৮ ছক্কায় সাব্বির রহমানের ঝড়ো ১২৫

2

লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জের হয়ে বিকেএসপিতে ঝড়ো সেঞ্চুরি করেছেন সাব্বির রহমান। তাতে লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে নিজের ক্যারিয়ার সেরা ইনিংসটিও পেয়ে গেছেন মারকুটে এই ব্যাটার। ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বরের পর আন্তর্জাতিক ম্যাচে সুযোগ না পাওয়া সাব্বির অনেকদিন পর সেঞ্চুরির দেখা পেলেন। চলতি প্রিমিয়ার লিগে দুয়েকটি ভালো ইনিংস খেললেও কোনোটাকেই দুই বা তিন অঙ্কের ঘরে নিতে পারেননি। অবশেষে সোমবার রূপগঞ্জ টাইগার্স ক্রিকেট ক্লাবের বিপক্ষে ঝড় তুলেছেন। অথচ ২০১৪ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক করার পর দাপটের সঙ্গেই খেলে যাচ্ছিলেন। একাদশে ছিলেন ‘অটোমেটিক চয়েজ’। কিন্তু শৃঙ্খলাভঙ্গ আর ফর্মহীনতায় সেই সাব্বির এখন জাতীয় দলে ব্রাত্য। দল থেকে বাদ পড়ার পরও আহামরি পারফরম্যান্স করতে পারছেন না। ওই হিসেবে অনেকদিন পর গতকাল সোমবার তার ব্যাট হেসেছে। বিকেএসপির চার নম্বর মাঠে টস জিতে আগে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেয় মাশরাফির লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ। ৩৩ রানে দুই ওপেনার বিদায় নিলেও তার কোনও প্রভাব পড়েনি। তৃতীয় উইকেটে সাব্বির ও নাঈম মিলে ঝড় তুলে খেলেছেন। নাঈম ৩৩ রান করে আউট হলে ভাঙে ১১৩ রানের জুটি। এরপর চেরাগ জানিকে সঙ্গে নিয়ে আরও অপ্রতিরোধ্য হয়ে উঠেন সাব্বির। ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস খেলার পথে তুলে নেন লিস্ট ‘এ’ ক্যারিয়ারের চতুর্থ সেঞ্চুরিও। ৪৩তম ওভারে সাব্বির আউট হলে জানির সঙ্গে তার ৯৫ রানের জুটিরও অবসান ঘটে। সাব্বির ১১১ বলে ৮ চার ও ৮ ছক্কায় ১২৫ রানের ইনিংস খেলেছেন। সাব্বিরের সেঞ্চুরি এবং চেরাগ জানির ৯৫ রানের ঝলমলে ইনিংসের ওপর দাঁড়িয়েই মাশরাফির দল ৩২৫ রানের সংগ্রহ দাঁড় করিয়েছে। চেরাগ জানি ৬৬ বলে ৪ চার ও ৭ ছক্কায় ৯৫ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেছেন।