২৮তম স্ক্রিন অ্যাক্টরস গিল্ড অ্যাওয়ার্ডস বিজয়ী হলেন যারা

8

বয়ঃসন্ধি নিয়ে মুক্ত চলচ্চিত্র ‘কোডা’র অস্কারে সাফল্য পাওয়ার আশা বাড়লো। স্ক্রিন অ্যাক্টরস গিল্ড (এসএজি) অ্যাওয়ার্ডসের সর্বোচ্চ পুরস্কার সম্মিলিত অভিনয়শিল্পীসহ দুটি স্বীকৃতি পেয়েছে এটি। এতে শ্রবণশক্তি থাকা সন্তানের বধির বাবার চরিত্রে নৈপুণ্য দেখিয়ে সেরা পার্শ্ব অভিনেতা হয়ে ইতিহাস গড়েছেন ট্রয় কটসার। এবারই প্রথম কোনও বধির তারকা পৃথকভাবে এসএজি অ্যাওয়ার্ড জিতলেন। লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও, জেনিফার লরেন্স, মেরিল স্ট্রিপ অভিনীত ‘ডোন্ট লুক আপ’, ‘হাউস অব গুচ্চি’, ‘কিং রিচার্ড’ এবং ‘বেলফাস্ট’ ছবিগুলোকে টপকে এসএজি অ্যাওয়ার্ডসের সর্বোচ্চ সম্মান পেলো ‘কোডা’।

বেশিরভাগ বধির অভিনয়শিল্পী থাকা কোনও ছবি প্রথমবার এই পুরস্কার জিতলো। আগামী মাসে হতে যাওয়া অস্কারে তিনটি শাখায় লড়াই করবে অ্যাপল টিভি প্লাসের ‘কোডা’। এর গল্প কিশোরী রুবিকে কেন্দ্র করে। পুরো পরিবারে একমাত্র এই মেয়েটি কানে শুনতে পায়। তার ভূমিকায় অভিনয় করেছেন ব্রিটিশ টিভি উপস্থাপক অ্যালেড জোন্সের ২০ বছর বয়সী মেয়ে এমিলিয়া জোন্স। ৯৪তম অস্কারে সেরা অ্যাডাপ্টেড চিত্রনাট্য শাখায় মনোনীত হয়েছেন ছবিটির পরিচালক শন হেডার। অস্কারের সেরা চলচ্চিত্র শাখায় মনোনয়ন পাওয়া ১০টি ছবির তালিকায়ও আছে ‘কোডা’। সেরা পার্শ্ব অভিনেতা শাখায় ফেবারিট ট্রয় কটসার। ‘কোডা’য় তার সহশিল্পী মারলি ম্যাটলিন একমাত্র বধির তারকা হিসেবে অস্কার জয়ের রেকর্ড ধরে রেখেছেন।

অ্যাকাডেমি অব মোশন পিকচার আর্টস অ্যান্ড সায়েন্সেসের ভোটার এসএজি’র অভিনয়শিল্পীদের বৃহৎ অংশ। অভিনেতা-অভিনেত্রী, নৃত্যশিল্পী, স্টান্ট পারফরমার ও ভয়েসওভার শিল্পী মিলিয়ে ১ লাখ ৬০ হাজার সদস্য এই সংগঠনের। তাই এসএজি’র সাফল্য অস্কারের সূচক হিসেবে ভাবা হয়। ২০২০ সাল পর্যন্ত টানা ২৪ বছর এসএজি অ্যাওয়ার্ডসে সেরা সম্মিলিত অভিনয়শিল্পী পুরস্কার জেতা ছবিই অস্কারে সেরা চলচ্চিত্র হয়েছে। ২৮তম এসএজি অ্যাওয়ার্ডসে ইতিহাস হয়েছে আরেকটি। ‘ওয়েস্ট সাইড স্টোরি’র জন্য সেরা পার্শ্ব অভিনেত্রী হয়ে এটি সৃষ্টি করেছেন আরিয়ানা ডিবোজ। তার সুবাদে প্রকাশ্যে সমকামী পরিচয় দেওয়া কোনও নারী এবারই প্রথম এসএজি অ্যাওয়ার্ডে স্বীকৃতি পেলেন। যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ায় সান্টা মনিকা বিমানবন্দরে ২৭ ফেব্রুয়ারি জমকালো আয়োজনে এসএজি অ্যাওয়ার্ডস বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার প্রদান করা হয়।

এতে সেরা অভিনেতা শাখায় প্রত্যাশিতভাবেই জিতেছেন উইল স্মিথ। ‘কিং রিচার্ড’ ছবিতে টেনিস তারকা ভেনাস ও সেরেনা উইলিয়ামসের বাবার ভূমিকায় অনবদ্য অভিনয় করেছেন তিনি। তবে সেরা অভিনেত্রী শাখায় চমকে দিয়েছেন জেসিকা চ্যাস্টেইন। ‘দ্য আইস অব টেমি ফেই’ ছবির জন্য এই সম্মান উঠেছে তার হাতে। সত্তর দশকে টিভি অনুষ্ঠানের মাধ্যমে খ্রিস্টান ধর্মের প্রচার করতেন আমেরিকান টিভি ব্যক্তিত্ব টেমি ফেই। তার চরিত্রটি ফুটিয়ে তুলেছেন জেসিকা চ্যাস্টেইন। অলিভিয়া কোলম্যান (দ্য লস্ট ডটার), নিকোল কিডম্যান (বিইং দ্য রিকার্ডোস), পেনেলোপি ক্রুজ (প্যারালাল মাদারস) এবং জেনিফার হাডসনকে (রেসপেক্ট) হটিয়ে ৪৪ বছর বয়সী মার্কিন অভিনেত্রীর জয় চমক বটে।

সেরা সম্মিলিত স্টান্ট শাখায় পুরস্কার পেয়েছে জেমস বন্ড সিরিজের ‘নো টাইম টু ডাই’। ব্রিটিশ তারকা ড্যানিয়েল ক্রেগের ছবিটি মারভেল স্টুডিওসের ‘ব্ল্যাক উইডো’ এবং ‘সাঙ-চি অ্যান্ড দ্য লিজেন্ড অব দ্য টেন রিংস’, ডেনি ভিলন্যুভের ‘ডুন’ এবং কিয়ানু রিভসের ‘দ্য ম্যাট্রিক্স রিসারেকশন্স’কে হারিয়ে দিয়েছে। টেলিভিশন দুনিয়ায় এসএজি অ্যাওয়ার্ডসের ইতিহাসে এবারই প্রথম ইংরেজি ব্যতিত অন্য ভাষার কোনও সিরিজ হিসেবে পুরস্কার জিতলো নেটফ্লিক্সের ‘স্কুইড গেম’। টেলিভিশনের সেরা সম্মিলিত স্টান্ট শাখায় সেরা হয়েছে এটি। দক্ষিণ কোরিয়ান এই সিরিজের জন্য লি জঙ-জে সেরা টিভি অভিনেতা এবং হো-ইওন চঙ সেরা টিভি অভিনেত্রী হয়েছেন।
এইচবিও’র ‘সাকসেশন’ সেরা সম্মিলিত অভিনয়শিল্পী (ড্রামা সিরিজ) এবং অ্যাপল টিভি প্লাসের ‘টেড লাসো’ সেরা সম্মিলিত অভিনয়শিল্পী (কমেডি সিরিজ) পুরস্কার পেয়েছে। ‘মেয়ার অব ইস্টটাউন’-এ গোয়েন্দা পুলিশের ভূমিকায় অনবদ্য অভিনয় করে সেরা অভিনেত্রী (লিমিটেড সিরিজ অথবা টিভি মুভি) হয়েছেন কেট উইন্সলেট। স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম হুলু’র ‘ডোপসিক’-এর সুবাদে সেরা অভিনেতা (লিমিটেড সিরিজ অথবা টিভি মুভি) হয়েছেন মাইকেল কিটন। অ্যাপল টিভি প্লাসের ‘টেড লাসো’তে দুর্দান্ত অভিনয় করে জেসন সুডেইকিস সেরা কমেডি অভিনেতার পুরস্কার পেয়েছেন। এইচবিও ম্যাক্সের ‘হ্যাকস’-এ অসামান্য দক্ষতার জন্য জিন স্মার্ট পেয়েছেন সেরা কমেডি অভিনেত্রীর পুরস্কার।
২৮তম স্ক্রিন অ্যাক্টরস গিল্ড অ্যাওয়ার্ডস বিজয়ীরা
চলচ্চিত্র শাখা
সেরা সম্মিলিত অভিনয়শিল্পী: কোডা
সেরা অভিনেতা: উইল স্মিথ (কিং রিচার্ড)
সেরা অভিনেত্রী: জেসিকা চ্যাস্টেইন (দ্য আইস অব টেমি ফেই)
সেরা পার্শ্ব অভিনেতা: ট্রয় কটসার (কোডা)
সেরা পার্শ্ব অভিনেত্রী: আরিয়ানা ডিবোজ (ওয়েস্ট সাইড স্টোরি)
সেরা সম্মিলিত স্টান্ট: নো টাইম টু ডাই
টেলিভিশন শাখা
সেরা সম্মিলিত অভিনয়শিল্পী (ড্রামা সিরিজ): সাকসেশন
সেরা অভিনেতা (ড্রামা): লি জঙ-জে (স্কুইড গেম)
সেরা অভিনেত্রী (ড্রামা): হো-ইওন চঙ (স্কুইড গেম)
সেরা সম্মিলিত অভিনয়শিল্পী (কমেডি সিরিজ): টেড লাসো
সেরা অভিনেতা (কমেডি): জেসন সুডেইকিস (টেড লাসো)
সেরা অভিনেত্রী (কমেডি): জিন স্মার্ট (হ্যাকস)
সেরা অভিনেতা (টিভি মুভি অথবা লিমিটেড সিরিজ): মাইকেল কিটন (ডোপসিক)
সেরা অভিনেত্রী (টিভি মুভি অথবা লিমিটেড সিরিজ): কেট উইন্সলেট (মেয়ার অব ইস্টটাউন)
সেরা সম্মিলিত স্টান্ট: স্কুইড গেম