সব পাওয়ার বছর পেছনে ফেলে আলিয়া

6

এখন থেকে ২০২৩-কে বলতে হবে ‘গত বছর’। গত রোববার বছরের শেষ দিনে নিজের পুরো বছরের অর্জন ও তার ঝলক দিয়ে একটি ভিডিও বানিয়ে আলিয়া ভাট শেয়ার করেছেন ইনস্টাগ্রামে। সেই ভিডিও দেখে আরেকবার মনে পড়ল, ২০২৩ আসলে আলিয়ারই বছর ছিল। আগের বছর (২০২২) এপ্রিলে রণবির কাপুরের সঙ্গে বিয়ের পিঁড়িতে বসেছিলেন, নভেম্বরে হলেন কন্যা রাহার মা। মা হওয়ার পর গত বছর আলিয়া অভিনীত প্রথম ছবি ‘রকি অওর রানি কি প্রেম কাহানি’ বক্স অফিসে ঝড় তুলল।

গত বছরই মেট গালায় অভিষেক হলো এই ‘বলি ডিভা’র। এমনকি হলিউডেও অভিষেক হলো তাঁর। ‘হার্ট অব স্টোন’ দিয়ে সারা দুনিয়ায় নিজেকে নতুনরূপে চেনালেন। আগের বছরের ‘গাঙ্গুবাঈ কাথিয়াওয়াড়ি’র জন্য পেলেন সেরা অভিনেত্রীর জাতীয় পুরস্কার। শুধু তাই নয়, তাঁর অভিনীত প্রথম দক্ষিণ ভারতীয় ছবি ‘আর আর আর’ অস্কারে আলোড়ন তুলল, পেল সেরা মৌলিক গানের অস্কারও। সব অর্জনের ছবি কোলাজ করে রিল ভিডিও বানিয়েছেন আলিয়া। মুহূর্তেই মন্তব্যের ঘর ভরে গেল প্রশংসায়।

সাধারণ ভক্ত থেকে সহশিল্পী-সবাই শুভেচ্ছা জানিয়েছেন আলিয়াকে। সবার বক্তব্যের সারমর্ম এ রকম-বয়স সবে ৩০, এরইমধ্যে বলিউডে এক যুগ পার করেছেন আলিয়া আর এখন তো তিনি শীর্ষ অভিনেত্রী। এত কম বয়সে এত এত অর্জন খুব মানুষের ভাগ্যেই জোটে। নায়িকারা সাধারণত এই বয়সে বিয়ে করেন না, করলেও সহজে মা হন না। আলিয়া সবই করেছেন নিজের মতো করে এবং জীবনের সব সিদ্ধান্তেই তিনি সফল। সবার আলোচনায় উঠে এলো কন্যা রাহার প্রসঙ্গও। বড়দিনে গত [২৫ ডিসেম্বর] মেয়ে রাহাকে প্রকাশ্যে এনেছেন রণবির-আলিয়া। মায়ের অর্জনের প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে অনেকে রাহার চোখের মণির রং নিয়েও কথা বললেন। নীলনয়না রাহা যেন রাজ কাপুরের চোখ দুটো সঙ্গে করে নিয়ে এসেছে!