৫৪-তেই চলে গেলো লিসা প্রিসলি

1

হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন প্রয়াত মার্কিন পপস্টার মাইকেল জ্যাকসনের প্রাক্তন স্ত্রী গায়িকা লিসা মেরি প্রিসলি মারা গেছেন। লিসার আরও একটি বড় পরিচয়, তিনি ‘রক এন রোলের রাজা’ এলভিস প্রিসলির একমাত্র মেয়ে। গত বৃহস্পতিবার লস অ্যাঞ্জেলেসের বাস ভবনে হৃদরোগে আক্রান্ত হন তিনি। এরপর তাকে সঙ্গে সঙ্গে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলেও শেষরক্ষা হয়নি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫৪ বছর। লিসার মা প্রিসিলা একটি বিবৃতিতে জানিয়েছেন, ‘ভারাক্রান্ত হৃদয়ে আমাকে এই বেদনাদায়ক সংবাদটি শেয়ার করছি। আমার সুন্দরী মেয়ে লিসা মেরি আমাদের ছেড়ে চলে গেছে।’ মেয়ে সম্পর্কে বিবৃতিতে তিনি আরও বলেন, ‘আমার দেখা সবচেয়ে আবেগী, শক্তিশালী এবং ভালোবাসায় ভরা নারী ছিলেন লিসা। এই গভীর ক্ষতির সঙ্গে মোকাবিলা করার জন্য আপনাদের কাছ থেকে কিছু গোপনীয়তা প্রার্থনা করছি।’ চলতি সপ্তাহেই বেভারলি হিলস-এ অনুষ্ঠিত গোল্ডেন গ্লোবস অ্যাওয়ার্ডে অংশগ্রহণ করেছিলেন লিসা। যেখানে অভিনেতা অস্টিন বাটলার ‘এলভিস’ ছবিতে তার বাবার চরিত্রে অভিনয় করার জন্য সেরা অভিনেতার পুরস্কার জিতে নেন। বাটলার সেখানে নিজের বক্তৃতায় লিসা ও তার মা প্রিসিলাকে ধন্যবাদও জানিয়েছিলেন। ২০০৩ সালে অ্যালবাম ‘টু হুম ইট মে কনসার্ন’ দিয়ে নিজের সংগীত জীবন শুরু করেছিলেন লিসা। এরপর ২০০৫ সালে এসেছিল ‘নাউ হোয়াট’। আর দুটোই বিলবোর্ড ২০০ অ্যালবাম চার্টের শীর্ষ ১০-এ নিজের জায়গা করে নিয়েছিল। তার তৃতীয় অ্যালবাম, ‘স্টর্ম অ্যান্ড গ্রেস’ ২০১২ সালে প্রকাশিত হয়। চার বার বিয়ে করেছিলেন লিসা। প্রথম স্বামীর সঙ্গে ২০ দিনের দাম্পত্যের অবসান ঘটিয়ে ১৯৯৪ সালে পপস্টার মাইকেল জ্যাকসনের সঙ্গে সংসার পাতেন। এরপর ১৯৯৬ সালে মাইকেল যখন শিশু নিগ্রহের ঘটনায় অভিযুক্ত হন, বিবাহবিচ্ছেদ হয়ে যায় তাদের। এরপর ২০০২ সালে অভিনেতা নিকোলাস কেজকে বিয়ে করেছিলেন লিসা। যদিও ৪ মাসের মধ্যে ভেঙে যায় সংসার। এরপর বিয়ে করেন এক গিটারিস্টকে। তার সঙ্গেও বিচ্ছেদ পাকা হয় ২০২১ সালে। লিসার চার সন্তান। একমাত্র ছেলে বেঞ্জামিন কেওফ ছিলেন একজন সংগীতশিল্পী। ২০২০ সালে মাত্র ২৭ বছর বয়সে আত্মহত্যা করেন বেঞ্জামিন। মেয়ে রাইলি কিউর বয়স ৩৩, পেশায় একজন অভিনেত্রী। লিসার অন্য দুই মেয়ে যমজ, হার্পার এবং ফিনলে লকউড। তাদের বয়স ১৪। সূত্র: হিন্দুস্থান টাইমস বাংলা