৭০ দেশের নাগরিক অন অ্যারাইভাল ভিসা পাবে আরব অমিরাতে

6

ভ্রমণ প্রেমিদের কাছে ঘুরতে যাওয়ার জন্য প্রধান আকর্ষণীয় স্থানের নাম দুবাই। বিলাসবহুল জীবনযাপন, চোখ ধাঁধানো রঙিন আলোকরশ্মি, আকাশচুম্বি অট্রালিকা, হোটেল, কৃত্রিম দ্বীপপুঞ্জসহ নানা কারণে এই স্থানটি ভ্রমণ-প্রিয়দের পছন্দের শীর্ষে থাকে সর্বদা। বর্তমানে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ আরব আমিরাতে অন-অ্যারাইভাল ভিসা সুবিধা পেয়ে থাকেন প্রায় ৭০টি দেশের নাগরিক। শুক্রবার এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম খালিজ টাইমস। এমিরেটস, ফ্লাইদুবাই এবং ইতিহাদ এয়ারওয়েজের ওয়েবসাইট থেকে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে বিশ্বের প্রায় ২০টি দেশ বা অঞ্চলের পাসপোর্টধারীরা আরব আমিরাতে বিনামূল্যে ৩০ দিনের অন অ্যারাইভাল ভিসা পেয়ে থাকেন।

যেসব দেশের নাগরিকরা এই সুবিধা পেয়ে থাকেন সেগুলো হলো: এন্ডোরা, অস্ট্রেলিয়া, ব্রুনাই, কানাডা, চীন, হংকং (চীন), জাপান, কাজাখস্তান, ম্যাকাও (চীন), মালয়েশিয়া, মরিশাস, মোনাকো, নিউজিল্যান্ড, আয়ারল্যান্ড, সান মারিনো, সিঙ্গাপুর, ইউক্রেন, যুক্তরাজ্য এবং উত্তর আয়ারল্যান্ড, আমেরিকা এবং ভ্যাটিকান সিটি। এছাড়া ৫০ টিরও বেশি দেশ বা অঞ্চলের নাগরিকদের জন্য আরব আমিরাতে ৯০ দিনের একাধিকবার প্রবেশযোগ্য অন অ্যারাইভাল ভিসা দেয়া হয়। এই ভিসাটি ইস্যু করার তারিখ থেকে ছয় মাসের জন্য বৈধ এবং ভিসাধারীরা মোট ৯০ দিনের জন্য সংযুক্ত আরব আমিরাতে থাকতে পারবেন। দেশগুলো হলো: আর্জেন্টিনা, অস্ট্রিয়া, বাহামা দ্বীপপুঞ্জ, বার্বাডোজ, বেলজিয়াম, ব্রাজিল, বুলগেরিয়া, চিলি, কলম্বিয়া, কোস্টারিকা, ক্রোয়েশিয়া, সাইপ্রাস, চেক প্রজাতন্ত্র, ডেনমার্ক, এল সালভাদর, এস্তোনিয়া, ফিনল্যান্ড, ফ্রান্স, জার্মানি, গ্রীস, হন্ডুরাস, হাঙ্গেরি, আইসল্যান্ড, ইসরায়েল, ইতালি, কিরিবাতি, লাটভিয়া, লিচেনস্টাইন, লিথুয়ানিয়া, লুক্সেমবার্গ, মালদ্বীপ, মাল্টা, মন্টিনিগ্রো, নাউরু, নেদারল্যান্ডস, নরওয়ে, প্যারাগুয়ে, পেরু, পোল্যান্ড, পর্তুগাল, রোমানিয়া, রাশিয়া, সেন্ট ভিনসেন্ট ও গ্রেনাডাইন দ্বীপপুঞ্জ, সান মারিনো, সার্বিয়া, সিসিলিস, স্লোভাকিয়া, স্লোভেনিয়া, সলোমান দ্বীপপুঞ্জ, দক্ষিণ কোরিয়া, স্পেন, সুইডেন, সুইজারল্যান্ড এবং উরুগুয়ে।

এদিকে মেক্সিকান পাসপোর্টধারী ভ্রমণকারীরা মাল্টিপল এন্ট্রিসহ সংযুক্ত আরব আমিরাতে পৌঁছানোর পর ১৮০-দিনের ভিজিট ভিসা পেয়ে থাকেন। এই ভিসা ইস্যুর তারিখ থেকে পরবর্তী ছয় মাসের জন্য বৈধ এবং এর অধীনে মোট ১৮০ দিন আরব আমিরাতে অবস্থান করা যাবে। তালিকার বাইরে থাকা এশিয়া এবং আফ্রিকার অন্যান্য দেশের নাগরিকদের ভ্রমণের আগে থেকেই আরব আমিরাতের ভিসা নিতে হবে। অর্থাৎ ভ্রমণ শুরুর আগেই তাদের পাসপোর্টে সংযুক্ত আরব আমিরাতের ভিসা থাকতে হবে। অবশ্য যুক্তরাষ্ট্রের ইস্যু করা নূন্যতম ছয় মাসের জন্য বৈধ ভিজিট ভিসা বা গ্রিন কার্ডধারী ভারতীয় নাগরিকরা অথবা যুক্তরাজ্য বা ইইউ-এর বাসিন্দা এমন ব্যক্তিরাও নির্দিষ্ট ফির বিনিময়ে সর্বোচ্চ ১৪ দিনের জন্য অন অ্যারাইভাল ভিসা পেতে পারেন।