সাগরে লঘুচাপ, আগামী দু’দিন বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকবে

14

সাগরে সৃষ্ট লঘুচাপ আর মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে দেশের উপকূলীয় অঞ্চলসহ অনেক জায়গায় ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি বা ভারী বৃষ্টি হচ্ছে। এ কারণে দেশের চার সমুদ্র বন্দরে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। নদী বন্দরগুলোতে দেখাতে বলা হয়েছে ১ নম্বর সতর্ক সংকেত। একই কারণে চট্টগ্রাম ও বরিশাল বিভাগে ভারী বৃষ্টি হচ্ছে। আগামী দু’দিন এই বৃষ্টি থাকতে পারে। উপকূলীয় জেলাগুলোয় স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে বেশি উচ্চতার জোয়ার হতে পারে। আবহাওয়া বিভাগের সতর্ক বার্তায় বলা হয়েছে, ভারতের বিহার, পশ্চিমবঙ্গ এবং এর আশেপাশের এলাকায় অবস্থানরত সুস্পষ্ট লঘুচাপটি বর্তমানে ভারতের মধ্য প্রদেশের মধ্যভাগে অবস্থান করছে। এই লঘুচাপের প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগরে মৌসুমি বায়ু সক্রিয় অবস্থায় আছে এবং বায়ু চাপের আধিক্য বিরাজ করছে। ফলে উত্তর বঙ্গোপসাগর, বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা এবং সমুদ্র বন্দরগুলোর ওপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। এ কারণে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরগুলোকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারগুলোকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে।
লঘুচাপের প্রভাবে উপকূলীয় জেলা চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, বরিশাল, লক্ষ্মীপুর, নোয়াখালী, পটুয়াখালী, বরগুনা, ভোলা, বরিশাল, পিরোজপুর, বাগেরহাট, খুলনা, সাতক্ষীরা ও তাদের আশেপাশের দ্বীপ ও চরগুলোর নিম্নাঞ্চলে স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে ১-২ ফুট বেশি উচ্চতার জোয়ার হতে পারে।
শনিবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত পূর্বাভাসে বলা হয়, রংপুর, রাজশাহী, পাবনা, বগুড়া, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, সিলেট, ঢাকা, ফরিদপুর, যশোর, কুষ্টিয়া, খুলনা, বরিশাল, পটুয়াখালী, নোয়াখালী, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম এবং কক্সবাজার অঞ্চলগুলোর ওপর দিয়ে দক্ষিণ বা দক্ষিণ-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫-৬০ কিলোমিটার বেগে বৃষ্টি বা বজ্রবৃষ্টিসহ অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। এসব এলাকার নদী বন্দরগুলোকে ১ নম্বর সতর্কতা সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। আবহাওয়াবিদ আবদুল মান্নান জানান, লঘুচাপের প্রভাব এবং সাগরে মৌসুমি বায়ু সক্রিয় থাকায় দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বিশেষ করে দক্ষিণাঞ্চলে ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি হচ্ছে। এটি আগামী দুই দিন একই অবস্থায় থাকতে পারে। একারণে সাগরে ৩ এবং নদীতে ১ নম্বর সংকেত দেওয়া হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায সর্বোচ্চ বৃষ্টি হয়েছে যশোরে ৮৮ মিলিমিটার। এ ছাড়া ঢাকায় ২৩, ময়মনসিংহে ১১, চট্টগ্রামে ৬১, সিলেটে ২০, রাজশাহীতে ২, রংপুরে ৩, খুলনায় ১৬ এবং বরিশালে ২৮ মিলিমিটার বৃষ্টি রেকর্ড করা হয়েছে।