লিগ্যাল এইড সচেতনতা বিষয়ে উঠান বৈঠক

14

চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার মিলকি গ্রামে বিনা খরচে আইনি সহায়তা প্রদান বিষয়ক উঠান বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে।
সোমবার বিকেলে অনুষ্ঠিত এ বৈঠকে আলোচনা করেন সিনিয়র সহকারী জজ (লিগ্যাল এইড অফিসার) রুখসানা খানম। তিনি তার বক্তব্যে উপস্থিত সকলের উদ্দেশ্যে বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিল বিনামূল্যে আইনি সেবা পাবে সাধারণ জনগণ। তার সেই স্বপ্ন পূরণে কাজ করছেন তাঁরই সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, এখন বিনামূল্যে দেশের মানুষ আইনি সেবা পাচ্ছেন। আপনারা প্রয়োজনে বিনামূল্যে আইনি সেবা নিতে পারবেন। আপনাদের জন্য সরকার প্রত্যেক জেলায় একটি করে লিগ্যাল এইড অফিস করেছেন যাতে, আপনারা বিনামূল্যে সেবা পেতে পারেন।
রুখসানা খানম বলেন, আইনের চোখে সবাই সমান, আমি একটি অপরাধ করলে যেমন সাজা পাবো, একই অপরাধ করলে আপনার জন্যও তেমনি সাজা হবে। তাহলে আমি যে সুবিধা পাচ্ছি সেই সুবিধা আপনাদেরও সেই সুবিধা পাওয়ার কথা। যার যেটা প্রয়োজন তাকে সেটা দিতে হবে। তিনি বলেন, আপনার যদি কোনো আইনি সমস্যায় পড়েন তাহলে জেলা লিগ্যাল এইড অফিসে যাবেন। সেখান থেকে বিনামূল্যে আইনি সেবা পাবেন। সেখানে গেলে আইনি সেবা ছাড়াও আইনি পরামর্শ পাবেন। তিনি বলেন, আপনারা অল্প বয়সে মেয়ের বিয়ে দিবেন না। মেয়ে মানেই তাড়াতাড়ি বিয়ে দিয়ে বিদায় করে দিব, এমন ভাববেন না।
উঠান বৈঠকে আরো বক্তব্য দেন- প্রয়াস মানবিক উন্নয়ন সোসাইটির প্রতিষ্ঠাতা ও নির্বাহী পরিচালক হাসিব হোসেন। এসময় তিনি বলেন, আইন সবার জন্যই সমান। আর তাই যে যত বেশি সরকারি সুবিধা সম্পর্কে জানতে পারবেন সে ততবেশি সুবিধা আদায় করে নিতে পারবেন। তিনি বলেন, আমাদের সবাইকে জ্ঞান অর্জন করতে হবে এবং সেই জ্ঞান বাস্তব জীবনে কাজে লাগাতে হবে।
উঠান বৈঠক সঞ্চালনা করেন প্রয়াসের কনিষ্ঠ সহকারী পরিচালক মু. তাকিউর রহমান।
উঠান বৈঠকের আয়োজন করে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা লিগ্যাল এইড অফিস।
এসময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- লিগ্যাড এইড অফিসের অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর সারোয়ার মুরশেদ রাজীব, প্রয়াসের কর্মসূচি ব্যবস্থাপক শাহাদাৎ হোসেন, আঞ্চলিক ব্যবস্থাপক বাশার উদ্দিন, সহকারী ব্যবস্থাপক পঙ্কজ কুমার পাল, সোহেল রানা, অফিসার শাহরিয়ার শিমুল, নয়ন আলীসহ অন্যরা।
উঠান বৈঠকে প্রয়াস মানবিক উন্নয়ন সোসাইটির ক্ষুদ্রঋণ গ্রহীতারা অংশগ্রহণ করেন।
উঠান বৈঠকে অংশগ্রহণকারীদের বিভিন্ন ধরনের সমস্যার কথা শুনেন এবং সমাধানের জন্য লিগ্যাড এইড অফিসে যোগাযোগ করতে বলেন সিনিয়র সহকারী জজ (লিগ্যাল এইড অফিসার) রুখসানা খানম।