১০ বছর বয়সেই চলে গেলেন অভিনেতা রাহুল

3

আসছে ১৪ অক্টোবর গুজরাটি ভাষায় তৈরী ‘লাস্ট ফিল্ম শো’মুক্তি পাওয়ার কথা। কিন্তু সেই দিনটি আর দেখা হলো না ছবিটির শিশুশিল্পী রাহুল কোলীর। মাত্র ১০ বছর বয়সে থেমে গেল রাহুলের জীবন।প্রবল জ¦রের সঙ্গে রক্তবমি নিয়ে হাসপাতালে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করল ১০ বছরের এই অভিনেতা। ছবিতে ছ’জন শিশু-অভিনেতার মধ্যে একজন রাহুল। ছবির মূল চরিত্র সময়-এর ঘনিষ্ঠ বন্ধুর ভূমিকায় এ ছবিতে দেখা গিয়েছে তাকে।চিকিৎসকরা জানান, লিউকেমিয়া বা রক্তকণিকার ক্যানসারে আক্রান্ত হয়েছিল রাহুল। গুজরাটের ক্যানসার রিসার্চ ইনস্টিটিউটে তার শুশ্রূষা চলছিল। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি। রোগ নির্ণয় করার প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই যুদ্ধ থেমে!রাহুলের বাবা রামু কলি পেশায় অটোরিকশা চালক। কান্নায় ভেঙে পড়ে তিনি জানান, তার ছেলের ছবি মুক্তির অপেক্ষায় ছিল। কিন্তু কোথা থেকে কী হয়ে গেল বুঝতে পারছেন না। তার কথায়, “জ¦র ছিল শেষের দিকে। রক্তবমি করল তিন বার। তার পর চলে গেল।”তিনি আরো বলেন, ‘ও খুব খুশি ছিল। বার বার বলত যে ১৪ অক্টোবরের পর আমাদের জীবন পাল্টে যাবে।

কিন্তু তার আগেই ও চলে গেল। তবে ছবিটা তো দেখতেই হবে। ছেলে যে ওখানেই রয়েছে! রামু বলেন, “রাহুলের শেষকৃত্য সেরে পরিবারের সবাই মিলে একসঙ্গে ছবিটি দেখব।”এদিকে ছবির পরিচালক পান নলিন জানিয়েছেন, রাহুলের মৃত্যুতে ছবির ইউনিটের প্রত্যেকে বিধ্বস্ত।তার কথায় ‘‘আমরা সকলে ওর পরিবারের পাশে ছিলাম। কিন্তু রাহুলকে রাখতে পারলাম না।’’পরিচালক পান নলিনের নিজের অভিজ্ঞতা থেকেই গড়ে ওঠা এই সিনেমার বিষয়বস্তু। গুজরাটের গ্রামে বাল্যকাল কেটেছে পরিচালকের। সেই স্মৃতিই তিনি পর্দায় ফিরিয়ে এনেছেন ‘লাস্ট ফিল্ম শো’র মাধ্যমেপতবে তার সঙ্গে জুড়ে গিয়েছে আরও কয়েকটি জিনিস। কীভাবে ডিজিটাল মাধ্যম আসার পরে সেলুলয়েড আস্তে আস্তে হারিয়ে গিয়েছে। এবং তার মধ্যেও কীভাবে একজন সেলুলয়েডের প্রেমে পড়েছে, তা নিয়েই এই ছবির গল্প। ‘লাস্ট ফিল্ম শো’ নামের মধ্যে দিয়ে পরিচালক নাকি ধরতে চেয়েছেন একটি যুগের শেষ এবং আর একটি যুগের শুরুর সময়টা।এর আগে গত বছর ‘লাস্ট ফিল্ম শো’ ছবিটি ৬৬ তম ভ্যালাডোলিড আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে গোল্ডেন স্পাইক জিতেছে। আসন্ন ৯৫তম অস্কারে সেরা বিদেশি ভাষার ছবি হিসেবে ভারত থেকে পাঠানো হয়েছে এই ছবি!সূত্র: ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস