সুবর্ণ নাগরিকদের তুচ্ছতাচ্ছিল্য না করে সহযোগিতা করতে হবে : জেলা প্রশাসক

38

‘বাংলা ইশারা ভাষা প্রচলন, বাক ও শ্রবণপ্রতিবন্ধী ব্যক্তির জীবনমান উন্নয়ন’- এ প্রতিপাদ্যে চাঁপাইনবাবগঞ্জে বাংলা ইশারা ভাষা দিবস পালিত হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল ১০টায় এ উপলক্ষে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন জেলা প্রশাসক এ কে এম গালিভ খাঁন। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আহমেদ মাহবুব-উল-ইসলামের সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন- জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ রুহুল আমিন, বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট আব্দুস সামাদ, চাঁপাইনবাবগঞ্জ মহিলা সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মনোয়ারা খাতুন, জেলা স্থানীয় সরকার ও প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী মোজাহার আলি প্রামাণিক, সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার ডা. রাকিবুল ইসলাম, জেলা প্রতিবন্ধী বিষয়ক কর্মকর্তা মো. শরিয়তুল্লাহ, জেলা চেম্বার্স অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সিনিয়র সহসভাপতি মসিউল করিম বাবু, প্রতিবন্ধী সংগঠন অ্যাঞ্জেলস গার্ডেনের নির্বাহী পরিচালক আমিনুল ইসলামসহ অন্যরা।
সভায় স্বাগত বক্তব্যে বাংলা ইশারা ভাষার সম্পর্কিত চিত্র তুলে ধরেন, জেলা সমাজসেবা অধিদপ্তরের উপপরিচালক উম্মে কুলসুম। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন জেলা সমাজসেবা অফিসার ফিরোজ কবির।
চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রশাসন, জেলা সমাজসেবা অধিদপ্তর, প্রতিবন্ধী সেবা ও সাহায্য কেন্দ্র যৌথভাবে এ আলোচনা সভার আয়োজন করে।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক এ কে এম গালিভ খাঁন বলেন, প্রতিবন্ধীদের প্রতিবন্ধী বলে আখ্যায়িত না করে বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন বা সুবর্ণ নাগরিক বলাই ভালো। তাদের তুচ্ছতাচ্ছিল্য না করে তাদের সকল কাজে সহযোগিতা করতে হবে। তাদের ছোট করে দেখার সুযোগ নেই। কারণ, তারাও মানুষ। তিনি বলেনÑ ইশারা ভাষার জন্য অতীত খোঁজার দরকার নেই। এখনো চীন ও জার্মান গেলে আমাদের ইশারায় কথা বলতে হয়। কারণ তারা নিজের ভাষায় কথা বলে, পৃথিবীর অন্য কোনো ভাষা তারা বোঝে না।