সারাদেশে বৃষ্টি বাড়তে পারে, কমতে পারে তাপমাত্রা

6

দেশের আট বিভাগে অর্থাৎ সারাদেশে বৃষ্টির প্রবণতা বাড়তে পারে। এতে তাপমাত্রা আরো কমতে পারে, দূর হতে পারে তাপপ্রবাহ। রবিবারের আবহাওয়া অধিদপ্তরের পূর্বাভাসে এ তথ্য জানানো হয়।
এদিকে বিভিন্ন অঞ্চলে থেমে থেমে বৃষ্টি হচ্ছে। বৃষ্টি হওয়ায় কিছুদিন ধরে অস্বস্তিকর গরম থেকে স্বস্তি মিলেছে মানুষের। গত শনিবার ভোর ৬টা থেকে রবিবার ভোর ৬টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় সবচেয়ে বেশি ৭১ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে নেত্রকোনায়। এছাড়া বগুড়ায় ৪৯, ডিমলায় ৫৬, সৈয়দপুরে ৪৬, ময়মনসিংহে ৪০, সিলেটে ৩৭, চট্টগ্রামে ৪২, কক্সবাজারে ৫৩ ও টেকনাফে ৪৪ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। এছাড়া অন্যান্য স্থানে হয়েছে হালকা বৃষ্টি।
বাংলা শ্রাবণ মাস বৃষ্টির ভর মৌসুম হলেও এবার কাক্সিক্ষত বৃষ্টির দেখা মিলছে না। বৃষ্টিহীনতায় দেখা দিয়েছে তাপপ্রবাহ, অস্বস্তিকর গরমে কষ্ট পাচ্ছে মানুষ। আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছিলেন, এবার বর্ষায় সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে অনেকটাই বেশি থাকছে।
আবহাওয়াবিদ মুহাম্মদ আবুল কালাম মল্লিক জানান, মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের ওপর মোটামুটি সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরের অন্যত্র মাঝারি ধরনের সক্রিয় রয়েছে। রবিবার সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় রংপুর, রাজশাহী, ময়মনসিংহ, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম, ঢাকা ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় (৫১-৭৫ শতাংশ অঞ্চলে) অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী থেকে ভারী বর্ষণ হতে পারে।
শনিবার রাজশাহী, রংপুর, দিনাজপুর, নীলফামারী ও সিলেট জেলার ওপর দিয়ে মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে জানিয়ে এই আবহাওয়াবিদ বলেন, তাপপ্রবাহ প্রশমিত হতে পারে। রবিবার সারাদেশে দিনের তাপমাত্রা সামান্য কমতে পারে এবং রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।
রবিবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত দেশের অভ্যন্তরীণ নদীবন্দরগুলোর জন্য আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছেÑ রংপুর, রাজশাহী, পাবনা, বগুড়া, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, ঢাকা, ফরিদপুর, যশোর, কুষ্টিয়া, খুলনা, বরিশাল, পটুয়াখালী, নোয়াখালী, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম এবং সিলেট অঞ্চলের ওপর দিয়ে দক্ষিণ বা দক্ষিণ-পূর্ব দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫-৬০ কিলোমিটার বেগে অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝোড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রবৃষ্টি হতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দরগুলোকে ১ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।