দৈনিক গৌড় বাংলা

মঙ্গলবার, ২৫শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১১ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৯শে জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

১৫২ ধরনের সুমিষ্ট আম নিয়ে শুরু হলো তিন দিনের মেলা

প্রদর্শিত হচ্ছে আধুনিক কৃষিপ্রযুক্তিও

চাঁপাইনবাবগঞ্জে তিন দিনের কৃষিপ্রযুক্তি ও পুষ্টি মেলা-২০২৪ শুরু হয়েছে। কৃষি উন্নয়নের মাধ্যমে পুষ্টি ও খাদ্য নিরাপত্তা জোরদারকরণ প্রকল্পের আওতায় রবিবার থেকে এ মেলার আয়োজন করেছে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা কার্যালয়।
মেলায় আধুনিক কৃষিপ্রযুক্তিসহ স্থান পেয়েছে ১৫২ রকমের সুমিষ্ট আম। জেলা প্রশাসকের কার্যালয় চত্বরে বঙ্গবন্ধু মঞ্চে এবং মঞ্চের সামনে একটি নৌকার ওপরে আমগুলো রাখা হয়েছে। এতে মেলায় বাড়তি আকর্ষণ যুক্ত হয়েছে। এছাড়াও বিভিন্ন স্টলে প্রদর্শিত হচ্ছে কৃষিপ্রযুক্তি ও পুষ্টি বিষয়ক তথ্য।
সকাল ১০টায় প্রধান অতিথি হিসেবে মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন এবং প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন সদর আসনের সংসদ সদস্য মো. আব্দুল ওদুদ।
বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বক্তব্যের উদ্ধৃতি দিয়ে এ সময় আব্দুল ওদুদ বলেন- এক ইঞ্চি জমিও যেন পতিত না থাকে, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা মেনে চলতে হবে। কৃষিজমি নষ্ট করে কোনো প্রকল্প গ্রহণ করা যাবে না। বাসার আশপাশে একটুকরো জমি থাকলে সেখানেও শাকসবজি ফলাতে হবে। মনে রাখতে হবে, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা কৃষিকে অধিক গুরুত্ব দিয়েছেন বলেই আমরা আজ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ হতে পেরেছি।
পুষ্টি বিষয়ে কাজ করার আহ্বান জানিয়ে আব্দুল ওদুদ বলেন- পরিবারের মায়েরাই হচ্ছেন আসল। তাদের আমি অনুরোধ করব, আজকাল মোবাইল অ্যাপ ব্যবহার করে সকল ধরনের পুষ্টি বিষয় জেনে নিয়ে নিজ নিজ পরিবারে কাজে লাগাবেন। এসময় তিনি কৃষি বিভাগের নিরলস প্রচেষ্টার কথা তুলে ধরেন।
জেলা প্রশাসক এ কে এম গালিভ খাঁনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মেলার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন- অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মাহবুবু-উল-ইসলাম।
সূচনা বক্তব্যে মেলার লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যসহ নিরাপদ খাদ্য ও পুষ্টি বিষয়ক বিভিন্ন তথ্য তুলে ধরেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, চাঁপাইনবাবগঞ্জের উপপরিচালক ড. পলাশ সরকার। কৃষি উদ্যোক্তা হিসেবে বক্তব্য দেনÑ কামরুন নাহার ইতি। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেনÑ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত উপপরিচালক রহিমা খাতুন।
এসময় জেলা প্রশিক্ষণ অফিসার মো. আতিকুল ইসলাম, অতিরিক্ত উপপরিচালক (শস্য) কে এম কাওছার হোসেন. সদর উপজেলা কৃষি অফিসার সঞ্জয় সরকারসহ কৃষি কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

About The Author