‘স্বপ্নজাল’ ছবির কাজে চাঁদপুরে পরীমনি

107

04-বছরের শুরু থেকেই চিত্রনায়িকা পরীমনির ভক্তদের নানা প্রশ্ন- এ বছরটা তার কেমন যাবে, এখন তার ব্যস্ততা কি নিয়ে, তার হাতে নতুন কি কি ছবি আছে, আর কি কি ছবি তার সামনে মুক্তি পেতে যাচ্ছে? ভক্তদের এসব প্রশ্নের উত্তর নিজেই দিলেন পরী। জানালেন, ‘স্বপ্নজাল’ ছবির কাজে বর্তমানে চাঁদপুরে রয়েছেন তিনি। গত ৭ই জানুয়ারি সেখানে এ ছবির শেষ অংশের কাজ শুরু হয়। গিয়াসউদ্দিন সেলিমের পরিচালনায় নির্মাণাধীন এ ছবির সেট থেকে সেলফোনে পরীমনি বলেন, বর্তমানে নদীর মাঝে শুটিং করছি। অনেক ঠা-া এখানে। তবে কালই ঢাকা ফিরব বলে আশা করছি। ছবির কাজ শেষ হয়ে যাচ্ছে। তাই মনটা খুবই খারাপ। কারণ এটা এমন একটি ছবি যে, কাজ শেষ করতে ইচ্ছে করে না। মনে হচ্ছে, আরো কিছুদিন শুটিং সেটে থাকলে ভালো হতো। এ ছবিতে নবাগত নায়ক ইয়াশ রোহানের বিপরীতে দেখা যাবে পরীকে। টানা ১০ দিন সেখানে থাকার কারণে সম্প্রতি মুক্তি পাওয়া ‘কত স্বপ্ন কত আশা’ ছবির প্রিমিয়ারে একদিনের জন্য চাঁদপুর থেকে ঢাকায় এসেছিলেন পরী। নিয়মিত এ ছবির খোঁজ খবর নিয়েছেন তিনি। ছবিটি থেকে বেশ সাড়াও পেয়েছেন বলে জানালেন এই অভিনেত্রী। পরী বলেন, প্রিমিয়ারের জন্য একদিনের জন্য ঢাকায় এসেছিলাম। আমি নতুন বছরটা সুন্দর একটা ছবি দিয়ে শুরু করেছি। এ ছবিটির সাড়া পাওয়ার কারণে ভালোবাসার সাগরটা আরো বড় হয়ে গেল আমার। আর সবার ভালোবাসা এবং সাপোর্ট আমার চলার পথে একমাত্র শক্তি। আমি সত্যিই ভীষণ আনন্দিত। আর এ ছবির পরিচালক ওয়াকিল আহমেদ অনেক গুণী একজন মানুষ। তার পরিচালনায় এ ছবিটি দর্শক বেশ ভালোভাবে গ্রহণ করেছে। উল্লেখ্য, গিয়াসউদ্দিন সেলিম ২০০৯ সালে নির্মাণ করেছিলেন ‘মনপুরা’। ছবিটি সেসময় ব্যাপক দর্শকপ্রিয়তা পায়। এর প্রায় সাত বছর পর নতুন ছবি ‘স্বপ্নজাল’- এর কাজে হাত দেন তিনি। এ ছবিটি নিয়ে পরীর স্বপ্নটাও অনেক বেশি। তিনি বলেন, আমার মনজুড়ে এখন ‘স্বপ্নজাল’। এক কথায় বলতে গেলে ছবিটি আমার কাছে স্বপ্নের মতো। এ ছবিতে হিন্দু একটা মেয়ের চরিত্রে অভিনয় করছি। আমার চরিত্রের নাম শুভ্রা। এর চেয়ে বেশি কিছু এখন বলা নিষেধ। গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে চাঁদপুরে ক্যামেরা অন হয় ‘স্বপ্নজাল’ ছবির। প্রায় এক মাস শুটিংয়ের পর অক্টোবরের শেষে গোটা ইউনিট যায় কলকাতায়। টানা ১২ দিন শুটিং হয় সেখানে। কলকাতার বেশ কয়েকটি স্পটে ক্যামেরাবন্দি হয় ছবিটির গুরুত্বপূর্ণ সব দৃশ্য। সেসময় ওপার বাংলার বেশ কয়েকজন অভিনেতা-অভিনেত্রীও অংশ নেন। পরীমনির চলচ্চিত্রে অভিষেক হওয়াটা খুব বেশি দিনের ঘটনা নয়। কিছুদিন আগেও শাবনূর, মৌসুমী, পপি, পূর্ণিমা, মাহির পর কারো নাম তেমন খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। কে এই চলচ্চিত্রের হাল ধরবে তা নিয়ে হতাশা কাটছিল না। সবশেষে এলো নতুন কিছু মুখ। এরমধ্যে উজ্জ্বল এক মুখের নাম পরীমনি। ‘মহুয়া সুন্দরী’, ‘পুড়ে যায় মন’, ‘ভালোবাসা সীমাহীন’, ‘আরো ভালোবাসবো তোমায়’, ‘ধূমকেতু’, ‘রক্ত’ ছবিগুলোতে বিভিন্ন চরিত্রে দর্শক তাকে দেখতে পান। সামনে পরী অভিনীত মালেক আফসারীর ‘অন্তর জ¦ালা’, শামীমুল ইসলাম শামীম পরিচালিত ‘আমার প্রেম আমার প্রিয়া’ ও জাহাঙ্গীর আলম সুমনের ‘সোনাবন্ধু’ ছবি তিনটি মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে। আর জায়েদ খানের বিপরীতে মোস্তাফিজুর রহমান বাবুর পরিচালনায় ‘হৃদয় ছোঁয়া ভালোবাসা’ ছবির কাজ এ মাসেই শুরু করবেন বলে জানিয়েছেন পরীমনি।