সবাই রোমাঞ্চিত, ভালো শুরুর অপেক্ষায় তামিম

3

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে গত জুলাইতে সর্বশেষ ওয়ানডে খেলেছিল বাংলাদেশ। মাঝের বিরতির পর ৫০ ওভারের ক্রিকেটে ফিরতে যাচ্ছে তামিম ইকবালের দল। দীর্ঘদিন পর হলেও মাঠে নেমে কোনও সমস্যা হবে না বলে মনে করেন তামিম। মঙ্গলবার আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে বরং রোমাঞ্চের কথাই জানালেন ওয়ানডে অধিনায়ক। তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের প্রথমটি মাঠে গড়াবে আজ বুধবার। পয়মন্ত ভেন্যু জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে সকাল ১১টায়।

ম্যাচের আগে সকাল দশটা থেকেই অনুশীলন করেছে দল। অনুশীলনের পর গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে তামিম বলেছেন, ‘গত জুলাইয়ে সর্বশেষ ওয়ানডে খেলেছিলাম। ৬-৭ মাস পর ফিরেছি। তবে সবাই রোমাঞ্চিত। দ্বিধাহীনভাবে এটা আমাদের প্রিয় ফরম্যাট। এ বছর বেশ কয়েকটা ওয়ানডে আছে। গত বছর এভাবে ছিল না। কালকের জন্য মুখিয়ে আছি। আশা করছি, ভালো শুরু পারবো।’ ওয়ানডে সুপার লিগে ভালো অবস্থায় আছে দুই দলই। ১২ ম্যাচে ৮ জয়ে ৮০ পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে আছে বাংলাদেশ। অন্যদিকে আফগানিস্তানের ৬ ম্যাচে জয় ৬টিতেই। ৬০ পয়েন্ট নিয়ে আফগানরা তালিকার পঞ্চম স্থানে আছে। এখন তাদের বিপক্ষে ৩ ওয়ানডেতে ৩০ পয়েন্ট পাওয়ার হাতছানি। তামিম অবশ্য এখনই ৩-০ ব্যবধানে জয়ের চিন্তা করছেন না, ‘৩-০ এখনও অনেক দূরের ব্যাপার। আমরা কালকের ম্যাচ কীভাবে শুরু করি, এটা বেশি গুরুত্বপূর্ণ।

তবে ৩-০ করতে কে না চাইবে? ওরাও চাইবে। দূরের চিন্তা না করে আগে কাল শুরুটা করি।’ ২০১৯ ওয়ানডে বিশ্বকাপে সবশেষ মুখোমুখি হয়েছিল বাংলাদেশ-আফগানিস্তান। সেবার আফগানদের উড়িয়ে দিয়েছিল সাকিব-তামিমরা। সাকিবের অলরাউন্ড পারফরম্যান্সে বাংলাদেশ হেসেখেলেই জিতেছিল। তাছাড়া আফগানিস্তানের বিপক্ষে আগের রেকর্ডও ভালো। ৮ ম্যাচের মধ্যে ৫ বারই শেষ হাসি হেসেছে লাল-সবুজ দল। সব মিলিয়ে কাল থেকে শুরু হওয়া তিন ম্যাচের সিরিজ নিয়ে আত্মবিশ্বাসী তামিম, ‘চ্যালেঞ্জের কিছু না। আমরা কমবেশি সবাই-ই অভিজ্ঞ। ওদের সঙ্গে ওয়ানডে দিয়ে শুরু করাটা সঠিক সিদ্ধান্ত। ওয়ানডেতে অবশ্যই আমরা ভালো দল। ছন্দে ফেরাটা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। সবাই খেলার মধ্যে আছে, এটা ইতিবাচক।

দল হিসেবে ভালো করতে হবে।’ তবে প্রতিপক্ষকে হালকাভাবেও নিচ্ছেন না ওয়ানডে অধিনায়ক, ‘ওয়ানডেতে তাদের বিরুদ্ধে আমরা সবসময়ই ভালো করেছি। তারা ভালো দল এতে কোনও সন্দেহ নেই। মানসম্পন্ন বোলিং আক্রমণ আছে তাদের। তবে এই বোলিং আক্রমণের বিপক্ষেই আমরা আগে ভালো করেছি।’ গত কয়েক সিরিজ ধরে পুরো দলকে একসঙ্গে পাননি ওয়ানডে অধিনায়ক। এবার অবশ্য অভিজ্ঞ ক্রিকেটারের পাশাপাশি পুরো দলকেই একসঙ্গে পেয়েছেন। আফগান সিরিজের আগে তামিমের কাছে সবচেয়ে বড় স্বস্তির জায়গা এটিই, ‘ইনজুরি বলুন বা ছুটির কারণে। পুরো দল কিন্তু খেলতে পারেনি। এটা সৌভাগ্য যে এই সিরিজে পুরো দল পাবো। অধিনায়ক হিসেবে এরচেয়ে ভালো কিছু হতে পারে না। সবাই ভালো অবস্থায় আছে, মানসিক দিক বা পারফরম্যান্সের দিক থেকে। আমরা সবাই জানি, এই সিরিজ আমাদের জন্য কতটা গুরুত্বপূর্ণ।’