংখ্যা ৮শত ৪০জন, আত্মকর্মীর সংখ্যা ২শত ৯৬জন। গতকাল ৫ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা ঋন বিতরণ করা হয়।