স্টকহোমে বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্মের উপর আলোকচিত্রে বঙ্গবন্ধু’র উদ্বোধন

6

মুজিববর্ষ উপলক্ষে বাংলাদেশ দূতাবাস স্টকহোমের আয়োজনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্মের উপর আলোকচিত্র প্রদর্শনী-‘আলোকচিত্রে বঙ্গবন্ধু’র উদ্বোধন করা হয়েছে। দূতাবাস প্রাঙ্গনে সেখানকার সময় অনুযায়ী গতকাল অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সুইডেন নিবাসী বঙ্গবন্ধু অনুরাগী মোহাম্মদ আফতাবুর রহমানের সংগৃহীত এবং মুদ্রিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পারিবারিক, রাজনৈতিক, আন্তর্জাতিক ও কূটনৈতিক জীবনের বিভিন্ন দুর্লভ ছবি এই আলোকচিত্র প্রদর্শনীতে প্রদর্শিত হচ্ছে।
পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে গতকাল জানানো হয় অনুষ্ঠানের শুরুতে রাষ্ট্রদূত মো নাজমুল ইসলাম, মোহাম্মদ আফতাবুর রহমান এবং অন্যান্য অতিথিবৃন্দের উপস্থিতিতে ফিতা কেটে আলোকচিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন করা হয়। এর পর উন্মুক্ত আলোচনা অনুষ্ঠানে বক্তারা বঙ্গবন্ধুর জীবনী, রাজনৈতিক দূরদর্শিতা এবং বিভিন্ন অর্জন নিয়ে আলোচনা করেন। বক্তারা আলোকচিত্র প্রদর্শনীর আয়োজনকে স্বাগত জানান এবং এ ধরণের আয়োজনের প্রয়োজনীয়তা ও গুরুত্ব তুলে ধরেন।
বক্তারা বলেন, সকলকে হাতে হাত রেখে বঙ্গবন্ধুর জীবন, কর্ম এবং চেতনা প্রবাসীসহ সকল বাঙ্গালীদের মধ্যে ছড়িয়ে দেয়ার গুরু দায়িত্ব পালন করতে হবে। রাষ্ট্রদূত মো নাজমুল ইসলাম তাঁর বক্তব্যের সূচনায় স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অপরিসীম অবদানের কথা এবং বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধের কথা বিনম্র শ্রদ্ধায় স্মরণ করেন। তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং ১৫ আগস্টে বঙ্গবন্ধুর পরিবারের শহীদ সদস্যদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন।
মুজিব বর্ষকে উপজীব্য করে দূতাবাসের বিভিন্ন কার্যক্রম তুলে ধরে তিনি বলেন, এই আলোকচিত্র প্রদর্শনী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অসামান্য স্মৃতিসমূহকে এবং তাঁর আত্মত্যাগ এবং সংগ্রামী জীবনকে মানুষের হƒদয়ের মণিকোঠায় তুলে ধরতে সক্ষম হবে। তিনি আরো বলেন, যদিও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মহান জীবন ও কর্মকে ছবিতে পুরোপুরি ধারণ করা সম্ভব নয়, এই আলোকচিত্র প্রদর্শনী পরবর্তী প্রজন্মের কাছে তাঁর কর্ম ও চেতনা ছড়িয়ে দিতে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখবে। দুই সপ্তাহ ব্যাপী এ আলোকচিত্র প্রদর্শনী ১৫ আগস্ট পর্যন্ত দূতাবাস প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হবে। আলোকচিত্র প্রদর্শনীটি সকলের জন্য উন্মুক্ত রাখা হয়েছে।