শিবগঞ্জের মরা পদ্মায় নৌকাডুবিতে নিখোঁজ স্কুলছাত্রীর মরদেহ ২৬ ঘন্টা পর উদ্ধার

62

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলায় মরা পদ্মা নদী পারাপারের সময় নৌকাডুবিতে নিখোঁজ শিশু সানজিদা আক্তারের (১৩) মরদেহ ২৬ ঘন্টা পর উদ্ধার হয়েছে। সোমবার বিকেলে মরদেহটি উদ্ধার হয়। এর আগে গত রবিবার দুপুর আড়াইটার দিকে দুর্লভপুর ইউনিয়নের নামোজগন্নাথপুর সিল্ক বাজার সেতু সংলগ্ন এলাকায় নৌকাডুবির ঘটনা ঘটে। সানজিদা একই ইউনিয়নের জয়দ মন্ডল টোলার মৃত কাজেম আলীর মেয়ে ও স্থানীয় নামোজগন্নাথপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণির ছাত্রী ছিল।
স্থানীয় সূত্র জানায়, পদ্মা নদীর শাখা (মরাপদ্মা) যাত্রী পারাপারের নৌকায় কোচিং শেষে ১৩ শিক্ষার্থী বাড়ি ফিরছিল। একপর্যায়ে নদীর মাঝামাঝি পৌঁছালে নৌকাটি ডুবে যায়। এসময় তাদের চিৎকারে আশপাশের মানুষ এগিয়ে এসে ১২ জনকে উদ্ধার করলেও সানজিদা নিখোঁজ থাকে।
শিবগঞ্জ ফায়ার স্টেশন ইনচার্জ রজব আলী শেখ ও সংশ্লিষ্ট ইউপি ওয়ার্ড সদস্য আব্দুর রাজ্জাক বলেন, নৌকাটি ডুবে যাবার পর সানজিদাকে না পাওয়া গেলে রাজশাহী থেকে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরী দল ডাকা হয়। তারা গত রবিবার বিকেল সাড়ে ৪টা থেকে রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত ও সোমবার সকাল ৭টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত চেষ্টার করেও সানজিদার সন্ধান না পেয়ে উদ্ধার অভিযান স্থগিত করে। এর দেড়ঘন্টা পর সানজিদার মরদেহ ভেসে উঠলে স্থানীয়রা উদ্ধার করে।