১৫ জানুয়ারির আগে শুরু হচ্ছে না বাণিজ্যমেলা

7

আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনের কারণে ২০২৪ সালের ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলা ১৫ জানুয়ারির আগে শুরু হচ্ছে না। ১৫ জানুয়ারি মেলা শুরুর সম্ভাব্য তারিখ ধরে কার্যক্রম পরিচালনা করছে মেলার আয়োজক রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরো (ইপিবি)।
ইপিবি’র সচিব বিবেক সরকার সোমবার এ তথ্য জানিয়েছেন।
তবে ১৫ জানুয়ারি থেকে মেলা শুরু করা যাবে কিনা সেটিও নিশ্চিত না। নির্বাচনের পর রাজনৈতিক পরিস্থিতি এবং নতুন সরকারের মন্ত্রিসভার ওপর মেলা শুরুর বিষয়টি নির্ভর করছে। তবে মেলা যে দিনই শুরু হোক চলবে পুরো এক মাস।
দেশের পণ্য প্রদর্শনীর সব থেকে বড় আয়োজন আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলা। দেশীয় পণ্যের পাশাপাশি প্রতি বছর ভারত, পাকিস্তান, থাইল্যান্ড, তুরস্ক, মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়া, হংকং, সিঙ্গাপুর, নেপালসহ বিভিন্ন দেশের পণ্য শোভা পায় এই মেলায়।
১৯৯৫ সাল থেকে ঢাকায় এই মেলা অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। রীতি অনুযায়ী, নতুন বছরের প্রথম দিন অর্থাৎ ১ জানুয়ারি মেলা শুরু হয়। বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর যৌথ উদ্যোগে ২০২১ সাল পর্যন্ত ঢাকার শেরেবাংলা নগরে এই আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলা অনুষ্ঠিত হয়। অবশ্য মহামারি করোনার কারণে ২০২১ সালে এই মেলা হয়নি।
২০২২ সালে মেলার ভেন্যু পরিবর্তন হয়ে পূর্বাচলে চলে যায়। মেলার স্থায়ী ঠিকানা পূর্বাচলের বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ-চায়না ফ্রেন্ডশিপ এক্সিবিশন সেন্টার (বিবিসিএফইসি)। রাজধানীর কুড়িল ফ্লাইওভার এলাকা থেকে ১৪ কিলোমিটার পূর্বদিকে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলায় অবস্থিত। এখানেই চলতি বছরের ১ জানুয়ারি বাণিজ্যমেলা শুরু হয়।
২০২৪ সালের মেলা পিছিয়ে যাওয়ার কারণ হিসেবে মেলার পরিচালক, ইপিবি সচিব বিবেক সরকার বলেন, নির্বাচনের কারণে এবার আমরা ১ জানুয়ারি বাণিজ্যমেলা শুরু করতে পারছি না। ১৫ জানুয়ারির আগে মেলা শুরুর কোনো সম্ভাবনা নেই। তিনি বলেন, আগামী ১৫ জানুয়ারি থেকে ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলা শুরুর পরিকল্পনা নিয়ে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। এখন বিভিন্ন ধরনের প্রস্তুতিমূলক কাজ চলছে। দেশী-বিদেশী প্রতিষ্ঠানগুলোর নামে স্টল বরাদ্দ দেওয়ার কাজ ৯০ শতাংশই শেষ হয়েছে।
১৫ জানুয়ারি মেলা শুরু করা যাবে কিনাÑ এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমরা প্রস্তুতি নিয়ে রাখছি। তবে ১৫ জানুয়ারি মেলা শুরু হবে এটা নিশ্চিত করে বলা সম্ভব হচ্ছে না। নির্বাচন ও নির্বাচনপরবর্তী অবস্থা এবং নতুন সরকার গঠনের ওপরও মেলা শুরুর বিষয়টি নির্ভর করবে। তিনি বলেন, ৭ জানুয়ারি নির্বাচনের পর দেশের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি কেমন থাকবে, নিরাপত্তার বিষয় আছে। নতুন কেবিনেট আসবে। এগুলোর ওপর নির্ভর করবে মেলা শুরুর বিষয়টি। এখন পর্যন্ত আমরা ১৫ জানুয়ারি থেকে মেলা শুরু করার আশা করছি।
তিনি আরো বলেন, গত বছর নির্বাচন ছিল না, আমরা নির্ধারিত সময়েই মেলা শুরু করতে পেরেছিলাম। এবার নির্বাচনের কারণে মেলা পিছিয়ে গেছে। তবে পেছালেও এবার পুরো এক মাস মেলা চলবে। যদি জানুয়ারির ১৫ তারিখ মেলা শুরু হয়, তাহলে ফেব্রুয়ারির ১৫ তারিখ পর্যন্ত চলবে। অর্থাৎ মেলা যেদিনই শুরু হোক সেই দিন থেকে এক মাস চলবে।