সেল্টিককে বিধ্বস্ত করে শীর্ষস্থান দখল করল রিয়াল

3

স্কটল্যান্ডের ক্লাব সেল্টিককে ৫-১ গোলে উড়িয়ে দিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে গ্রুপ-এফ’র শীর্ষ দল হিসেবে গ্রুপ পর্ব শেষ করেছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদ। গত বুধবার সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে লুকা মড্রিচ ও রডরিগোর প্রথমার্ধের পেনাল্টিতে ২-০ ব্যবধানে লিড পায় স্বাগতিকরা। দুটি পেনাল্টিই হয়েছে প্রতিপক্ষের হ্যান্ডবলের কারনে। ৩৫ মিনিটে স্কটিশ চ্যাম্পিয়নদের হয়ে পেনাল্টির সুযোগ হাতছাড়া করেন জোসিপ জুরানোভিচ। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে মার্কো আসেনসিও গোল করে আরো এগিয়ে দেন ১৪ বারের চ্যাম্পিয়নদের। ফেডে ভালভার্দের ক্রস থেকে ভিনিসিয়ান জুনিয়র চতুর্থ গোল করেন।

এরপর উরুগুইয়ান ভালভার্দে নিজেই দলের হয়ে শেষ গোলটি করেছেন। ৮৪ মিনিটে জোতার ফ্রি-কিক থেকে আনগে পোস্তেকোগ্লুর দল এক গোল পরিশোধ করে সফরকারীরা। গ্রুপের আরেক ম্যাচে শাখতার দোনেস্ককে ৪-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে রিয়ালকে টপকাতে পারেনি আরবি লিপজিগ। এক পয়েন্ট কম নিয়ে দ্বিতীয় দল হিসেবে পরের রাউন্ডে যেতে বাধ্য হয়েছে জার্মার্ন ক্লাবটি। গত সপ্তাহে লিপজিগের কাছে মৌসুমের প্রথম পরাজয়ের পর লা লিগায় জিরোনার সাথে ড্র করে হতাশ করেছিল মাদ্রিদ। যে কারণে একটি জয় মাদ্রিদের প্রয়োজন ছিল। ম্যাচ শেষে রডরিগো বলেছেন, ‘এভাবে অনেক গোলের মাধ্যমে জয়ের ধারা ফেরাটা সবসময়ই গুরুত্বপূর্ণ। একইসাথে আমরা গ্রুপের শীর্ষস্থানও দখল করেছি।

নক আউট পর্বে আবারো আমাদের কঠিন ম্যাচ খেলতে হবে। সেখানে কোন দলই ছোট নয়। যেই আসুক না কেন আমাদের জন্য যে সহজ হবে না তা অনুমেয়।’ নিজের ম্যানেজেরিয়াল ক্যারিয়ারে এনিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ১০৩তম জয় নিশ্চিত করলো কার্লো আনচেলত্তির দল। এর ফলে ম্যানচেস্টান ইউনাইটেডের সাবেক কোচ এ্যালেক্স ফার্গুসনকে ছাড়িয়ে গেলেন আনচেলত্তি। কাল ম্যাচ শেষে মাদ্রিদ বস বলেছেন, ‘ম্যাচটি শুরু থেকেই ভাল ছিল। আমাদের তেমন কোন সমস্যা হয়নি। ভাল একটি মানসিকতা নিয়ে আমরা গ্রুপ পর্ব শেষ করতে চেয়েছিলাম যা সফল হয়েছে।’ কাল দলে ফিরেছিলেন করিম বেনজেমা। যদিও ব্যালন ডি’অর বিজয়ী এই ফরাসি তারকাকে বদলী বেঞ্চে রেখেই দল সাজিয়েছিলেন আনচেলত্তি।

দ্বিতীয়ার্ধেল ৬৩ মিনিটে ভিনির পরিবর্তে তিনি মাঠে নেমেছিলেন। এবারের মৌসুমে বেনজেমার অনুপস্থিতিতে অন্যান্য স্ট্রাইকাররা দলকে এগিয়ে নিয়ে গেছেন, যা নিয়ে দারুন সন্তুষ্ট আনচেলত্তি। কালও সেল্টিকের বিপক্ষে পাঁচজন খেলোয়াড় স্কোরশিটে নাম লিখিয়েছেন। আনচেলত্তি বলেন, ‘মূল বিষয় হচ্ছে বেনজেমার অনুপস্থিতিতে অন্যান্যের দায়িত্ব আরো বেড়ে গিয়েছিল। তারা নিজেদের সেই দায়িত্ব দারুনভাবে পালন করেছে। খেলোয়াড়দের মধ্যে আত্মবিশ^াস আরো বেড়েছে।’ ভালভার্দেকে আটকাতে গিয়ে মোরিটজ জেনজ ডি বক্সের মধ্যে হ্যান্ডবল করলে পেনাল্টি উপহার পায় মাদ্রিদ। মড্রিড ৬ মিনিটে জো হার্টকে উল্টোদিকে পাঠিয়ে বল জালে জড়ালে এগিয়ে যায় মাদ্রিদ। নারী রেফারি হিসেবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে মাদ্রিদের ম্যাচ প্রথমবারের মত পরিচালনার দায়িত্ব পেয়েছিলেন স্টিফেনি ফ্র্যাপার্ট। সান্তিয়াগোতে কাল তাকে ব্যস্ত রাত কাটাতে হয়েছে।

তিনটি পেনাল্টির নির্দেশ দিয়েছেন তিনি পুরো ম্যাচে। ভিনিসিয়াস পোস্টের খুব কাছে থেকে হার্টকে পরাস্ত করলে ব্যর্থ হলে ব্যবধান দ্বিগুন করা হয়নি স্বাগতিকদের। কিন্তু কিছুক্ষনের মধ্যেই ২১ মিনিটে আরো একটি হ্যান্ডবল থেকে প্রাপ্ত পেনাল্টিতে রডরিগো গোল করে ব্যবধান দ্বিগুন করেন। কিওগো ফুরুহাসির শট রুখে দিয়ে থিকো কোর্তোয়া প্রথমার্ধে মাদ্রিদকে রক্ষা করেছেন। বিরতির ঠিক আগে জুরানোভিচের স্পট কিক আটকে দিয়ে আবারো নিজের দক্ষতার পরিচয় দিয়েছেন বেলজিয়ান গোলরক্ষক। ডি বক্সের মধ্যে ফারলান্ড মেন্ডির বিপক্ষে পেনাল্টি আদায় করে নিয়েছিলেন লিয়েল আবাদা। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই আরো এক গোল করে মাদ্রিদ বড় জয়ের আভাস দিচ্ছিল। ডানি কারভাহালের সহায়তা আসেনসিও দারুন এক গোলে ব্যবধান ৩-০’তে নিয়ে যাণ। ৬১ মিনিটে ভালভার্দের ক্রস থেকে ভিনিসিয়াস দলের হয়ে চতুর্থ গোলটি করেন। বেনজেমার নামার পরপরই মড্রিচকে বিশ্রামে পাঠানো হয়। ৭১ মিনিটে ভালভার্দে মৌসুমের পঞ্চম গোল করেন। আনচেলত্তি যে ১০ গোলের লক্ষ্যস্থির করেছেন তার খুব কাছাকাছি পৌছে যাচ্ছেন ভালভার্দে।