১০-১৫ রান কম হয়েছে : সাকিব

8

শারজার উইকেট এমনিতেই কিছুটা স্লো ও স্পিন বান্ধব। এমন উইকেটে প্রথম ইনিংসে ব্যাটিং গড় ১৫০। শারজায় অনুষ্ঠিত ২৫ ম্যাচের মধ্যে ১৫টিতে জিতেছে আগে ব্যাট করা দল। কিন্তু আগে ব্যাটিং করা দলগুলো গড়ে ১৫০ বেশি রান করলেও বাংলাদেশ তা পারেনি। মঙ্গলবার (৩০ আগস্ট) আফগানিস্তানের কাছে ১২৭ রানে থামতে বাধ্য হয় লাল-সবুজের দল। এ নিয়ে ম্যাচ শেষে অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের কণ্ঠে এলো ১০-১৫ রান কম হওয়ার আক্ষেপ। পুরস্কার বিতরণী মঞ্চে সাকিব ম্যাচ হারের কারণ জানাতে গিয়ে বলেন, ‘৫-৬ ওভারের মধ্যে ৪ উইকেট হারিয়ে ফেললে কাজটা একদমই কঠিন হয়ে যায়। উইকেট বিবেচনায় আমরা ১০-১৫ রান কম করেছি। আমি মনে করি বোলাররা স্বল্প পুঁজি নিয়েও অসাধারণ বোলিং করেছে। প্রথম ১৫ ওভার দারুণ কেটেছে বোলারদের। পরের ৩-৪ ওভারেই তারা আমাদের থেকে ম্যাচটি বের করে নিয়েছে। তাদের ক্রেডিট দিতে হবে যেভাবে ম্যাচটি জিতেছে।’শারজায় এর আগের দুই ম্যাচেও হেরেছিল বাংলাদেশ। আগের দুই ম্যাচেও উইকেট বুঝতে ভুল করেছিল লাল-সবুজ জার্সিধারীরা। আজ আবারও একই চিত্র। বল উইকেটে গ্রিপ করছিল। স্লো হয়ে যাচ্ছিল। অসমান বাউন্সের কারণে বল উচুঁ-নিচুও হয়। এমন উইকেটে তিন পেসার নিয়ে খেলাটা প্রশ্নবিদ্ধ। অথচ আফগানিস্তান তিন স্পিনার ও দুই পেসার নিয়ে একাদশ সাজিয়েছে ঠিকই। কিন্তু পুরস্কার বিতরণী মঞ্চে এ নিয়ে কোনও প্রশ্ন তোলা হয়নি।

টস জিতে ব্যাটিং নেমে বাংলাদেশ দল ২৮ রানে ৪ উইকেট হারায়। ওই অবস্থা থেকে বাংলাদেশের ইনিংসকে ১০০ রানের কোটায় নিয়ে যেতে ভূমিকা রাখেন মোসাদ্দেক। ৩১ বলে ৪৮ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেন এই অলরাউন্ডার। মোসাদ্দেকের প্রশংসা করে অধিনায়ক সাকিব বলেন, ‘আমরা মোসাদ্দেকের মতোই একটি ইনিংসের প্রত্যাশা করছিলাম। টি-টোয়েন্টি ম্যাচে যে থিতু হয়ে যাবে তার দায়িত্ব শেষ পর্যন্ত খেলে আসা। মোসাদ্দেক আমাদের হয়ে সেই কাজটাই করেছিল। কিন্তু তা পর্যাপ্ত ছিল না। আমাদের ব্যাটসম্যানদের আরও ভূমিকা রাখা উচিত ছিল।’