সাংবাদিক অলকের দোকানে দুধর্ষ চুরি : খোয়া গেছে অনেক কিছু

46

জেলা শহরের প্রাণ কেন্দ্র ক্লাব সুপার মার্কেটের সামনে চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রেসক্লাবের নিচে সাংবাদিক শহীদুল হুদা অলকের মোবাইল ব্যাংকিং ও ফ্ল্যাক্সিলোডের দোকানে দুধর্ষ চুরির ঘটনা ঘটেছে। খোয়া গেছে ৪৩ হাজার টাকা, ৬ হাজার টাকার মোবাইল রিচার্জ কার্ড ও গ্রামীনফোনের দেয়া একটা ট্যাব। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে যে কোন সময় এ ঘটনা ঘটে।
সাংবাদিক শহীদুল হুদা অলক ফেসবুক ওয়ালে লিখেছেন ভোরের ঘুমটা ভাঙ্গলো দু:সংবাদ দিয়েই। জীবনযুদ্ধে প্রতিমূর্হুতে কতই না মানুষ বিপদগ্রস্ত হচ্ছেন। জীবন বিপন্নও হচ্ছে অহরহ। আমারটা তেমন নয়। জীবিকা নির্বাহ আর উত্তরসুরিদের কল্যাণের জন্যে সাংবাদিকতা পেশার পাশাপাশি চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রেসক্লাবের নিচে একটা দোকান নিয়ে মোবাইল ব্যাংকিং ও ফ্ল্যাক্সিলোডের ব্যবসা করি। পেশাগতভাবে যা উপার্জন তা থেকে সঞ্চিত সামান্য পুঁজি নিয়ে দোকানটি চলছিলও ভাল। দোকানের পরিচালক ছোট ভাই রয়েলের বেতন, দোকান ভাড়া দিয়ে আমার হাত খরচে সহায়ক ছিল। সে দোকানের পুঁজিতেই হানা দিল চোর। শুক্রবার ভোররাতে (বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে) দোকানের সাটারগেটে রড দিয়ে বাঁকা করে ভেতরে ঢুকে নগদ সব টাকা ও একটা ট্যাব নিয়ে গেছে চোর। তবে রক্ষা পুজির বড় অংশ ছিল বিকাশ, রকেট আর ফ্ল্যাক্সিলোডের সিমে। আশ্চর্য্য ব্যাপার চোরেরা টাকার পুরো ড্রয়ারটাই নিয়ে গেছে।
শহীদুল হুদা অলক শুক্রবার রাত সাড়ে ৭টায় জানান, পুলিশের উপস্থিতিতে দোকান খুলে দেখা যায় ড্রয়ারে রাখা ৪৩ হাজার টাকা, ৬ হাজার টাকার মোবাইল রিচার্জ কার্ড ও গ্রামীনফোনের দেয়া একটা ট্যাব নিয়ে যায় চোর। তিনি আরও লিখেছেন, ক্লাব সুপার মার্কেটে তিনটা নাইট গার্ড থাকার পরেও এই অভিনব চুরি।
এ ঘটনায় সদর থানায় একটি অভিযোগ দায়েরকরা হয়েছে বল তিনি জানান।