সড়ক পরিবহন আইনের বিধিমালা অনুমোদনের দাবিতে চাঁপাইনবাবগঞ্জে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি

28

নিরাপদ সড়কের দাবিতে দীর্ঘদিন যাবৎ আন্দোলনকারী সংগঠন ‘নিরাপদ সড়ক চাই-নিসচা, চাঁপাইনবাবগঞ্জ শাখা’ সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮-এর বিধিমালা চূড়ান্ত ও অনুমোদনের দাবিতে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেছে। গতকাল সোমবার বেলা সাড়ে ১১টায় জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে জেলা প্রশাসক একেএম গালিভ খাঁনের হাতে স্মারকলিপি তুলে দেয়া হয়।
এ সময় উপস্থিত ছিলেনÑ সংগঠনের জেলা শাখার উপদেষ্টা আনোয়ার হোসেন দিলু, সভাপতি শফিকুল আলম ভোতা, সহসভাপতি ফারুকা বেগম, আব্দুল খালেক, সাধারণ সম্পাদক রফিক হাসান বাবলু, যুগ্ম সম্পাদক জাহিদুর আবেদীন মিঠু, প্রচার সম্পাদক জাকির হোসেন পিংকু, নারী বিষয়ক সম্পাদক ছবি রানী, সদস্য আব্দুর রব নাহিদ, মেহমুদুর রহমান।
স্মারকলিপিতে উল্লেখ করা হয়, বিশ্বে সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যুর তালিকায় বাংলাদেশ ৮ম স্থনে (প্রায় ২৫ হাজার প্রতি বছর)। যা তৃতীয় স্থানে নেমে যাবার সম্ভাবনা রয়েছে। এছাড়াও রয়েছে অসংখ্য নির্মম পঙ্গুত্বের ঘটনা। এমন প্রেক্ষাপটে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্যোগে দেশে সড়ক পরিবহন আইন-২০১৮ প্রণীত হয়। এতে জনমনে স্বস্তি আসে। কিন্তু প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা থাকা সত্বেও চার বছরেও আইনটি বাস্তবায়ন হয়নি। কারণ আইনের বিধিমালা এখনো প্রণয়ন হয়নি। ফলে আইনটি মূলত অকার্যকর। এই আইনের বলে সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলো কোনো ব্যবস্থা নিতে পারছে না। এতে জাতিসংঘ ঘোষিত সড়ক দুর্ঘটনা রোধে পাঁচটি অন্যতম পিলার বাস্তবায়নের উদ্যোগও নেয়া যাচ্ছে না।
এমতাবস্থায় দেশে চলমান প্রশংসিত উন্নয়নের রূপকার প্রধানমন্ত্রী নিজে উদ্যোগী হয়ে সড়ক পরিবহন আইন-২০১৮-এর বিধিমালা চূড়ান্ত ও অনুমোদনের ব্যবস্থা করলে তা সড়ক দুর্ঘটনা রোধে ফলপ্রসূ হবে যা এসডিজি অর্জনেও বিশেষ ভূমিকা রাখবে।
এছাড়া জাতিসংঘের গুরুত্ব দেওয়া হেলমেট, সিটবেল্ট, মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি না চালানো, শিশু আসনসহ ৫টি ঝুঁকিপূর্ণ বিষয় বাস্তবায়ন ও নিশ্চিত করতে হলে আইনটির যথাযথ প্রয়োগ অপরিহার্য বলে উল্লেখ করা হয়।
বিআরটিএ’র সক্ষমতা বাড়ানো, ট্রাফিক বিভাগের সাথে সংশ্লিষ্টদের উপযুক্ত ট্রেনিংয়ের ব্যবস্থা করা, চালক, পথচারী ও যাত্রীদের আইন সম্পর্কে জানাতে প্রচার মাধ্যমে ব্যাপক প্রচার ও সড়ক ব্যবহারকারীদের সচেতন করতে কর্মশালার গুরুত্ব তুলে ধরা হয় স্মারকলিপিতে।