দৈনিক গৌড় বাংলা

মঙ্গলবার, ২৫শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১১ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৯শে জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

হাঁটুর ইনজুরিতে ফ্রেঞ্চ ওপেন থেকে জকোভিচের নাম প্রত্যাহার

কাসপার রুডের বিপক্ষে ফ্রেঞ্চ ওপেনের কোয়ার্টার ফাইনালে আর খেলা হলো না নোভাক জকোভিচের আগের রাউন্ডে হাঁটুর ইনজুরিতে পড়ার পর কোয়ার্টারের আগে নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছেন সার্বিয়ান এই তারকা। এ প্রসঙ্গে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জকোভিচ বলেছেন, ‘আমি সত্যিই দারুন দু:খের সাথে জানাচ্ছি যে রোলা গাঁরো থেকে আমি নাম প্রত্যাহার করে নিচ্ছি। আমি আমার হৃদয় দিয়ে খেলেছি। গতকালকের (মঙ্গলবার) ম্যাচেও আমি সবটুকু দেবার চেষ্টা করেছি। কিন্তু দূর্ভাগ্যজনক ভাবে ডান হাঁটুরর চোটের কারণে আমার আর খেলা হচ্ছে না। সতর্কতার অংশ হিসেবে মেডিকেল টিমের সাথে আলোচনা করেই আমি এই কঠিন সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হয়েছি।’ এর আগে টুর্নামেন্ট আয়োজক কমিটি জকোভিচের নাম প্রত্যাহারের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানিয়েছে এমআরআই স্ক্যান রিপোর্টে তার ইনজুরির মাত্রা ধরা পড়েছে। বিশে^র এক নম্বর তারকা ২৪ বারের গ্র্যান্ড স্ল্যাম চ্যাম্পিয়ন জকোভিচের বুধবার শেষ চারে রুডের বিপক্ষে খেলার কথা ছিল। গত বছর ফাইনালে রোলা গাঁরোতে রুডকে সরাসরি সেটে পরাজিত করেছিল জকোভিচ। আগামী শুক্রবার সেমিফাইনালে এখন রুডের প্রতিপক্ষ চতুর্থ বাছাই আলেক্সান্দার জেভরেভ অথবা ১১তম বাছাই এ্যালেক্স ডি মিনায়ার। ৩৭ বছর বয়সী জকোভিচ সোমবার ফ্রান্সিসকো সেরুনডোলোর বিপক্ষে পাঁচ সেটের জয়ের ম্যাচটিতে ফিটনেস সমস্যায় পড়েন। পুরো ম্যাচ শেষ করতে তাকে এন্টি-ইনফ্ল্যামেটারি ঔষুধ নিতে হয়েছে। ম্যাচটিতে তিনি ৬-১, ৫-৭, ৩-৬, ৭-৫, ৬-৩ গেমে জয়ী হন। কিন্তু দ্বিতীয় সেটের শুরুতে ইনজুরির কারণ হিসেবে তিনি ফিলিপ চার্টিয়ার কোর্টের পিচ্ছিল সার্ফেস নিয়ে অভিযোগ জানান। গ্র্যান্ড স্ল্যামে রেকর্ড ৩৭০ ম্যাচ জয়ের পর জকোভিচ বলেছেন, ‘আমি জানি না আগামীকাল কি হতে যাচ্ছে। আমি এখনো নিশ্চিত না আদৌ আর কোর্টে নামতে পারবো কিনা। গত কয়েক সপ্তাহ যাবতই আমি কিছুটা অস্তস্তিবোধ করছি। ডান হাঁটুর বিষয়টি আমাকে ভাবিয়ে তুরেছে। কিন্তু তেমন কোন গুরুতর কিছু ছিলনা। এটা নিয়ে বেশ কিছু টুর্নামেন্ট খেলেছি। কিন্তু এখন শেষ পর্যন্ত কি হয় বলা যাচ্ছেনা। ফ্রেঞ্চ ওপেন থেকে জকোভিচের নাম প্রত্যাহারের কারণে আগামী সপ্তাহে প্রথমবারের মত ইতালির কোন খেলোয়াড় হিসেবে বিশ^ র‌্যাঙ্কিংয়ের এক নম্বর স্থানে আসীন হবে ইয়ানিক সিনার। এ সম্পর্কে সিনার বলেছেন, ‘একজন খেলোয়াড়ে জন্য বিশে^র এক নম্বর খেলোয়াড় হওয়া স্বপ্ন সত্যি হবার মত ঘটনা। কিন্তু অন্যদিক থেকে দেখতে গেলে জকোভিচ নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছে যা হতাশার। তার দ্রুত সুস্থতা কামনা করছি।’ ইতোমধ্যেই ১০ম বাছাই বুলগেরিয়ার গ্রিগর দিমিত্রভকে তিন সেটে পরাজিত করে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেছেন সিনার। শীর্ষ র‌্যাঙ্কিংয়ে রেকর্ড ৪৩৮ সপ্তাহ ধরে নিজেকে ধরে রেখেছিলেন জকোভিচ। এর আগে ২০১৯ সালে ইউএস ওপেনে সর্বশেষ কোন গ্র্যান্ড স্ল্যাম থেকে কাঁধের ইনজুরির কারণে নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছিলেন জকোভিচ।

About The Author