লিডসকে উড়িয়ে ম্যানসিটির আরও কাছে লিভারপুল

4

ঘরের মাঠ অ্যানফিল্ডে মোহাম্মদ সালাহ এবং সাদিও মানের জোড়া গোলে লিডস ইউনাইটেডকে ৬-০ গোলে বিধ্বস্ত করেছে লিভারপুল। আর এই জয়ে লিগ লিডার ম্যানচেস্টার সিটির আরও কাছে পৌঁছেছে অল রেডরা। সালাহ, মানের জোড়া গোলের সঙ্গে বাকি দুটি গোল করেন মাতিপ এবং ভ্যান ডাইক। প্রিমিয়ার লিগের চলতি মৌসুমে ২৬ ম্যাচে ২০ জয় আর তিন হারে ৬৩ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে অবস্থান করছে ম্যানচেস্টার সিটি। লিডসকে বিধ্বস্ত করে পূর্ণ তিন পয়েন্ট অর্জন করা লিভারপুল এবার সিটির সঙ্গে পয়েন্ট ব্যবধান কমিয়ে আনল তিনে। ২৬ ম্যাচে ১৮ জয় আর দুটি হারে ৬০ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে অবস্থান করছে ইয়্যুর্গেন ক্লপের দল।

অ্যানফিল্ডে ম্যাচের ১৬ মিনিটের মাথায় স্পট কিক থেকে গোল করে লিভারপুলকে লিড এনে দেন মোহাম্মদ সালাহ। ম্যাচের ১৪তম মিনিটে অ্যান্ড্রিউ রবার্টসনের ক্রস লিডস ডিফেন্ডার স্টুরার্ট ডালাসের হাতে লাগলে রেফারি সরাসরি পেনাল্টির বাঁশি বাজান। স্পট কিক থেক বল জালে পাঠাতে একটুও ভুল করেননি সালাহ। চলতি মৌসুমে প্রিমিয়ার লিগে এটি ছিল সালাহর ১৮তম গোল। ২৮ মিনিটে রাফিনহা লিডসকে সমতায় ফেরালেও অফসাইডের কারণে গোলটি বাতিল হয়ে যায়। এর মিনিট দুই পরে জোয়েল মাতিপ দুর্দান্ত এক গোলে স্বাগতিকদের লিড দ্বিগুণ করেন। মোহাম্মদ সালাহর সঙ্গে দারুণ বোঝাপড়ার পর বল দেওয়া নেওয়া করে ডি-বক্সের ভেতর দারুণ বল পেয়ে আলতো টোকায় বল জালে জড়ান মাতিপ। এর মিনিট তিনেক পরে অর্থাৎ ম্যাচের ৩৩তম মিনিটের মাথায় ডি-বক্সের ভেতর সাদিও মানেকে ফাউল করেন আইলিং। ভিএআর দেখে রেফারি আবারও পেনাল্টির বাঁশি বাজান। স্পট কিক থেকে আবারও বল জালে জড়ান সালাহ।

এতেই লিভারপুল ৩-০ গোলের ব্যবধানে এগিয়ে যায়। এটি এবারের মৌসুমে সালাহর ১৯তম গোল। হ্যাটট্রিক হতে পারতো প্রথমার্ধের শেষ দিকেই। তবে ফিরপো গোললাইন থেকে সালাহর নেওয়া শট ক্লিয়ার করলে হ্যাটট্রিক বঞ্চিত হন এই মিশরীয় ফরোয়ার্ড। বিরতি থেকে ফেরার পর লিডস ম্যাচে ফেরার বেশ চেষ্টা চালিয়ে যেতে থাকে। গোলের সুযোগও তৈরি করতে শুরু করে। তবে গোলের দেখা পাচ্ছিল না কিছুতেই। অবশ্য নিজেরা গোলের দেখা যেমন পাচ্ছিল না তেমন লিভারপুলকেও আর গোল করতে দিচ্ছিল না লিডস। কিন্তু শেষের ১০ মিনিটে লিডসের সব হিসাব গোলমাল হয়ে যায়। শেষ ১০ মিনিটে সাদিও মানে দুটি আর ভ্যান ডাইক করেন একটি গোল। ম্যাচের ৮০ মিনিটের মাথায় ডান দিক থেকে জর্ডান হ্যান্ডারসনের মাটি গড়ানো ক্রস গোলমুখে পেয়ে পায়ের টোকায় বল জালে জড়ান। আর তাতেই অল রেডরা লিড নেয় ৪-০ গোলের।

এরপর ৯০তম মিনিটে বাঁ দিক থেকে অরিগির নেওয়া শট ঠেকান মেসলিয়ের। তবে সেখান থেকে বল পেয়ে যান মানে। আর বল পেয়েই বাঁ পায়ের জোরালো শটে বল পাঠিয়ে দেন জালে। লিভারপুল এগিয়ে যায় ৫-০ গোলের ব্যবধানে। ২০২১/২২ মৌসুমে প্রিমিয়ার লিগের তৃতীয় সর্বোচ্চ গোলদাতা সাদিও মানে। সতীর্থ মোহাম্মদ সালাহ ১৯ গোল নিয়ে আছেন শীর্ষে, আর তারই আরেক সতীর্থ ডিয়েগো জোটা ১২ গোল নিয়ে আছে দুইয়ে। গতকালকের জোড়া গোলের পর মানের গোলসংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১১টিতে। ম্যাচের যোগ করা অতিরিক্ত সময়ের তৃতীয় মিনিটে রবার্টসনের অ্যাসিস্ট থেকে ভার্জিল ভ্যান ডাইক গোল করে অর্ধডজন গোল হজম করে লিডস ইউনাইটেড। ৬-০ গোলের জয়ে ম্যানচেস্টার সিটির সঙ্গে পয়েন্ট ব্যবধান কমিয়ে তিনে এনেছে লিভারপুল। ২৫ ম্যাচে ১৪ জয় আর ৩ হারে ৫০ পয়েন্ট নিয়ে তিনে আছে চেলসি। ২৬ ম্যাচে ১৩ জয় আর ৬ হারে ৪৬ পয়েন্ট নিয়ে চারে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। এরপর পাঁচে ওয়েস্ট হাম, ছয়ে আর্সেনালের অবস্থান।