৯৮ বছর বয়সে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন

6

একটি মানুষের জীবনে বয়স তার নির্দিষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছাতে কোনো বাধা নয়। প্রবল ইচ্ছাশক্তি থাকলে তিনি তার কাক্সিক্ষত লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারেন। তেমনই একটি বিষয় আবারও প্রমাণ করলেন এক ব্যক্তি। ইতালির জিউসেপ্পো প্যাটার্নো ৯৮ বছর বয়সে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি লাভ করেছেন। দেশটিতে এখন তিনিই সবচেয়ে বয়স্ক শিক্ষার্থী। সম্প্রতি ইতালির ইউনিভার্সিটি অব পালের্মো থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন তিনি। তার বিষয় ছিল ইতিহাস ও দর্শন। দুই বছর আগে একই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে একই সাবজেক্টে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন তিনি। স্নাতক পাশ করার সময়ই ইতালির সবচেয়ে বয়স্ক শিক্ষার্থীর উপাধি পান জিউসেপ্পে।

এবার নিজের শিক্ষাজীবনে নতুন আরেকটি মাইলফলক যুক্ত করলেন শতবর্ষে পা দিতে যাওয়া জিউসেপ্পে। তিনি বলেন, জীবনে কোনো কিছু অর্জনে বয়স কোনো বাধা নয়। প্রবল ইচ্ছে থাকলে অনেক কিছু অর্জন করা সম্ভব। তার এমন অর্জনে পরিবারের সবাই বেজায় খুশি। তারা একে তাদের গর্ব বলে অভিহিত করেছেন। এ নিয়ে পরিবারের পক্ষ থেকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে একটি পোস্ট করা হয়। ঐ পোস্টে বলা হয়, ৯৮ বছর বয়সেও ব্যাচের মধ্যে সর্বাধিক নম্বর পেয়ে স্নাতকোত্তর শেষ করেছেন জিউসেপ্পে।

তার পরিবার জানায়, এই বয়সেও নির্বিঘেœ পড়াশোনা করেছেন জিউসেপ্পে। তিনি ভীষণ পরিশ্রম করতে পারেন এবং তার বিশ্রামের কোনো পরিকল্পনা নেই। স্নাতকোত্তর শেষ করার পর নতুন এক পরিকল্পনা করেছেন জিউসেপ্পে। তিনি তার বিশ্বস্ত টাইপরাইটার ব্যবহার করে একটি উপন্যাস লিখতে চান। ১৯২৩ সালে সিসিলির একটি দরিদ্র পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন জিউসেপ্পে। শৈশব থেকেই পড়াশোনা করতে পছন্দ করতেন তিনি। কিন্তু আর্থিক সামর্থ্য না থাকায় তরুণ বয়সে বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করতে পারেননি তিনি। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় নৌবাহিনীতে যোগ দেন জিউসেপ্পে। তখন তার বয়স ছিল ২০ বছর। এরপর তিনি রেলওয়ে কর্মী হিসেবে কাজ করেছেন।